Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     রোববার   ১৭ অক্টোবর ২০২১ ||  কার্তিক ১ ১৪২৮ ||  ০৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

‘ধামাকা’র কাছে পাওনা ২০০ কোটি টাকা ফেরত চান মার্চেন্টরা

জ‌্যেষ্ঠ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৫:২১, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১   আপডেট: ১৫:৪৬, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১
‘ধামাকা’র কাছে পাওনা ২০০ কোটি টাকা ফেরত চান মার্চেন্টরা

ধামাকা শপিং ডট কমের ৬৫০ জন এসএমই উদ্যোক্তা মার্চেন্টের ২০০ কোটি এবং ৩ লাখেরও বেশি গ্রাহকের পাওনা ১০০ কোটি টাকাসহ মোট ৩০০ কোটি টাকা অচিরেই ফেরৎ দেওয়ার ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ চেয়েছেন সেলার অ্যাসোসিয়েশনের সদস্যরা।

শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) সকাল ১১টায় ঢাকা রিপোটার্স ইউনিটির নসরুল হামিদ মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনে সেলার অ্যাসোসিয়েশনের গণযোগাযোগ সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন।

লিখিত বক্তব্যে জাহিদুল ইসলাম বলেন, মাইক্রোট্রেড গ্রুপের অঙ্গ প্রতিষ্ঠান ইনভ্যারিয়েন্ট টেলিকম বাংলাদেশ লিমিটেডের সঙ্গে তারা ২০২০ সালের ডিসেম্বর মাসে সেলার হিসেবে চুক্তিবদ্ধ হন। এরকম চুক্তিবদ্ধ সেলার বা মার্চেন্টের সংখ্যা ৬৫০ জন। তাদের সঙ্গে সরাসরি ব্যবসায় সম্পৃক্ত আছেন ৩ লাখেরও বেশি গ্রাহক। এসব গ্রাহকদের লক্ষাধিক ডেলিভারি মাইক্রোট্রেড গ্রুপের কাছে পেন্ডিং পড়ে আছে। যার পুরো টাকা কোম্পানিকে অগ্রিম পরিশোধ করা হয়েছে।

তিনি বলেন, ৩ লক্ষাধিক গ্রাহকের ১ লক্ষাধিক অর্ডারের মূল্য প্রায় ১০০ কোটি টাকা।  এছাড়াও মাইক্রোট্রেড গ্রুপের কাছে ৬৫০ জন মার্চেন্টের পাওনা টাকার পরিমাণ প্রায় ২০০ কোটি টাকা। বিভিন্ন সময় মাইক্রোট্রেড গ্রুপের চেয়ারম্যান ডা. মোজতবা আলী এবং ব্যবস্থাপনা পরিচালক জসিমউদ্দিন চিশতী টাকা পরিশোধের কথা বলেও এখন পর্যন্ত গ্রাহকদের অর্ডার করা মালামাল ডেলিভারি বা টাকা ফেরৎ দেয়নি।

তিনি বলেন, চুক্তিবদ্ধ সেলার বা মার্চেন্টদের সঙ্গে চুক্তিতে লেখা ছিল, পণ্য সরবরাহের অর্ডারের কপি পাওয়ার পর পণ্য সরবরাহ করে বা তাদের নির্দেশিত গ্রাহকদের পণ্য বুঝিয়ে দিয়ে বিল জমা দেওয়ার ১০ দিনের মধ্যে ধামাকা শপিং ডট কম সেলারদের পাওনা টাকা পরিশোধ করবে।  কিন্তু ১০ দিনের জায়গায় ১৬০ দিন অতিবাহিত হওয়ার পরও, গত এপ্রিল থেকে ধামাকার নির্দেশিত গ্রাহকদের কাছে পণ্য সরবরাহ বাবদ মার্চেন্টদের পাওনা প্রায় ২০০ কোটি টাকা আজও পরিশোধ করেনি। 

জাহিদুল ইসলাম বলেন, সেলারদের পাওনা টাকা উদ্ধারের জন্য বার বার চেষ্টা করে প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারলেও মালিকদের কারো সঙ্গে সরাসরি যোগাযোগ করতে পারিনি। কোম্পানির চেয়ারম্যান ভার্চুয়ালি কয়েকবার মিটিং করে টাকা পরিশোধের কথা বললেও এখনও সেটা করেননি।  পাওনা টাকা পাওয়ার আশায় প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়, বাণিজ্যমন্ত্রী, আইসিটি প্রতিমন্ত্রী, বাণিজ্য সচিব, আইসিটি সচিব, ডাক ও টেলিযোগাযোগ সচিব, মন্ত্রী পরিষদ সচিব, বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নরসহ উল্লেখিত দপ্তরে এ বছরের জুলাই থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত একাধিকবার মানবিক আবেদন করা হয়।

তিনি বলেন, আগামী ৫ দিনের মধ্যে ধামাকা শপিং ডট কম থেকে পাওনা সকল টাকা পরিশোধ করার জন্য কোম্পানির চেয়ারম্যান ডা. মোজতবা আলী এবং ব্যবস্থাপনা পরিচালক জসিমউদ্দিন চিশতিকে অনুরোধ করা হচ্ছে। অন্যথায় বিনিয়োগ করা ৩০০ কোটি টাকা আদায়ের জন্য কোম্পানির মালিকদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।  

সংবাদ সম্মেলনে সেলার অ্যাসোসিয়েশনের জাহাঙ্গীর আলম ইমন, জাহিদুল ইসলাম, ইউসুফ মাহমুদ, হারুন অর রশীদ, নাইমুল ইসলাম, আবদুল্লাহ আল মামুন, ইদ্রিস হায়দারসহ অর্ধ শতাধিক মার্চেন্ট উপিস্থিত ছিলেন।

মেসবাহ/সুমি

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়