ঢাকা     শনিবার   ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ||  ফাল্গুন ১১ ১৪৩০

চারা রোপণ ও অসহায়দের খাওয়ানোর শর্তে মামলা থেকে খালাস

নিজস্ব প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৬:৪৫, ১০ ডিসেম্বর ২০২৩  
চারা রোপণ ও অসহায়দের খাওয়ানোর শর্তে মামলা থেকে খালাস

২০টি গাছের চারা রোপণ করে এবং অসহায় লোকদের খাইয়ে মাদক মামলা থেকে খালাস পেয়েছেন সেন্টু নামের এক আসামি। রোববার (১০ ডিসেম্বর) ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-১০ এর বিচারক মোহাম্মদ নজরুল ইসলামের আদালত আপিল নিষ্পত্তি করে খালাসের আদেশ দেন।

সংশ্লিষ্ট আদালতের রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী আজাদ রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করেন। 

জানা যায়, ২০০৭ সালের ১১ মার্চ রাত ১২টা ৩৫ মিনিটের দিকে আদাবর থানাধীন নবোদয় হাউজিং সোসাইটি এলাকায় পুলিশ চেকপোস্ট বসায়। সন্দেহ হওয়ায় একটি প্রাইভেট কার তল্লাশির জন্য থামায়। সেখানে দেখা যায়, পাঁচ জন মদ্যপ অবস্থায় হেলে-দুলে গাড়ি চালাচ্ছেন। জিজ্ঞাসাবাদে তারা পুলিশের সাথে খারাপ ব্যবহার করেন। এরপর পুলিশ তাদের গ্রেপ্তার করে। পরে আদাবর থানার উপ-সহকারী পরিদর্শক শ্রী রামকুমার দাস গাড়িচালক নুর আলম ওরফে খাইরুল, সেন্টু, বাবর আলী, মোস্তফা ও লাল মিয়ার বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা করেন। 

পরদিন তারা জামিন পান। মামলা তদন্ত করে একই থানার সাব-ইন্সপেক্টর রাজা মিঞা ১৪ মার্চ আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। ওই বছরের ৬ ডিসেম্বর আসামিদের বিরুদ্ধে চার্জগঠন করে বিচার শুরুর আদেশ দেন। মামলার বিচার চলাকালে আদালত ৭ জন সাক্ষীর মধ্যে তিন জনের সাক্ষ্য গ্রহণ করেন। ২০১৫ সালের ১২ জানুয়ারি ঢাকার তৎকালীন মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট তসরুজ্জামান আসামিদের এক মাস করে বিনাশ্রম কারাদণ্ড, এক হাজার টাকা করে অর্থদণ্ড, অনাদায়ে ১০ দিনের কারাদণ্ডের আদেশ দেন। রায়ের সময় আসামিরা পলাতক ছিলেন। আদালত তাদের বিরুদ্ধে সাজা পরোয়ানাসহ গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন।

এরপর আসামি সেন্টু আত্মসমর্পণ করে আপিলের শর্তে জামিন চাইলে আদালত তা মঞ্জুর করেন। তাকে ২০টি গাছের চারা রোপণ ও অসহায় লোকদের খাওয়ানোর মৌখিক আদেশ দেন। আদালতের নির্দেশে সেন্টু সেটা প্রতিপালন করেন। এ সংক্রান্ত কিছু ছবি তিনি আদালতে দাখিলও করেন। পরে আদালত আপিল নিষ্পত্তি করে তাকে খালাসের আদেশ দেন।

মামুন/এনএইচ

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়