ঢাকা     শুক্রবার   ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ||  ফাল্গুন ১০ ১৪৩০

সেই সাদিয়ার অপারেশন কাল

দিনাজপুর প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১১:৫৩, ৩০ ডিসেম্বর ২০২২   আপডেট: ১১:৫৫, ৩০ ডিসেম্বর ২০২২
সেই সাদিয়ার অপারেশন কাল

সাদিয়া

‘তবে কি নিভে যাবে সাদিয়ার জীবন প্রদীপ?’ এই শিরোনামে গত ২৬ ডিসেম্বর একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয় পাঠক প্রিয় অনলাইন নিউজ প্রোটাল রাইজিংবিডি ডটকমে। ওই প্রতিবেদনে দিনাজপুরের হিলি চুড়িপট্টির ৫ম শ্রেণির ছাত্রী ১১ বছর বয়সী সাদিয়ার হার্টে তিনটি ছিদ্রের কথা তুলে ধরা হয়। ওই প্রতিবেদনটি দেখার পর শিশু সাদিয়ার অপারেশনে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক হৃদয়বান ব্যক্তি সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন। 

শনিবার (৩১ ডিসেম্বর) ঢাকার গ্রীন লাইফ হাসপাতালে সাদিয়ার হার্টে অপারেশন হবে। ইতোমধ্যে সাদিয়াকে এই হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। 

আরও পড়ুন: তবে কি নিভে যাবে সাদিয়ার জীবন প্রদীপ?

সাদিয়ার বাবা সানাউল ইসলাম পেশায় একজন হোটেল শ্রমিক, আর তার মা সালমা বেগম ছেঁড়া বস্তা সেলাই করেন। কাজ করে যা রোজগার করেন তাই দিয়ে চলে তাদের কষ্টের সংসার। এর মধ্যেই সাদিয়ার হার্টে তিনটি ছিদ্র ধরা পড়ে। ডাক্তার অপারেশনের সময় দেন মাত্র দুই সপ্তাহ। একই সঙ্গে চার লাখ টাকার প্রয়োজন বলেও উল্লেখ করেন। ফলে সাদিয়ার অপারেশনের টাকা জোগাড় নিয়ে বিপাকে পরেন তার বাবা-মা। এমনকি মেয়ের চিকিৎসা ব্যয় মেটাতে গিয়ে ঋণে জর্জরিত হয় পরিবারটি।

সাদিয়ার বাবা সানাউল ইসলাম রাইজিংবিডিকে বলেন, ‘আল্লাহর কাছে লাখকোটি শুকরিয়া। আমার মেয়ের অপারেশন হবে। ডাক্তার দুই সপ্তাহ সময় দিয়েছিলেন। এই সময়ের মধ্যে যদি ওকে অপারেশন করাতে না পারতাল তাহলে মেয়েটি আমার  মারা যেতো।’ 

মার সঙ্গে সাদিয়া

তিনি আরও বলেন, ‘সাংবাদিক ভাইদের জন্য সবকিছু সম্ভব হয়েছে। তারা আমার অসহায় মেয়েকে নিয়ে লেখালিখি করেছেন বলেই একজন হৃদয়বান মানুষ আমার মেয়ের চিকিৎসার দায়িত্ব নিয়েছেন। ধন্যবাদ জানাই রাইজিংবিডিসহ সব গণমাধ্যমকে।’

সানাউল ইসলাম বলেন, ‘দুই সপ্তাহের মধ্যে সাদিয়ার হার্টে অপারেশন করাতে সময় দিয়েছিলেন চিকিৎসকরা। অপরাশেনের জন্য ৪ লাখ টাকা খরচ হতো। আমার পক্ষে এত টাকা জোগাড় করা সম্ভব ছিলো না। নিরুপায় হয়ে তাই মেয়ের চিকিৎসার জন্য বিত্যবানদের কাছে সাহায্য চেয়েছিলাম।’

মোসলেম/ মাসুদ

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়