Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     বুধবার   ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ ||  আশ্বিন ১৪ ১৪২৮ ||  ১৯ সফর ১৪৪৩

‘শামীমের ক্ষুধার্ত মনোভাব ছিল, ম্যাচটা ও-ই জেতাবে’

ক্রীড়া প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২৩:৩২, ২৫ জুলাই ২০২১  
‘শামীমের ক্ষুধার্ত মনোভাব ছিল, ম্যাচটা ও-ই জেতাবে’

দ্বিতীয় ম্যাচে অভিষেক হয়েছিল শামীমের

১৯৪ রানের লক্ষ্যে শামীম হোসেন পাটোয়ারি যখন ক্রিজে গেলেন, তখন বাংলাদেশের প্রয়োজন ২৬ বলে ৪৪ রান। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে এ রান একদমই মামুলি। কিন্তু এ ফরম্যাটে অনভ্যস্ত বাংলাদেশের জন্য এটা বিরাট কিছু। কিন্তু তারুণ্যের আগমনী বার্তা নিয়ে ২২ গজে হাজির হওয়া শামীম বুঝিয়ে দিলেন, তিনি চলে এসেছেন। ১৫ বলে ৩১ রানের ঝকঝকে ইনিংস খেলে ৪ বল বাকি থাকতেই বাংলাদেশকে নিয়ে গেলেন জয়ের বন্দরে।

শামীম ১৮তম ওভারে ডিয়ন মায়ার্সকে হাঁকালেন হ্যাটট্রিক চার। এর আগে ও পরে জিম্বাবুয়ের দুই দ্রুতগতির বোলার টেন্ডাই চাতারা ও ব্লেসিং মুজারাবানিকেও হাঁকান বাউন্ডারি। শেষ ওভারে যখন ৫ রান লাগত, প্রথম বলেই ওয়েলিংটন মাসাকাদজার মাথার ওপর দিয়ে বাউন্ডারি। পরের বলে ১ রান। ব্যস, তাতেই ফিনিশার হয়ে উঠলেন শামীম।

সৌম্য সরকার ওপেনিংয়ে নেমে ৬৮ রানের ইনিংস খেলেন। এরপর ড্রেসিংরুমে বসে দেখেন শামীমের অসাধারণ ব্যাটিং। ম্যাচ শেষে তাকে নিয়ে সৌম্য বলেন, ‘শামীমের ব্যাটিংটা অনেক গুরুত্বপূর্ণ ছিল। সবচেয়ে বড় ব্যাপার ওর মধ্যে ইতিবাচক দিক ছিল। একটা ক্ষুধার্ত মনোভাব ছিল, ম্যাচটা ও-ই জেতাবে। আমার কাছে দেখে খুব ভালো লেগেছে। নিজের দ্বিতীয় ম্যাচে এসেই ফিনিশ করে এসেছে।’

টি-টোয়েন্টি সিরিজ বাংলাদেশ ২-১ ব্যবধানে জিতেছে। এর আগে টেস্ট জয়ের পর ওয়ানডেতে জিম্বাবুয়েকে করেছে হোয়াইটওয়াশ। টি-টোয়েন্টিতে তামিম ছিলেন না। ছিলেন না মুশফিকও। লিটন, মোস্তাফিজও ছিটকে যান। মূল দলের চার ক্রিকেটারকে ছাড়া যেভাবে দল পারফর্ম করেছে, তাতে দারুণ খুশি সিরিজ সেরার পুরস্কার পাওয়া সৌম্য, ‘টি-টোয়েন্টি ম্যাচে অনেক আক্রমণাত্মক থাকতে হয়, ইতিবাচক থাকতে হয়। অনেক হাই ইনটেনসিটি থাকতে হয়। যারা ছিল না, ওদের কথা চিন্তা করলে তো হবে না, যারা ছিল ওরা সবাই সবার সেরাটা দিয়েছে। অবশ্যই আমরা তাদেরকেও মিস করেছি। আমাদের মূল ১১ জন খেলতে পারলে সিরিজটা আরও ভালোভাবে শেষ হতো। তারপরও আমরা যারা খেলেছি, সবাই সবার সেরাটা দিয়েছি।’

ঢাকা/ইয়াসিন/ফাহিম

সর্বশেষ