ঢাকা, মঙ্গলবার, ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ২১ নভেম্বর ২০১৭
Risingbd
সর্বশেষ:

‘কর অঞ্চলে মিলছে মেলার সেবা’

এম এ রহমান : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৭-১১-১৩ ১১:৫১:৩২ এএম     ||     আপডেট: ২০১৭-১১-১৩ ৫:৩৪:০২ পিএম

অর্থনৈতিক প্রতিবেদক : অষ্টম আয়কর মেলা শেষে দেশের ৩১ কর অঞ্চলে শুরু হয়েছে বিকেন্দ্রীকরণ আয়কর মেলা। অর্থাৎ কর অঞ্চলের অফিসগুলোতে মেলার পরিবেশে কর সেবা প্রদান।

কর অফিসগুলোতে নতুন এই সুবিধা পেয়ে খুশি করদাতারা। মেলার মতোই ইটিআইএন রেজিস্ট্রেশন, আয়কর রিটার্ন, হেল্প ডেস্কসহ আয়কর সংশ্লিষ্ট সকল ধরনের সেবা পাওয়া যাচ্ছে কর অঞ্চলগুলোতে।

সোমবার রাজধানীর মতিঝিল এলাকা থেকে আসা অবসরপ্রাপ্ত এক সরকারি কর্মকর্তারা কর অঞ্চল-৫ এ রিটার্ন দাখিল করেছেন। রাইজিংবিডিকে তিনি বলেন, ব্যস্ততার কারণে এবারের আয়কর মেলায় রিটার্ন দাখিল করতে পারিনি। শেষে কর অঞ্চলে রিটার্ন দাখিল করতে এলাম। মেলার সেবা কর অঞ্চলে দেওয়া হবে- এনবিআরের এমন ঘোষণা শুনে আজই চলে এলাম। পরিবেশ ও সেবার মান বেশ ভালোই।

ঢাকার সেগুন বাগিচায় বিভিন্ন কর অঞ্চলের অফিস ঘুরে করদাতাদের সরব উপস্থিতি দেখা গেছে। কর অঞ্চলগুলো নিজ অফিসের ভেতরেই সেবা দেওয়ার ব্যবস্থা করেছে। তবে কোনো কোনো কর অঞ্চল অফিসের সামনে মেলার মতো বুথ তৈরি করে সেবা দেওয়ার ব্যবস্থা করেছে।

এ বিষয়ে কর অঞ্চল-১০ এর কমিশনার অর্পূব কান্তি দাস রাইজিংবিডিকে বলেন, গতকাল থেকে আমার কর সেবা দিচ্ছি। করদাতারা আমাদের অফিসে এসে রিটার্ন জমা দিয়ে যাচ্ছেন। বেশ ভালোই সাড়া পাওয়া যাচ্ছে। তবে আমাদের নিচতলার গেট সংলগ্ন খোলা জায়গায় করদাতাদের জন্য বুথ তৈরির কাজ চলছে। কিছু জটিলতার কারণে গতকাল কাজ শেষ করতে পারিনি।

তিনি বলেন, করদাতাদের সেবা দেওয়ার জন্য আমরা অফিসের সামনে ৩টি হেল্প ডেস্ক, ব্যক্তি শ্রেণির জন্য ৫টি আয়কর রিটার্ন বুথ, ১টি কোম্পানিজ বুথ, নতুন করদাতার জন্য ১টি ইটিআইএন, ১টি অনলাইন রিটার্ন বুথ, ১টি আপ্যায়ন বুথ এবং প্রতিবন্ধী, মুক্তিযোদ্ধা ও সিনিয়র সিটিজেন মিলিয়ে ১টি বুথ রাখা হয়েছে। আশা করছি আজকের মধ্যে কাজ শেষ করে করদাতাদের সেবা দিতে পারব।

চিকিৎসা পেশার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট এমন করদাতা বললেন, আমরা সাধারণত কর অঞ্চলের সেবা নিয়ে শঙ্কায় থাকি। তবে এবারের সেবা পেয়ে আমি এনবিআরের ওপর কৃতজ্ঞ। এ সেবা সারা বছর থাকলে এনবিআর সম্পর্কে মানুষের ধারণা পাল্টে যাবে।

কর অঞ্চলগুলো ঘুরে দেখা গেছে, আয়করের বিভিন্ন স্লোগান ও সেবার বিবরণ সম্বলিত ব্যানার, ফেস্টুন দিয়ে বুথ সাজানো হয়েছে। মেলার মতো এসব বুথে কর্মকর্তা রিটার্ন পূরণ, ই-টিআইন, রিটার্ন গ্রহণসহ অন্যান্য করসেবা দিচ্ছেন। সব ধরনের ফর্ম, আয়কর নির্দেশিকা বিনামূল্যে দেওয়া হচ্ছে।

আগামী ৩০ নভেম্বর জাতীয় আয়কর দিবস। ব্যক্তি শ্রেণির আয়কর রিটার্ন দাখিলের সময় শেষ দিন। রিটার্ন দাখিলসহ করসেবা প্রদানের জন্য এনবিআর সারা দেশে সপ্তাহব্যাপী (১-৭ নভেম্বর) আয়কর মেলার আয়োজন করে।  করদাতাদের সেবা দেওয়ার উদ্দেশ্যে মেলাকে বিকেন্দ্রীকরণের অংশ হিসেবে ১২-৩০ নভেম্বর সকল কর অঞ্চলে করসেবা প্রদানের সিদ্ধান্ত নেয় এনবিআর।

এ বিষয়ে এনবিআর চেয়ারম্যান মো. নজিবুর রহমান বলেন, এনবিআর করদাতাদের অধিকতর করসেবা প্রদানের জন্য উদ্ভাবনী পন্থায় কাজ করছে। এবার আয়কর মেলার আর্কষণ ছিল ইনকাম ট্যাক্স আইডি কার্ড। করদাতারা অন্যান্য সেবা নেওয়ার পাশাপাশি এ কার্ড গ্রহণে ব্যাপক সাড়া দিয়েছেন। মেলার পাশাপাশি কর অঞ্চল থেকে আগামী ২০ থেকে ২৮ নভেম্বর করদাতাদের এ কার্ড প্রদান করা হবে। পর্যায়ক্রমে সারা দেশে এ কার্ড দেওয়া হবে।

তিনি আরো বলেন, আয়কর মেলা বিকেন্দ্রীকরণ করা হয়েছে। করদাতাদের সব ধরনের করসেবা প্রদানের জন্য ১২ নভেম্বর থেকে ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত সকল কর অঞ্চলে মেলার আদলে সেবা দেওয়া হবে। এ ছাড়া ২৪ থেকে ৩০ নভেম্বর আয়কর সপ্তাহ পালন করা হবে।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৩ নভেম্বর ২০১৭/এম এ রহমান/এসএন

Walton
 
   
Marcel