Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     বৃহস্পতিবার   ০২ ডিসেম্বর ২০২১ ||  অগ্রহায়ণ ১৮ ১৪২৮ ||  ২৫ রবিউস সানি ১৪৪৩

পীরগাছার আট ইউনিয়নে জমে উঠেছে প্রচারণা

রংপুর প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১২:১৯, ২২ অক্টোবর ২০২১   আপডেট: ১৩:২৪, ২২ অক্টোবর ২০২১
পীরগাছার আট ইউনিয়নে জমে উঠেছে প্রচারণা

দ্বিতীয় ধাপে আগামী ১১ নভেম্বর অনুষ্ঠেয় ইউপি নির্বাচনকে সামনে রেখে রংপুরের পীরগাছা উপজেলার আট ইউনিয়নে প্রতীক বরাদ্দের আগেই জমে উঠেছে নির্বাচনী প্রচারনা। নিজের পছন্দের প্রতীক মন মতো বেঁছে নিয়ে প্রার্থীরা ছুটে বেড়াচ্ছেন ভোটারদের দ্বারে দ্বারে। 

বিএনপির প্রার্থী ছাড়া উপজেলার অধিকাংশ ইউনিয়নে সরকার দলীয় প্রার্থীর প্রাতিদ্বন্দী দলের বিদ্রোহীরা। নৌকার প্রার্থীরা নির্বাচনী সভা করে সরকারের ধারাবাহিক উন্নয়নের কথা তুলে ধরছেন ভোটারদের কাছে। আর বিদ্রোহী ও স্বতন্ত্র প্রার্থীরা দাবি করেছেন নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠু নির্বাচন আয়োজনের জন্য।

বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) রাতে উপজেলার দেউতি স্কুল এন্ড কলেজ মাঠে দলীয় মনোনয়ন পাওয়া পারুল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের নেতা তোফাজ্জল হোসেনকে নির্বাচনী সভা করতে দেখা গেছে। সেখানে তিনি ভোটারদের কাছে নিজের নির্বাচনী প্রতিশ্রুতির নানা দিক তুলে ধরেছেন।

পারুল ইউনিয়নের মতো কর্মীসভা, বর্ধিত সভা ও উঠান বৈঠকসহ মোটরসাইকেল শোভাযাত্রা করে ভোটের মাঠে দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন উপজেলার অন্য আট ইউনিয়নের নৌকার  প্রার্থীরা। 

এদিকে উপজেলা সবকটি ইউনিয়নেই দলীয় পদ হারানোর তোয়াক্কা না করেই ভোটের মাঠে নিজেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী ঘোষণা করেছেন অনেক মনোনয়ন বঞ্চিতরা। ভোটারদের দ্বারে দ্বারে ভোট চেয়ে নিজেকে যোগ্য প্রার্থী হিসেবে তুলে ধরছেন তারা।

আর প্রতীক বরাদ্দের আগেই প্রার্থীদের মাঠে সরগরম দেখে গ্রাম গঞ্জের হাটে বাজারে ও চায়ের দোকানে জমে উঠেছে নির্বাচনী আলাপ-আলোচনা।

মনোনয়ন বঞ্চিত এক প্রার্থী বর্তমান পারুল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ খাঁন। যিনি উপজেলা আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী হয়ে গত ইউপি নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করে নির্বাচিত হয়েছিলেন। উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য হয়েও দলীয় নির্দেশ অমান্য করে নিজেকে আনারস প্রতীকের প্রার্থী ঘোষণা করে প্রাচার চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি।

আবুল কালাম বলেন, ‘দল কি করবে সেটি দলের ব্যাপার। ইউনিয়নে আমার অনেক জনপ্রিয়তা আছে তাই আমি স্বতন্ত্র হিসেবে আনারস প্রতীকে ভোট চাচ্ছি।'

অন্যদিকে জাসদ নেতা ও পারুল ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ছোট কালাম হিসেবে পরিচিত আরেক স্বতন্ত্র প্রার্থী আবুল কালাম আজাদ। তিনি স্থানীয় সাংসদের প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলেন, আমাদের এই আসনের সাংসদ বাণিজ্যমন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা টিপু মুনশি এমপি একজন ভালো মানুষ। মন্ত্রীর সততার প্রতি সকলের বিশ্বাস আছে যে, তার আসনের নির্বাচন সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হবে। আর সুষ্ঠু নির্বাচন হলে বিপুল ভোটে নির্বাচিত হওয়ার স্বপ্নের কথা জানালেন তিনি।

আবুল কালামের মতো সব ইউনিয়নে দলের বিদ্রোহী ব্যতীত স্বতন্ত্র প্রার্থীরা অবশ্য ভোটের মাঠে সরব না হয়ে নিরবে ভোটারদের দ্বারে দ্বারে ভোট চেয়ে বেড়াচ্ছেন।

পীরগাছা উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা শোয়েব সিদ্দিকী বলেন, উপজেলার ৮ ইউনিয়ন থেকে চেয়ারম্যান পদে ৫০ জন, সংরক্ষিত সদস্য পদে ১২৭ ও সাধারণ সদস্য পদে ৩৪৯ জন মনোনয়নপত্র জমা দেন। 

নির্বাচন কমিশনের ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন ২৬ অক্টোবর। প্রতিক বরাদ্দ ২৭ অক্টোবর আর ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে ১১ নভেম্বর।

আমিরুল/মাসুদ

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়