Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     মঙ্গলবার   ১৩ এপ্রিল ২০২১ ||  চৈত্র ৩০ ১৪২৭ ||  ২৮ শা'বান ১৪৪২

হ্যাটট্রিকসহ ৫ উইকেট নিয়ে প্রোটিয়াদের লজ্জায় ডোবালেন আগার

ক্রীড়া ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ০৪:০৬, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২০   আপডেট: ০৫:২২, ৩১ আগস্ট ২০২০
হ্যাটট্রিকসহ ৫ উইকেট নিয়ে প্রোটিয়াদের লজ্জায় ডোবালেন আগার

শুক্রবার রাতে অস্ট্রেলিয়ার স্পিনার অ্যাস্টন আগার হ্যাটট্রিসহ ৫ উইকেট নিয়েছেন। আর ব্যাট হাতে করেছেন অপরাজিত ২০ রান। তার এমন জ্বলে ওঠার দিনে অস্ট্রেলিয়াও পেয়েছে বড় জয়। ওয়ান্ডারার্স স্টেডিয়ামে প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারিয়েছে ১০৭ রানের ব্যবধানে।

অস্ট্রেলিয়ার ছুড়ে দেওয়া ১৯৭ রান তাড়া করতে নেমে ৪০ রান তুলতেই দক্ষিণ আফ্রিকা হারিয়ে বসে ৪ উইকেট। কুইন্টন ডি কক (২), রাসি ফন দের ডুসেন (৬), জেজে স্মুট (৭) ও ডেভিড মিলার (২) ব্যবর্থ হয়ে ফেরেন। ম্যাচের অষ্টম ওভারে আগার হ্যাটট্রিক করে প্রোটিয়াদের ধ্বসিয়ে দেন। ওই ওভারে তিনি ফাপ ডু প্লেসিস (২৪), আন্দিলে ফেলুকাওয়ে (০) ও ডেল স্টেইনকে ফিরিয়ে দ্বিতীয় অস্ট্রেলিয়ান হিসেবে টি-টোয়েন্টিতে হ্যাটট্রিক করার গৌরব অর্জন করেন। তাতে ৪৪ রানেই স্বাগতিকরা হারিয়ে বসে ৭ উইকেট!

এরপর কাগিসু রাবাদা কিছু বাউন্ডারি হাঁকান। সেটা কেবল ব্যবধান কমিয়েছে। শেষ পর্যন্ত ১৫তম ওভারেই দক্ষিণ আফ্রিকা অলআউট হয় ৮৯ রানে। যা তাদের টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট ইতিহাসে সর্বনিম্ন দলীয় সংগ্রহ।

অ্যাস্টন আগার হ্যাটট্রিকসহ ৫ উইকেট নেন। ২টি করে উইকেট নেন অ্যাডাম জাম্পা ও প্যাট কামিন্স। অপর উইকেটটি নেন মিচেল স্টার্ক।

তার আগে অস্ট্রেলিয়ার স্টিভেন স্মিথের ৪৫ ও অ্যারোন ফিঞ্চের ৪২ রানের ইনিংসে ভর করে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৯৬ রান সংগ্রহ করে অজিরা। যদিও তাদের শুরুটা ভালো হয়নি। ডেভিড ওয়ার্নার ৪ রান করেই আউট হয়েছিলেন। সেখান থেকে ফিঞ্চ ও স্মিথ ৮০ রানের জুটি গড়েন। ৮৪ রানের মাথায় তাবরেজ শামসি অধিনায়ক অ্যারোন ফিঞ্চকে ফিরিয়ে এই জুটি ভাঙেন। এরপর ম্যাথু ওয়েডের ১৮, মিচেল মার্শের ১৯, আলেক্স ক্যারির ২৭ ও অ্যাস্টন আগারের অপরাজিত ২০ রানে ভর করে ১৯৬ রানের লড়াকু সংগ্রহ পায় সফরকারীরা।

বল হাতে হ্যাটট্রিকসহ ৫ উইকেট ও ব্যাট হাতে অপরাজিত ২০ রান করে অবধারিতভাবে ম্যাচসেরা নির্বাচিত হন অ্যাস্টন আগার।

রোববার পোর্ট এলিজাবেথে দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি ম্যাচে মুখোমুখি হবে দল দুটি।

 

ঢাকা/আমিনুল

রাইজিংবিডি.কম

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়

শিরোনাম

Bulletলকডাউন: ১৪-২১ এপ্রিল। যা যা চলবে: ১. বিমান, সমুদ্র, নৌ ও স্থল বন্দর এবং তৎসংশ্লিষ্ট অফিস। ২. পণ্য পরিবহন, উৎপাদন ব্যবস্থা ও জরুরি সেবাদানের ক্ষেত্রে এ আদেশ প্রযোজ্য হবে না ৩. শিল্প-কারখানা ৪. আইনশৃঙ্খলা এবং জরুরি পরিসেবা, যেমন, কৃষি উপকরণ (সার, বীজ, কীটনাশক, কৃষি যন্ত্রপাতি ইত্যাদি), খাদ্যশস্য ও খাদ্যদ্রব্য পরিবহন, ত্রাণ বিতরণ, স্বাস্থ্যসেবা, কোভিড-১৯ টিকা প্রদান, বিদ্যুৎ, পানি, গ্যাস/জ্বালানি, ফায়ার সার্ভিস, বন্দরগুলোর (স্থল, নদী ও সমুদ্রবন্দর) কার্যক্রম, টেলিফোন ও ইন্টারনেট (সরকারি-বেসরকারি), গণমাধ্যম (প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়া), বেসরকারি নিরাপত্তা ব্যবস্থা, ডাক সেবাসহ অন্যান্য জরুরি ও অত্যাবশ্যকীয় পণ্য ও সেবার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট অফিসসমূহ, তাদের কর্মচারী ও যানবাহন এ নিষেধাজ্ঞার আওতা বর্হিভূত থাকবে। ৫. ওষুধ ও নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি ক্রয়, চিকিৎসা সেবা, মৃতদেহ দাফন/সৎকার ৬. খাবারের দোকান ও হোটেল-রেস্তোরাঁয় দুপুর ১২টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা এবং রাত ১২টা থেকে ভোর ৬টা পর্যন্ত কেবল খাদ্য বিক্রয়/সরবরাহ করা যাবে। ৭. কাঁচাবাজার এবং নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি সকাল ৯টা থেকে বেলা ৩টা পর্যন্ত উন্মুক্ত স্থানে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ক্রয়-বিক্রয় করা যাবে || যা যা বন্ধ থাকবে: ১. সব সরকারি, আধাসরকারি, সায়ত্ত্বশাসিত ও বেসরকারি অফিস, আর্থিক প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে ২. সব ধরনের পরিবহন (সড়ক, নৌ, অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক ফ্লাইট) বন্ধ থাকবে ৩. শপিংমলসহ অন্যান্য দোকান বন্ধ থাকবে