ঢাকা     সোমবার   ১৭ জানুয়ারি ২০২২ ||  মাঘ ৩ ১৪২৮ ||  ১৩ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

শেফ হিসেবে তরুণদের অনুপ্রেরণা আসিফ রাহী

সাজেদুর আবেদীন শান্ত || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৩:১৫, ২৯ নভেম্বর ২০২১   আপডেট: ১৫:১০, ২৯ নভেম্বর ২০২১
শেফ হিসেবে তরুণদের অনুপ্রেরণা আসিফ রাহী

আসিফ আহমেদ রাহী

আসিফ আহমেদ রাহী। ১৯৯৭ সালের ৪ মে জন্ম পুরান ঢাকায়। বাবা সামসুল আলম একজন ব্যবসায়ী এবং মা রুমা আলম গৃহিণী। দুই ভাই-বোনের মধ্যে রাহী সবার বড়। মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিকে পড়েছেন ক্যামব্রিয়ান স্কুল অ্যান্ড কলেজে। ছোট সময়ে খেলাধুলায় ঝোঁক থাকলেও ইচ্ছা ছিল সামরিক বাহিনীতে কাজ করবেন। কিন্তু চশমা ব্যবহার করায় পর পর দু’বারই তাকে ব্যর্থ হতে হয়েছে। 

আসিফ রাহী দেশের একজন জনপ্রিয় শেফ। ছোটবেলায় একটি জাতীয় প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের পর দেশে পরিচিতি পান। তিনি বাংলাদেশ ও ভারতে রান্নার অনুশীলন করেন। নিউজিল্যান্ড ডেইরি বাংলাদেশ আয়োজিত ডিপ্লোমা ডেজার্ট প্রতিযোগিতায় প্রতিযোগীদের মধ্যে আসিফ রাহী ছিলেন একমাত্র ছেলে। প্রতিযোগিতাটি প্রায় ৩ মাসব্যাপী হয়েছিল, সরাসরি সম্প্রচার করেছিল এনটিভি।

তিনি বলেন, আমি ছোট থেকেই পুরান ঢাকায় থাকতাম। এখানকার খাবার মানেই ঐতিহ্যে ভরপুর। পুরান ঢাকায় থাকার সুবাদে সব ঐতিহ্যবাহী খাবার খুব অল্প সময়েই আয়ত্ত করতে পেয়েছিলাম। আমার মায়ের কাছ থেকেই আমি প্রথম রান্না শিখি। আমার বিশ্বাস, আমার হাতের রান্নার স্বাদ মায়ের কাছ থেকেই পাওয়া।

শেফ রাহী তার ক্যারিয়ার শুরু করেন ঢাকার একটি পাঁচ তারকা হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে। এছাড়াও তিনি সিলেটের শ্রীমঙ্গলের গ্র্যান্ড সুলতানে কাজ করেছেন। বাংলাদেশ শেফ ফেডারেশনের সর্বকনিষ্ঠ সদস্য হিসেবে কাজ করছেন তিনি। বর্তমানে সংগঠনের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন।

তার মা রুমা আলম বলেন, আমার ছেলে ছোটবেলা থেকেই মেধাবী। তার স্মৃতিশক্তি প্রখর। পড়াশোনায় খুব ভালো ছিল। পড়াশোনার পাশাপাশি সে দক্ষ রাধুনিও ছিল। রাহীর রান্নার হাতেখড়ি আমার মাধ্যমেই। ছেলে ডিপ্লোমা মিষ্টি লড়াই সিজন সিক্সে অংশগ্রহণ করেছে। প্রথম না হলেও অংশগ্রহণ করেছে এবং ২ লাখ টাকা প্রাইজ জিতেছে, এতেই আমি খুশি। আমার ছেলের জন্য সবাই দোয়া করবেন।

দেশের সব তরুণ ছেলে-মেয়ের জন্য রান্নাবান্নায় আসিফ রাহী শেফ হিসেবে উদাহরণ। তিনি স্বপ্ন দেখেন সারাদেশে বিনামূল্যে এই কুলিনারি শিক্ষা পৌঁছে দেবেন। এজন্য তিনি ইতোমধ্যেই অনলাইন ভিত্তিক একটি শিক্ষামূলক পেজ পরিচালনাও শুরু করেছেন। এর মাধ্যমে তিনি নতুন নতুন রেসিপিসহ রান্নার নানা বিষয় তুলে ধরছেন। শেফ পেশায় যারা স্বপ্ন দেখেন, তাদের জন্য তিনি কাজ করে যাওয়ার আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন।

লেখক: ফিচার লেখক ও গণমাধ্যমকর্মী।

/মাহি/

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়