ঢাকা     শুক্রবার   ০২ ডিসেম্বর ২০২২ ||  অগ্রহায়ণ ১৮ ১৪২৯ ||  ০৭ জমাদিউল আউয়াল ১৪১৪

কক্সবাজার-সেন্টমার্টিন নৌপথে চালু হ‌চ্ছে বিলাসবহুল ক্রুজ

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২১:৩৪, ৩ অক্টোবর ২০২২   আপডেট: ২২:৪৩, ৩ অক্টোবর ২০২২
কক্সবাজার-সেন্টমার্টিন নৌপথে চালু হ‌চ্ছে বিলাসবহুল ক্রুজ

ছবি: সংগৃহীত

গত দুই মৌসু‌মের ম‌তো এবারও কর্ণফুলী শিপ বির্ল্ডাসের কর্ণফুলী ক্রুজলাইন এবার কক্সবাজার থেকে সেন্টমার্টিন এবং চট্টগ্রাম থেকে সেন্টমার্টিন রুটে তাদের সার্ভিস চালু করতে যাচ্ছে। বৃহস্পতিবার (৬ অক্টোবর) থেকে ‘এমভি কর্ণফুলী এক্সপ্রেস’ ক্রুজটি কক্সবাজার থেকে সেন্টমার্টিনের মধ্যে সরাসরি যাতায়াত শুরু করবে। পাশাপাশি আগামী ৩ নভেম্বর থেকে চট্টগ্রাম-সেন্টমার্টিনের মধ্যে চলাচল করবে বিলাসবহুল ক্রুজশিপ ‘এমভি বে ওয়ান’।

শিগগিরই এই বহরে যুক্ত হতে যাচ্ছে ‘বারো আওলিয়া’ নামক নতুন আরেকটি ক্রুজশিপ। এই পরিবারে আছে ‘এমভি সেন্টমার্টিন’ ক্রুজ নামক একটি বার্জও। এমভি বে ওয়ান ৭ তলা উচ্চতাসম্পন্ন বড় জাহাজ বিধায় সেন্টমার্টিনের জেটিতে নোঙর করতে পারবে না। তাই এই বার্জ দিয়ে যাত্রী সেন্টমার্টিন জেটিতে আনা-নেওয়া করাসহ দ্বীপে সাইট সিইংয়ের জন্য এটি ব্যবহার করা হবে।

কক্সবাজার জেলা শহর থেকে ১২০ কিলোমিটার দূরত্বের নয়নাভিরাম প্রবাল দ্বীপ সেন্টমার্টিন। যা বিশ্বের অন্যতম সুন্দর প্রবালদ্বীপ হিসেবে পরিচিত। এই দ্বীপের পথে কক্সবাজার থেকে ক্রুজ যাত্রা করবে সেন্টমার্টিনের পথে। এমভি কর্ণফুলী সকালে কক্সবাজার এয়ারপোর্ট সড়কের বিআইডব্লিউটিএ ঘাট থেকে যাত্রা শুরু করে দুপুরে সেন্টমার্টিন পৌঁছাবে এবং একই দিন বিকেলে সেন্টমার্টিন থেকে রওয়ানা করে রাতে কক্সবাজার ফিরে আসবে। 

কর্ণফুলী শিপ বিল্ডার্স লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ইঞ্জিনিয়ার এম এ রশিদ জানান, এমভি কর্ণফুলী এক্সপ্রেসকে নিজস্ব ডকইয়ার্ডে একটি অত্যাধুনিক বিলাসবহুল জাহাজ হিসেবে প্রস্তুত করা হয়েছে। আমেরিকার বিখ্যাত কামিন্স ব্র্যান্ডের এই ইঞ্জিনের একেকটির ক্ষমতা প্রায় ৬০০ বিএইচপি করে। ১৭টি ভিআইপি কেবিনসহ তিন ক্যাটাগরিতে প্রায় ৬০০ পর্যটকের বসার ব্যবস্থা রয়েছে। রয়েছে অত্যাধুনিক সুযোগ-সুবিধা। এই ক্রুজটি ঘণ্টায় প্রায় ১২ নটিক্যাল মাইল গতিতে ছুটতে পারে।

নৌযানটিতে তিন ক্যাটাগরির আসন রয়েছে। যার মধ্যে রয়েছে সিভিউ এসি সোফা সিটিং-ক্রিসেন্ট টিমাম, ভিআইপি ও ভিভিআইপি কেবিন, সাইট ভিউ এসি কেবিন, রুফটপ, কনফারেন্স রুম, ডাইনিং স্পেস ও প্রশস্ত ব্যালকনিসহ আধুনিক বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা।

শ্রেণিভেদে ভাড়া পড়বে ল্যাভেন্ডার ও ম্যারিগোল্ড নামক ইকোনমি চেয়ার সিট: (যাওয়া-আসা) ৩ হাজার ২০০ টাকা, ওয়ান ওয়ে: ১ হাজার ৭০০ টাকা, ওপেন ডেক ও লিলাক লাউঞ্জ বিজনেস ক্লাস: (যাওয়া-আসা) ৪ হাজার, ওয়ান ওয়ে: ২ হাজার ১০০ টাকা, ক্রিসেন্ট টিমাম: (যাওয়া-আসা) ৪ হাজার ৫০০ টাকা, ওয়ান ওয়ে: ২ হাজার ৩০০ টাকা, সিঙ্গেল কেবিন: (যাওয়া-আসা) ৭ হাজার ৫০০ টাকা, ওয়ান ওয়ে: ৪ হাজার টাকা, টুইন কেবিন: (যাওয়া-আসা) ১২ হাজার টাকা, ওয়ান ওয়ে: ৬ হাজার ৫০০ টাকা, ভিআইপি কেবিন: (যাওয়া-আসা) ২০ হাজার টাকা, ওয়ান ওয়ে: ১১ হাজার ৫০০ টাকা, ভিভিআইপি কেবিন: (যাওয়া-আসা) ২৮ হাজার টাকা, ওয়ান ওয়ে: ১৫ হাজার টাকা।

ভ্রমণ উৎসাহীরা যোগাযোগ করার মোবাইল: 01870732598, অথবা ফেসবুক পেজ Karnafuly Cruise Line

মেয়া/এনএইচ

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়