ঢাকা     রোববার   ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ||  ফাল্গুন ১২ ১৪৩০

১২ বছর আগের হত্যা মামলায় আমৃত্যু কারাদণ্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৫:০৪, ৩০ নভেম্বর ২০২৩  
১২ বছর আগের হত্যা মামলায় আমৃত্যু কারাদণ্ড

১২ বছর আগে রাজধানীর এলিফ্যান্ট রোড এলাকায় খায়রুল ইসলাম বাবু নামে এক পিয়নকে হত্যা মামলায় রাজিবুল হক ওরফে মুন্না নামের এক আসামিকে আমৃত্যু কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার (৩০ নভেম্বর) ঢাকার বিশেষ দায়রা জজ আদালত-৫ এর মো. ইকবাল হোসেনের আদালত এ রায় দেন। আমৃত্যু কারাদণ্ডের পাশাপাশি তাকে ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড করা হয়েছে। রায় শেষে মুন্নাকে সাজা পরোয়ানা দিয়ে কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়।

সংশ্লিষ্ট আদালতের বেঞ্চ সহকারী সোহানুর রহমান সোহান এ তথ্য জানান।

২০১১ সালের ১১ মে বাবুকে হত্যার ঘটনায় বড় বোন আমেনা বেগম নিউ মার্কেট থানায় অজ্ঞাতনামাদের বিরুদ্ধে মামলা করেন। পরে ডিবি পুলিশ মামলার রহস্য উদঘাটন করে।

জানা যায়, নিউ মার্কেট থানাধীন এলিফ্যান্ট রোডের ট্রপিক্যাল সেন্টারে ফোরডি ডেভেলপমেন্ট অ্যান্ড টেকনোলজি লিমিটেডে পিয়ন হিসেবে কাজ করতেন বাবু। একই ভবনে মুন্না ব্রাউন ফিল্ডে কাজ করতেন। ব্রাউন ফিল্ডে কক্ষ সংস্কারের কারণে সাময়িকভাবে ফোরডি ডেভেলপমেন্ট অ্যান্ড টেকনোলজি লিমিটেডে ব্রাউন ফিল্ডের কাজ চলছিল। চাকরির সুবাদে তাদের পরিচয়। মুন্নার বিরুদ্ধে আর্থিক অনিয়মের অভিযোগে ছিল। তাকে চাকরিচ্যুত করা হয়। ২০১১ সালের ১০ মে মুন্না অফিসে আসে। বাবুকে দেখেও কথা না বলে চলে যায়। পরদিন আবার আসে। তাদের কথা হয়। এরই মাঝে অফিসের ড্রয়ার থেকে টাকা চুরির চেষ্টা করে মুন্না। তা দেখে ডাক-চিৎকার করে বাবু।  মুন্না ইলেকট্রিক তার পেচিয়ে তাকে শ্বাসরোধ করে। পরে চুরি দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে।

মামলাটি তদন্ত করে ২০১২ সালের ১৫ নভেম্বর মুন্নাকে অভিযুক্ত করে চার্জশিট দাখি করেন ডিবি (দক্ষিণ) পুলিশের পরিদর্শক নুরুল আমিন। ২০১৩ সালের ৩০ এপ্রিল মুন্নার বিরুদ্ধে চার্জগঠন করেন আদালত। মামলার বিচার চলাকালে আদালত সাত জনের সাক্ষ্যগ্রহণ করেন।

/মামুন/এসবি/

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়