ঢাকা, সোমবার, ৩ ফাল্গুন ১৪২৬, ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

সাকিবের স্থলাভিষিক্ত হলেন কুক

ক্রীড়া ডেস্ক : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০১-২৯ ২:০৮:৩১ পিএম     ||     আপডেট: ২০২০-০১-২৯ ৩:৪৫:২৪ পিএম

সময়টা ভালো যাচ্ছে না সাকিব আল হাসানের। জুয়াড়িদের কাছ থেকে প্রস্তাব পেয়েও সেটা গোপন করায় আইসিসির নিষেধাজ্ঞার মধ্যে পড়েছেন। নিষেধাজ্ঞায় থাকার কারণে স্বাভাবিকভাবেই তিনি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) কেন্দ্রীয় চুক্তির বাইরে চলে গেছেন। পাশাপাশি নিষিদ্ধ হওয়ার পর পরই ক্রিকেটের আইন-কানুন প্রণয়নকারী প্রতিষ্ঠান মেরিলেবন ক্রিকেট ক্লাবের (এমসিসি) ক্রিকেট কমিটি থেকে সরে দাঁড়ান। ২০০৭ সালে তিনি এমসিসির সদস্য হয়েছিলেন।

সাকিব সরে দাঁড়ানোর পর এমসিসি সেই পদে কাকে নিবে সেই খোঁজে ছিল। অবশেষে তারা বেছে নিয়েছে ইংল্যান্ডের সাবেক অধিনায়ক স্যার অ্যালিস্টার কুককে। এমসিসির ক্রিকেট কমিটির সদস্য হওয়ার প্রস্তাবে তিনি রাজি হয়েছেন।

সাকিবের পাশাপাশি ক্রিকেট কমিটি থেকে সরে দাঁড়ান ইয়ান বিশপ। তার পরিবর্তে জায়গা পেয়েছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেটের সভাপতি রিকি স্কেরিট।

এমসিসির নতুন সদস্য হিসেবে কুক ও স্কেরিটকে বছরে দুইবার ক্রিকেটের গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে আয়োজিত সভায় যোগ দিতে হবে। আগামী মার্চে এমসিসির বিশ্ব ক্রিকেট কমিটির সভা শ্রীলঙ্কায় অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।

কুক ও স্কেরিটের সদস্য হওয়ার বিষয়ে এমসিসির চেয়ারম্যান মাইক গেটিং বলেছেন, ‘আমি খুবই উচ্ছ্বসিত যে স্যার অ্যালিস্টার কুক ও রিকি স্কেরিট এমসিসি ক্রিকেট কমিটির সদস্য হওয়ার আমন্ত্রণ গ্রহণ করেছেন। কুক ইংল্যান্ডের হয়ে তার ক্যারিয়ারের দারুণ সময় কাটিয়েছেন। এখনো তিনি ঘরোয়া ক্রিকেট খেলে যাচ্ছেন। তিনি বর্তমান খেলোয়াড়দের মতামত তুলে ধরতে পারবেন। পাশাপাশি তার অগাথ আন্তর্জাতিক অভিজ্ঞতাও কাজে লাগাতে পারবেন।’

‘আমরা ওয়েস্ট ইন্ডিজ থেকে নতুন প্রতিনিধি নির্বাচন করার প্রক্রিয়ার মধ্যে ছিলাম। আমি আনন্দিত যে রিকি স্কেরিট আমাদের সঙ্গে সেখান থেকে যুক্ত হতে যাচ্ছেন। একজন ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান হিসেবে খেলা সম্পর্কে তার জ্ঞান অনেক। ক্রিকেটের বাইরে তার কাজ করার যে অভিজ্ঞতা সেটা আমাদের কমিটির দারুণ কাজে দিবে।’ যোগ করেন তিনি।

স্যার অ্যালিস্টার কুক ইংল্যান্ডের হয়ে ১৬১টি টেস্ট খেলে ১২ হাজার ৪৭২টি রান করেছেন। তিনি ২০১৮ সালে ওভালে ভারতের বিপক্ষে তার শেষ টেস্টে সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে বিদায় নেন। এরপর থেকে তিনি ঘরোয়া ক্রিকেট খেলে যাচ্ছেন।

অন্যদিকে রিকি স্কেরিট ২০১৯ সালের মার্চে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি হন। ২০০৪ সাল থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত সেইন্ট কিটস অ্যান্ড নেভিসের বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি। সবশেষ ওয়েস্ট ইন্ডিজের পর্যটন মন্ত্রী ছিলেন। আন্তর্জাতিক পর্যটন, আন্তর্জাতিক বাণিজ্য, শিল্প, বাণিজ্য ও খেলাধুলা সম্পর্কে তার যথার্থ ধারনা ও অভিজ্ঞতা রয়েছে।

সভাপতি হওয়ার আগে তিনি ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেটের সিনিয়র টিম ম্যানেজার ছিলেন।



ঢাকা/আমিনুল