ঢাকা, মঙ্গলবার, ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ২০ নভেম্বর ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

বাচ্চুর হার্টের ৩০ শতাংশ কার্যক্ষমতা ছিল: হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ

হাসান মাহামুদ : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৮-১০-১৮ ১:০৮:৫৪ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-১০-১৮ ৮:২৩:৩৫ পিএম

নিজস্ব প্রতিবেদক : বাংলাদেশের ব্যান্ড সংগীতের অন্যতম অগ্রপথিক, জনপ্রিয় ব্যান্ডদল এলআরবির লিড গিটারিস্ট ও ভোকাল আইয়ুব বাচ্চু দীর্ঘদিন ধরে হৃদযন্ত্রের অসুস্থতায় ভুগছিলেন। তার হার্টের কার্যক্ষমতা ছিল ৩০ শতাংশ।  সর্বশেষ তিনি গত সপ্তাহে স্কয়ার হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন। এর আগে ২০০৯ সালে তিনি হার্টে রিং পরিয়েছিলেন।

আইয়ুব বাচ্চুর মৃত্যু সম্পর্কে স্কয়ার হাসপাতালের মুখপাত্র ডা. মো. নাজিম উদ্দিন বৃহস্পতিবার সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

ডা. মো. নাজিম উদ্দিন বলেন, ‘আইয়ুব বাচ্চুকে অসুস্থ অবস্থায় তার গাড়িচালক সকাল ৯টা ৪০মিনিটে স্কয়ার হাসপাতালে নিয়ে আসেন। তখনই আমরা ধারণা করেছিলাম যে তিনি হয়তো মারা গেছেন। কারণ তখনই তার মুখ দিয়ে লালা বের হচ্ছিল। তবু আমাদের ডাক্তারদের একটি বিশেষজ্ঞ দল তার দেখাশোনা করেন এবং সকাল ৯টা ৫৫ মিনিটে ডাক্তাররা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।’

প্রসঙ্গত, হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে নেওয়ার পথে বৃহস্পতিবার সকালে তিনি মারা যান। ১৯৬২ সালের ১৬ আগস্ট চট্টগ্রামে জন্মগ্রহণ করেন আইয়ুব বাচ্চু। চলো বদলে যাই, ফেরারি মন, এখন অনেক রাত, হকার, আমি বারো মাস তোমায় ভালোবাসি, বাংলাদেশসহ অসংখ্য জনপ্রিয় গানের স্রষ্টা তিনি।

সংগীতজগতে তিনি এবি নামে পরিচিত হলেও তার ডাকনাম ছিল রবিন। এ নামেও তিনি নব্বইয়ের দশকে একক এলবাম বের করেন। তার জীবনাবসানে শোকের ছায়া নেমেছে শোবিজ অঙ্গণে। শোক প্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ বিভিন্ন মাধ্যমেও তার স্মৃতিচারণ করে তাকে শ্রদ্ধা জানাচ্ছেন ভক্ত অনুসারীরা।




রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৮ অক্টোবর ২০১৮/হাসান/সাইফ

Walton Laptop
 
     
Marcel
Walton AC