Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     রোববার   ১১ এপ্রিল ২০২১ ||  চৈত্র ২৮ ১৪২৭ ||  ২৭ শা'বান ১৪৪২

ক্রিকেটার নাসিরের স্ত্রী তামিমার পাসপোর্টে দেওয়া ঠিকানা ভুল!

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ০৬:২৫, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১   আপডেট: ১২:৪৬, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১
ক্রিকেটার নাসিরের স্ত্রী তামিমার পাসপোর্টে দেওয়া ঠিকানা ভুল!

বর্তমান সময়ে মিডিয়া ও সোস্যাল মিডিয়ায় আলোচিত বিষয় ক্রিকেটার নাসির ও তার স্ত্রী তামিমা সুলতানা। আলোচনার মূল বিষয় ক্রিকেট অঙ্গনের নাসির হোসেনের অন্যের স্ত্রীকে বিয়ে করা নিয়ে। বিয়ে করা নাসির হোসেনের স্ত্রী তামিমা সুলতানা (পাসপোর্ট অনুযায়ী) বাবার বাড়ি টাঙ্গাইল সদর উপজেলার লোকেরপাড়া, সিঙ্গুরিয়া উল্লেখ রয়েছে। ভুল তথ্য দিয়ে পাসপোর্ট করেছেন তিনি। তামিমা সুলতানার বাবার বাড়ি টাঙ্গাইলের ঘাটাইল উপজেলার বড় লোকেরপাড়ার তালুকদার বাড়ি এলাকায়। পোস্ট অফিস সিঙ্গুরিয়া। তার ডাক নাম শবনম।

সরেজমিনে তামিমার বাবার তালুকদার বাড়ি এলাকায় গিয়ে জানা যায়, তামিমা সুলতানা ওরফে শবনমের বাবার নাম শহিদুর রহমান স্বপন। মায়ের নাম সুমী আক্তার গিনী। তামিমার ছোট দুই ভাই রয়েছে। তবে তামিমা ছোটকাল থেকেই এলাকায় কম আসতেন। তিনি টাঙ্গাইল শহরের বিন্দুবাসিনী সরকারি বালিকা বিদ্যালয় থেকে এসএসসি ও কুমুদিনী সরকারি কলেজ থেকে এইচএসসি পাস করেন। তামিমার মা সুমি আক্তারও এক সময় জাতীয় পর্যায়ে হকি খেলতেন। তার বাবা ঢাকায় একটি প্রাইভেট কোম্পানিতে চাকরি করতেন। ক্রিকেটার নাসিরের সাথে তামিমার বিয়ে নিয়ে দেশজুড়ে তোলপাড় হলেও এলাকার কেউ তামিমাকে চিনতো না।

জানা গেছে, তামিমা সুলতানা ওরফে শবনম ঢাকা থেকে পাসপোর্ট গ্রহণ করেছেন। ডেপুটি ডিরেক্টর নাদিরা আক্তার স্বাক্ষরিত পাসপোর্টটি ইস্যূ করা হয়।

তামিমার চাচা বিপ্লব তালুকদার (বিপ্লব মাস্টার) বলেন, তামিমার ডাকনাম শবনম। শবনম হিসেবেই তাকে ডাকি আমরা। সে সর্বশেষ সৌদি এয়ারলাইনস চাকরি করছে বিমান বালা হিসেবে। কয়েক বছর আগে রাকিব হাসানের সাথে প্রেম করে বিয়ে হয় তামিমার। কিন্তু পরিবার থেকে বিয়ে মেনে নেয়া হয়নি। তবুও তারা দুইজনে বিয়ে করে সংসার করে। পরে আমরা জানতে পারি রাকিব প্রতারণার আশ্রয় নিয়ে তামিমাকে বিয়ে করে। 

ঢাকায় রাকিব একটি দোকানে কর্মচারী ছিল। তবে বিয়ের আগে তামিমাকে বলেছে দোকানটা রাকিবের। এতে বিয়ের পর থেকেই ঘটনার সত্যতা বেরিয়ে আসে। পরে তামিমার প্রথমে বেসরকারি এয়ারলাইনস ও পরে আরব এয়ারলাইনস এ চাকরি হয়। এর মধ্যেই তাদের ঘরে একটি কন্যা শিশু জন্মগ্রহণ করে। শিশুটির নাম তুবা (৭)। পরে তাদের মধ্যে সংসারে বনিবনা হচ্ছিল না। সর্বশেষ ক্রিকেটার নাসিরের সাথে বিয়ে হয়। এরপর থেকেই টেলিভিশন ও পত্রিকাতে আমরা বিভিন্ন খবর দেখতে পাচ্ছি। অনেকেই আরো বেশি ভুল তথ্য দিয়ে মিথ্যা গুজব ছড়াচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, পারিবারিকভাবেই আমরা জানি তামিমা রাকিবকে তালাক দিয়েছে। তালাক নামা তার স্বামীর ঠিকানায় পাঠিয়েছে ঠিকই হয়তো তার স্বামী সেটা স্বাক্ষর করেনি।

তামিমার পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, তামিমা এসএসসি ও এইচএসসি টাঙ্গাইলে শেষ করে ঢাকায় অনার্স করেছে। টাঙ্গাইলের কুমুদিনী মহিলা কলেজে এইচএসসি পরীক্ষা দেয়ার আগে তার এয়ারলাইনস এ চাকরি হয়। এরপর থেকে ঢাকায় বসবাস শুরু করে সে। তামিমার বাবা ঢাকায় একটি প্রাইভেট কোম্পানিতে চাকরির আগে প্রবাসেও ছিল কয়েক বছর। যে পাসপোর্ট দেখানো হয়েছে সেটা ২০১৮ সালের রি-ইস্যূ করা পাসপোর্ট। রিনিউ (রি ইস্যু) করা পাসপোর্টেতো কিছুই পরিবর্তন না হওয়ার কারণে তার পাসপোর্টে স্বামীর নাম রয়ে গেছে।

এর আগে তামিমা আমেরিকায় ফ্লাইট করার সুবাদে সেখানকার ৫ বছরের একটা ভিসা লাগায় সেটার মেয়াদ শেষ না হওয়ায় পাসপোর্ট পরিবর্তন করতে পারবে না। যে কারণে পাসপোর্টটা রিনিউ বা রি-ইস্যূ করতে হয়েছে ২০১৮ সালে। সেই কারণে তার স্বামীর নাম রাকিব রয়ে গেছে। আর আমেরিকার ভিসাটার মেয়াদ রয়েছে ২০২১ সাল পর্যন্ত। ২১ সালের পর নতুন স্বামী নাসির হোসেনের নাম বা বাবার নামে পাসপোর্ট করতে পারে সে (তামিমা)। এর আগে ২০১৬ সালে রাকিবকে তামিমা তালাক দিয়েছে। তালাকের প্রমাণপত্র রয়েছে তার পরিবারের কাছে। তারপরও তাকে হেনস্তা করা হচ্ছে।

গত ২০১৯ সালে প্রাক্তন স্বামী রাকিব ছোট মেয়েটাকে খাওয়ার কথা বলে নিয়ে গেছে। এই ঘটনায় তার বিরুদ্ধে থানায় সাধারণ ডায়রিও করা হয়েছিল।

ঘাটাইলের লোকেরপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. আকরাম হোসেন খান বলেন, ক্রিকেটার নাসির হোসেনের সাথে যে মেয়েটার বিয়ে হয়েছে সেটা আমাদের এলাকার স্বপন ওরফে শহিদুর রহমানের মেয়ে। এরআগেও বিয়ে হয়েছিল।

জেলার বিশেষ শাখা (ডিএসবি) ডিআইও-১ মো. হারেচ আলী মিয়া বলেন, পাসপোর্টটির ভেরিফিকেশন টাঙ্গাইলে করা হয়েছে কিনা এ বিষয়ে আমাদের কাছে কোন তথ্য নেই।

কাওছার/আমিনুল

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়