ঢাকা     বৃহস্পতিবার   ১৮ এপ্রিল ২০২৪ ||  বৈশাখ ৫ ১৪৩১

জাবিতে স্কাউট সদস্যকে লাঞ্ছিত করায় ভর্তিচ্ছুর পরীক্ষা বাতিল

জাবি সংবাদদাতা || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২০:৫১, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪  
জাবিতে স্কাউট সদস্যকে লাঞ্ছিত করায় ভর্তিচ্ছুর পরীক্ষা বাতিল

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে (জাবি) ২০২৩-২০২৪ শিক্ষাবর্ষে প্রথম বর্ষ স্নাতক (সম্মান) ভর্তি পরীক্ষা চলাকালে এক ভর্তিচ্ছুর বিরুদ্ধে দায়িত্বরত রোভার স্কাউট সদস্যকে শারীরিক লাঞ্ছিত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। পরে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় এক ভর্তিচ্ছুর পরীক্ষা বাতিল করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

রোববার (২৫ ফেব্রুয়ারি) নতুন কলা ভবনে পঞ্চম শিফটের পরীক্ষা চলাকালে ৩টা চল্লিশ থেকে ৪টা ৪০মিনিটে এ ঘটনা ঘটে।

ওই পরীক্ষার্থীর নাম সাজিদ হাসান। তিনি জামালপুর জেলার সদর উপজেলার শাহাপুরের মো. মোকাদ্দেস আলীর পুত্র। তিনি বর্তমানে ঢাকার ধানমন্ডি থানার জিগাতলা কাঁচাবাজারে বাস করছেন।

লিখিত এক স্বীকারোক্তিতে সাজিদ হোসেন বলেন, ‘আমি স্বেচ্ছায়, স্বজ্ঞানে ও অন্যের প্ররোচনা ব্যাতিরেকে এই মর্মে লিখিত বক্তব্য প্রদান করছি যে, আজ জাবির ২০২৩-২০২৪ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষা দিতে এসে দায়িত্বরত রোভার স্কাউট সদস্যের গায়ে হাত তুলেছি। এ অবস্থায় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ কর্তৃক আমার কলা ও মানবিকী অনুষদভুক্ত সি-ইউনিটের (রোল- ৩১০৩৪৫৮) এবং সমাজবিজ্ঞান অনুষদভুক্ত বি-ইউনিটের (রোল- ২১০১৫৮৭) পরীক্ষা বাতিল হওয়ায় আমার কোনো আপত্তি নেই।

এ বিষয়ে ভুক্তভোগী রোভার স্কাউট সদস্য বলেন, দায়িত্ব চলাকালে আমার সঙ্গে যে অন্যায় হয়েছে তার সুষ্ঠু বিচার চেয়েছি। বিচার পেয়ে আমি এখন কিছুটা নির্ভার অনুভব করছি। এতে করে আর কেউ এই দুঃসাহস করবে না। অন্যায়ের শাস্তি দেওয়ার জন্য প্রশাসনকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।

সিনিয়র রোভার মেট ও রোভার ইন কাউন্সিলের সভাপতি ফেরদৌস আল হাসান বলেন, প্রতি বছরের ন্যায় এবারও জাবি রোভার স্কাউট ভর্তি পরীক্ষার শৃঙ্খলা রক্ষার কাজে নিয়োজিত ছিল। আজকে ‘সি’ ইউনিটের পঞ্চম শিফটের পরীক্ষা চলাকালে একজন পরীক্ষার্থী শৃঙ্খলা ভঙ্গ করে ভবনে প্রবেশ করছিল। তখন একজন রোভার সদস্য তাকে বাধা দেন এবং শৃঙ্খলার সঙ্গে ভবনে প্রবেশ করতে বলেন। তখন ওই পরীক্ষার্থী উত্তেজিত হয়ে রোভার সদস্যকে অকথ্য ভাষায় গালি দেন এবং ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেন। এতে রোভার সদস্য আহত হয়।

তিনি বলেন, এ ঘটনার পর বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা ওই পরীক্ষার্থীকে গণপিটুনি দিতে গেলে রোভার সদস্যরাই তাকে উদ্ধার করে পরীক্ষা দেওয়ার ব্যবস্থা করে। পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর বরাবর জাবি রোভার এই ঘটনার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করে। পরে প্রক্টর স্যার তার ‘সি’ এবং ‘বি’ ইউনিটের পরীক্ষা বাতিল করেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর আ স ম ফিরোজ উল হাসান বলেন, অপরাধের শাস্তি হিসেবে তার আজকের ‘সি’ ইউনিট ও ‘বি’ ইউনিটের পরীক্ষা বাতিল করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। যদি সে পরবর্তীতে পরীক্ষা দিতে আসে তাহলে তার বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

/আহসান/মেহেদী/

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়