ঢাকা     শুক্রবার   ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ||  ফাল্গুন ১১ ১৪৩০

আসছে স্মৃতি রোমন্থনের দিন

গবি সংবাদদাতা || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২১:৫২, ৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩  
আসছে স্মৃতি রোমন্থনের দিন

‘তাই আজি শুধাই তোমারে,
কেন এ আনন্দ চারিধারে!
বুঝেছি গো বুঝেছি গো, এতদিন পরে বুঝি
ফিরে পেলে হারানো সন্তান।’ 

কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের কবিতার পংক্তিমালার মতোই পুনরায় নিজেদের মাঝে নিজেদের খুঁজে নিতে প্রতিষ্ঠার প্রায় ২৫ বছরে প্রথমবারের মতো পুনর্মিলনীর আয়োজন করছে গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের (গবি) ফার্মেসি বিভাগ। 

আগামী ১৭ ফেব্রুয়ারি (শুক্রবার) অনুষ্ঠিতব্য ফার্মেসি বিভাগের সাবেক ও বর্তমান প্রায় ৬০০ শিক্ষার্থীদের এই পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানের মাধ্যমে সকলের মধ্যে যোগাযোগ বৃদ্ধি করাই মূল উদ্দেশ্য। এছাড়াও করোনার সময় থেকে বন্ধ থাকা বিভাগীয় অ্যালামনাই কমিটি পূর্ণাঙ্গ করার কথাও রয়েছে। 

ফার্মেসি বিভাগে সদ্য ভর্তি হওয়া ৪৪তম ব্যাচের শিক্ষার্থী মো. আরিফুল ইসলাম আরিফ বলেন, আমি ফার্মেসি পরিবারের সর্বকনিষ্ঠ সদস্য হলেও পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে ১ম ব্যাচ থেকে ৪৪তম ব্যাচের সকল শিক্ষার্থীরা উপস্থিত থাকছে জেনেই আমি খুবই উৎফুল্ল। সেখানে আমরা সবার সঙ্গে কুশল বিনিময়ের মাধ্যমে পরিচিত হওয়ার সুযোগ পাবো। বড় ভাইয়া এবং আপুদের সঙ্গে পরিচিত হওয়ার পাশাপাশি আমরা তাদের কাছ থেকে অনেক কিছু শিখতে পারবো বলেও আশাবাদী।

বিভাগটির ২৭তম ব্যাচের শিক্ষার্থী আশরাফুল কুদ্দুস জিমি বলেন, আমি ২০১৮ সালে ক্যাম্পাস থেকে বের হয়ে গিয়েছি। অনেকদিন পর বন্ধুদের সঙ্গে দেখা হবে, এটা অনেক আনন্দের এবং আবেগ-উচ্ছ্বাসের। অনেক পুরোনো বন্ধুবান্ধবের সঙ্গে কেবল এই অনুষ্ঠানের মাধ্যমেই দেখা হবে। স্মৃতিকাতর এই দিনটি আমাদের জীবনে স্মরণীয় হয়ে থাকবে বলে আশা করছি।

বিভাগটির ২৪তম ব্যাচের শিক্ষার্থী ও বর্তমানে প্রভাষক হিসেবে দায়িত্ব পালন করা তানিয়া আহম্মেদ বলেন, গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে ফার্মেসি বিভাগ সবচেয়ে বড় বিভাগ। আমাদের অনেক অ্যালামনাই বাংলাদেশের বিভিন্ন ফার্মাসিউটিক্যালসের অনেক ভালো অবস্থানে আছেন। অনেকে দেশের বাহিরেও আছেন, অনেকে আবার বিভাগেও রয়ে গেছেন শিক্ষক হিসেবে। এ বছরে ফার্মেসি বিভাগ পঁচিশ বছরে পদার্পণ করবে। এ বিষয়টি মাথায় রেখে এই পুনর্মিলনী আয়োজন করা হচ্ছে। আমরা আশা করছি, আমাদের প্রথম ব্যাচ থেকে শুরু করে পঁয়ত্রিশ তম ব্যাচ পর্যন্ত সাবেক শিক্ষার্থীদের মধ্য থেকে সর্বোচ্চ সংখ্যক উপস্থিত থাকবেন এবং দিনটি সুন্দরতম একটি দিনে পরিণত হবে। এছাড়া স্বনামধন্য কোনো ফার্মাসিউটিক্যালসের প্রধান কর্মকর্তাকে নিয়ে আসার ইঙ্গিতও দেন তিনি। 

বর্তমান শিক্ষার্থীদের বিষয় উল্লেখ করে তিনি বলেন, এখানে বর্তমান শিক্ষার্থীরাও থাকবে যাতে করে সাবেক শিক্ষার্থীদের সঙ্গে তাদের সম্পর্ক গভীর হয়। এ প্রোগ্রাম সুন্দরভাবে সফল করার জন্য বিভাগীয় প্রধান, সাবেক শিক্ষার্থীবৃন্দ ও শিক্ষকবৃন্দ নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন।

সার্বিক বিষয়ে বিভাগীয় প্রধান সহকারী অধ্যাপক মো. খালেকুজ্জামান আনন্দ প্রকাশ করে বলেন, গণ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে অনুষ্ঠিতব্য ফার্মেসি বিভাগের পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানটি প্রাক্তন এবং বর্তমান শিক্ষার্থীদের মিলনমেলায় পরিণত হবে। ফার্মেসি পরিবারের সব সদস্য আরও একবার নিজেদেরকে আত্মার বাঁধনে বাঁধার সুযোগ পারে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করছি।

উল্লেখ্য, প্রতিষ্ঠাকাল ১৯৯৮ সাল থেকে ফার্মেসি বিভাগ থেকে এই পর্যন্ত প্রায় দুইশত শিক্ষার্থী স্নাতক পাশ করেছেন এবং দেশ-বিদেশে ওষুধ শিল্পে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখে চলেছেন। বর্তমানে প্রায় চারশত শিক্ষার্থী অধ্যায়নরত রয়েছেন।

সানজিদা জান্নাত/ফিরোজ

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়