ঢাকা     বুধবার   ০১ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ||  মাঘ ১৯ ১৪২৯

কুয়াশার চাদরে ১০১ একরে শীতের মুগ্ধতা

মো. নিয়াজ উদ্দিন || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২২:৩৭, ২৩ জানুয়ারি ২০২৩   আপডেট: ২২:৩৮, ২৩ জানুয়ারি ২০২৩
কুয়াশার চাদরে ১০১ একরে শীতের মুগ্ধতা

প্রকৃতির চিরন্তন নিয়মে শীত আসে ঘন কুয়াশার চাদর মুড়ি দিয়ে। শীতের সকালে কুয়াশাচ্ছন্ন চারদিক প্রতিদিন মনে করিয়ে দেয় ষড়ঋতু দেশে এখন শীতকাল চলছে। নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ১০১ একর জুড়ে শীতকালের অপরূপ সৌন্দর্য বিরাজমান। 

মনে হয় যেন উপকূলীয় অক্সফোর্ডের দিগন্ত জুড়ে সাদা শাড়ি পরে কে যেন প্রকৃতিকে কুয়াশার আড়ালে ঢেকে রেখেছে। সকালের কুয়াশা মাখানো রাস্তায় হেডলাইট জ্বালিয়ে চলে গাড়ি। ঘন কুয়াশার চাদরে ঢেকে যায় ক্যাম্পাস। যা পথচারীদের অনাবিল মানসিক প্রশান্তি ও মুগ্ধতা। কুয়াশার ভিড়ে হারিয়ে যেতে ইচ্ছে করে নিরুদ্দেশ পথে। কুয়াশা ভরা ক্যাম্পাসে হাঁটার যেন এক অসাধারণ হিম অনুভূতি। ধূসর কুয়াশায় আধভেজা ঘাসে ভিজে যায় পা, লাল লাল পলাশ ভেঙে যায় কুয়াশার ক্ষীণ বিশ্বাস, অহেতুক বেরিয়ে আসে দীর্ঘশ্বাস।

ক্যাম্পাসে শীতের সকালে প্রকৃতির সৌন্দর্য উপভোগ করার জন্য ছাত্রছাত্রীদের মাঝেও আমেজ বিরাজ করে। কেউবা শীতের সকালে চাদর জড়িয়ে ক্যাম্পাসের শান্তিনিকেতনের টংয়ে বসে চয়ের চুমুক দিয়ে শীতের সকালের সৌন্দর্য উপভোগ করে। শীতের সকালের মিষ্টি রোদের অপেক্ষায় আচ্ছন্ন থাকে অনেকে। কেউবা শীতের কুয়াশায় হাঁটতে বের হয়, প্রকৃতির সৌন্দর্য উপভোগ করে।

নোবিপ্রবির কৃষি বিভাগের শিক্ষার্থী সাকিব আল হাসান বলেন, ‘শীতের কুয়াশা ভেজা সকালে ক্যাম্পাস ভ্রমণ খুব উপভোগ করি আমি। শীতের সকালের প্রকৃতির মনোমুগ্ধকর দৃশ্য আমায় বিমোহিত করে। কুয়াশায় ছেয়ে থাকে শীতের সকাল, প্রথম রোদের ছোঁয়ায়, ভালোবাসায় মন রাঙায়।’

লেখক: শিক্ষার্থী, নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়।

/ফিরোজ/

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়