ঢাকা     বুধবার   ২৬ জানুয়ারি ২০২২ ||  মাঘ ১২ ১৪২৮ ||  ২২ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

৮৪ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ জিএসসিবিডির বিরুদ্ধে

বাগেরহাট প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৯:০৩, ৮ নভেম্বর ২০২১  
৮৪ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ জিএসসিবিডির বিরুদ্ধে

মুনাফার লোভ দেখিয়ে আড়াই মাসে বাগেরহাটের বেকার যুবকদের কাছ থেকে ৮৪ লক্ষাধিক টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে ই-কমার্স (অর্থলগ্নীকারী) প্রতিষ্ঠান গ্লোবাল সোস্যাল চেইন বিডির (জিএসসিবিডি) বিরুদ্ধে। প্রতারকদের বিচার ও টাকা ফেরতের দাবিতে পুলিশ সুপার বরাবর অভিযোগ করেছেন চিতলমারী এলাকার ভুক্তভোগী সাজিত শেখ। 

তদন্ত করে আইনগত সহায়তা দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. আসাদুজ্জামান।

পুলিশে করা অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, খুলনার পাইকগাছা উপজেলার সোলাদানা থানার মো. রাশেদ আলী সরদারের ছেলে মো. শামীম হোসেন ও তার বন্ধু মো. মাসুম বিল্লাহ জিএসসিবিডি নামে ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান শুরু করেন। তাদের কোম্পানির কাজের পদ্ধতি ছিল আইডিভিত্তিক। জিএসসিবিডিতে ১২০০ টাকা দিয়ে আইডি কিনলে ১০ মাসে ৩ হাজার টাকা দেওয়ার আশ্বাস দেয় তারা। কেউ ইচ্ছে করলে আনলিমিটেড আইডি করতে পারবেন। ১৮ আগস্ট থেকে ১৫ অক্টোবর পর্যন্ত বাগেরহাটের ৩০০ মানুষের কাছে ৭ হাজার আইডি বিক্রি করে কোম্পানিটি। যা থেকে অন্তত ৮৪ লাখ টাকা আয় হয় তাদের। শুরুতে কিছু দিন টাকা দিলেও গত দেড় মাস ধরে গ্রাহকদের টাকা দেওয়া বন্ধ রয়েছে। 

প্রতারণার শিকার সাজিত শেখ বলেন, ‘আমি কয়েকধাপে ওই কোম্পানিতে ৩ লাখ ৬০ হাজার টাকা বিনিয়োগ করেছি। প্রথম কিছু দিনে ৭০ হাজার টাকা দিলেও পরে আর দেয়নি। এখন প্রতিষ্ঠানের লোক আমার সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ করে দিয়েছে। আমি আমার টাকা ফেরত চাই।’ 

শুধু আশরাফুল নয়, মাত্র আড়াই মাসে বাগেরহাটের অন্তত ৩ শতাধিক লোকের কাছ থেকে ৮৪ লাখ টাকা নিলেও এর ১০ শতাংশও ফেরত দেয়নি বলে অভিযোগ করেন ভুক্তভোগীরা। আর এখন কোনো গ্রাহক প্রতিষ্ঠানের কারও সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারছে না।

বিনিয়োগকারী রামপাল উপজেলা সদরের ফকির মিন্টু আলী বলেন, ‘সরল বিশ্বাসে কোম্পানিতে বিনিয়োগ করেছিলাম। প্রথম এক মাস ভালোভাবে লেনদেন করেছিল কোস্পানি। কিন্তু একমাস পর থেকে সফটওয়ার আপডেট কেন্দ্রিক বিভিন্ন জটিলতার কথা বলে পেমেন্ট বন্ধ করে দেয়। হঠাৎ করে দেখি ওয়েবসাইট ও এ্যাপসে প্রবেশ করা যাচ্ছে না। শুধু নিজের টাকা নয়, আমার কথায় বিশ্বাস করে অনেকেই বিনিয়োগ করেছেন কোম্পানিতে। আমরা তো পথে বসে গেলাম।’ 

বাগেরহাট সদর উপজেলার মূলঘর এলাকার মেহেদী হাসান পারভেজ বলেন, ‘হঠাৎ করে কোম্পানির কার্যক্রম বন্ধ হওয়ায় ১০-১২ জন গ্রাহক নিয়ে কোম্পানির মালিক পাইকগাছার মো. শামীম হোসেনের বাড়িতে যাই। সেখানে শামীমের সঙ্গে কোম্পানির কর্মকর্তা আশরাফুল ও মাসুমকেও দেখতে পাই। আমরা গেলে স্থানীয় ইউপি সদস্য আবুবকরসহ অনেক লোক জড়ো হয়। স্থানীয়দের সামনে শামীমসহ অন্যরা টাকা নেওয়ার কথা স্বীকার করেন। কিন্তু টাকা ফেরত দিতে পারবে না বলে জানিয়ে দেয়। টাকা চাইলে আমাদের দেখে নেওয়ারও হুমকি দেন শামীম।’

বাগেরহাটের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. আসাদুজ্জামান জানান, ‘জিএসসিবিডি কোম্পানির নামে অর্থ আত্মসাথের ঘটনায় লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। অভিযোগটি সংশ্লিষ্ট থানায় পাঠিয়েছি। তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’ 
 

টুটুল/বকুল 

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়