ঢাকা     রোববার   ২১ জুলাই ২০২৪ ||  শ্রাবণ ৬ ১৪৩১

 ইসকন ভারতের ‘সবচেয়ে বড় প্রতারক’: মানেকা গান্ধী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৭:৫৭, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২৩  
 ইসকন ভারতের ‘সবচেয়ে বড় প্রতারক’: মানেকা গান্ধী

বিজেপির সাংসদ মানেকা গান্ধী বলেছেন, আন্তর্জাতিক কৃষ্ণভাবনামৃত সংঘ (ইসকন) হল ভারতের ‘সবচেয়ে বড় প্রতারক’। কারণ তারা তাদের গোশালা (গোয়ালঘর) থেকে কসাইদের কাছে গরু বিক্রি করে। 

ইসকন অভিযোগগুলোকে ‘অপ্রমাণিত এবং মিথ্যা’ বলে প্রত্যাখ্যান করেছে।

মানেকা গান্ধী একজন প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী এবং প্রাণি অধিকার কর্মী। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে পশু কল্যাণের বিষয়ে সোচ্চার তিনি।

ভাইরাল হওয়া একটি ভিডিওতে মানেকা গান্ধীকে বলতে শোনা যায়, ‘ইসকন দেশের সবচেয়ে বড় প্রতারক। তারা গোশালা রক্ষণাবেক্ষণ করে এবং বিশাল জমিসহ সরকারের কাছ থেকে সুবিধা পায়।’

অন্ধ্র প্রদেশে ইসকনের অনন্তপুর গোশালায় তার সফরের কথা উল্লেখ করে মানেকা জানান, সেখানে তিনি এমন কোনও গরু খুঁজে পাননি যেটি দুধ দেয় না বা বাছুর জন্ম দেয় না। পুরো গোশালায় কোনো শুস্ক গাভী ছিল না। একটি বাছুরও ছিল না। এর মানে সব বিক্রি হয়ে গেছে।

শুষ্ক গাভী হচ্ছে এমন একটি গাভী যেটি কিছু সময়ের জন্য দুধ দেয় না।

মানেকা গান্ধী অভিযোগ করেন, ‘ইসকন তার ব গরু কসাইদের কাছে বিক্রি করছে। তারা যতটা করে তা আর কেউ করে না। এবং তারা রাস্তায় গিয়ে হরে রাম হরে কৃষ্ণ গান গায়। তারপর তারা বলে যে তাদের পুরো জীবন দুধের উপর নির্ভরশীল। সম্ভবত, কসাইদের কাছে তারা যতটা গবাদিপশু বিক্রি করেছে, ততটা অন্য কেউ বিক্রি করেনি।’

অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করে ইসকনের জাতীয় মুখপাত্র যুধিষ্ঠির গোবিন্দ দাস বলেন, ধর্মীয় সংস্থাটি শুধু ভারতে নয়, বিশ্বব্যাপী ও এবং ষাঁড়ের সুরক্ষা এবং যত্নের ক্ষেত্রে অগ্রগামী। গরু ও ষাঁড়কে তাদের জীবনের জন্য রক্ষা করা হয়, অভিযোগ অনুযায়ী কসাইদের কাছে বিক্রি করা হয় না

তিনি বলেন, ‘শ্রীমতি গান্ধী একজন সুপরিচিত প্রাণি অধিকার কর্মী ও ইসকনের শুভাকাঙ্ক্ষী। তাই আমরা এই বিবৃতিতে অবাক হয়েছি।’

ঢাকা/শাহেদ

সম্পর্কিত বিষয়:

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়