ঢাকা     বৃহস্পতিবার   ১৩ আগস্ট ২০২০ ||  শ্রাবণ ২৯ ১৪২৭ ||  ২২ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

মুরাদনগরে ওয়ালটনের নতুন সার্ভিস সেন্টার

|| রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ০৪:০৩, ১৬ জুলাই ২০২০  
মুরাদনগরে ওয়ালটনের নতুন সার্ভিস সেন্টার

কুমিল্লার মুরাদনগরে ওয়ালটনের নতুন সার্ভিস সেন্টার উদ্বোধন করছেন কর্মকর্তারা

বিক্রয়োত্তর সেবা অটোমেশনের আওতায় আনার পাশাপাশি গ্রাহক সেবা সহজ করছে দেশের শীর্ষ ব্র্যান্ড ওয়ালটন। এ লক্ষ্যে দেশব্যাপী নতুন নতুন সার্ভিস সেন্টার চালু করছে তারা।

এরই ধারাবাহিকতায় কুমিল্লার মুরাদনগরের নবীনগর রোডে চালু হলো আরেকটি সার্ভিস পয়েন্ট।  ফলে এখন খুব সহজে এবং দ্রুত সময়ের মধ্যে মুরাদনগর এবং পার্শ্ববর্তী এলাকার ওয়ালটন ও মার্সেলের গ্রাহকরা সেবা নিতে পারবেন।  এই নিয়ে সারা দেশে ওয়ালটনের সার্ভিস সেন্টারের সংখ্যা দাঁড়ালো ৭৪টিতে।

উল্লেখ্য, সারা দেশে গ্রাহক সেবা সহজ করতে ডিজিটাল ক্যাম্পেইন সিজন-সেভেন পরিচালনা করছেন ওয়ালটন। ওয়ালটন সার্ভিস ম্যানেজমেন্ট সিস্টেমের মূল লক্ষ্য সর্বোচ্চ গ্রাহক সেবা নিশ্চিত করা। ওয়ালটন সার্ভিস ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম দেশের একমাত্র আইএসও ৯০০১:২০১৫ স্ট্যান্ডার্ড সার্ভিস নেটওয়ার্ক। এর আওতায় শতভাগ পেশাদারি মনোভাব নিয়ে আড়াই হাজারেরও বেশি দক্ষ ও চৌকস প্রকৌশলী এবং সার্ভিস এক্সপার্ট দেশব্যাপী গ্রাহক সেবা দিয়ে যাচ্ছেন।

সার্ভিস সেন্টার উদ্বোধন

মঙ্গলবার (১৪ জুলাই, ২০২০) ওয়ালটন সার্ভিস ম্যানেজমেন্ট সিস্টেমের হেড অব মনিটরিং পলাশ কুমার সাহা নতুন সার্ভিস সেন্টারের উদ্বোধন করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় ব্যবসায়ী সবুর সরকার, জালাল উদ্দিন ও বাবুল সরকার, ওয়ালটনের কুমিল্লা জোনের মনিটরিং অফিসার ইলিয়াস আলী, কমপ্লায়েন্স বিভাগের মাহমুদুর রহমান, মনিটরিং বিভাগের আরশেদ মিয়া, ফ্রিজ টেকনিক্যাল সুপারভাইজার সাইফুল ইসলাম, মুরাদনগর সার্ভিস পয়েন্টের ম্যানেজার নাছির উদ্দিন খান এবং কুমিল্লা সার্ভিস পয়েন্টের ম্যানেজার মোফাচ্ছেল হক।

পলাশ কুমার সাহা বলেন, মুরাদনগর একটি গুরুত্বপূর্ণ উপজেলা। এ অঞ্চলের ওয়ালটন পণ্যের ক্রেতা-বিক্রেতাদের সুবিধার কথা বিবেচনায় নিয়ে এই সার্ভিস সেন্টারটি চালু করা হয়েছে।

কর্মকর্তারা জানান, মুরাদনগরে ওয়ালটন এবং মার্সেল ব্র্যান্ডের পণ্যের চাহিদা তুঙ্গে। ফলে গ্রাহক সেবা দোরগোঁড়ায় পৌঁছে দেওয়ার উদ্দেশ্যে এই সার্ভিস সেন্টারটি চালু করা হয়েছে।  এর ফলে খুব সহজে এবং দ্রুত সময়ের মধ্যে এখানকার গ্রাহকরা প্রত্যাশিত সেবা নিতে পারছেন।

ওয়ালটনের ডিজিটাল ক্যাম্পেইন

বিক্রয়োত্তর সেবা অনলাইনের আওতায় আনছে ওয়ালটন। এজন্য দেশব্যাপী চালানো হচ্ছে ডিজিটাল রেজিস্ট্রেশন ক্যাম্পেইন। এ পদ্ধতিতে ক্রেতার নাম, মোবাইল ফোন নম্বর এবং বিক্রি করা পণ্যের মডেল নম্বরসহ বিস্তারিত তথ্য ওয়ালটনের সার্ভারে সংরক্ষণ করা হচ্ছে। এর ফলে, ওয়ারেন্টি কার্ড হারিয়ে গেলেও দেশের যেকোনো ওয়ালটন সার্ভিস সেন্টার থেকে দ্রুত কাঙ্ক্ষিত সেবা পাবেন গ্রাহক। সার্ভিস সেন্টারের প্রতিনিধিরাও গ্রাহকের ফিডব্যাক জানতে পারছেন।

এখন চলছে ডিজিটাল ক্যাম্পেইনের সিজন-সেভেন। এ কার্যক্রমে ক্রেতাদের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণে উদ্বুদ্ধ করতে মিলিয়নিয়ারসহ নিশ্চিত ক্যাশ ভাউচারের সুযোগ দেওয়া হচ্ছে।

‘আবার হবো মিলিয়নিয়ার’ অফার

ডিজিটাল ক্যাম্পেইন সিজন-৭ এর আওতায় এখন ওয়ালটন ফ্রিজ, ওয়াশিং মেশিন এবং মাইক্রোওয়েভ ওভেন কিনে ক্রেতারা পেতে পারেন এক মিলিয়ন বা ১০ লাখ টাকা। রয়েছে লাখপতি হওয়ার সুযোগসহ কোটি কোটি টাকার নিশ্চিত ক্যাশ ভাউচার।  ইতিমধ্যেই সিজন-সেভেনে ওয়ালটন ফ্রিজ কিনে মিলিয়নিয়ার হয়েছেন গাজীপুরের দর্জি ওয়াজেদ আলী, নওগাঁর গামছা বিক্রেতা সোলায়মান হক, রাঙামাটির মুরগির খামারি চাইথোয়াইঅং মারমা এবং দিনাজপুরের খানসামা উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কার্যালয়ে অফিস সহকারী পদে কর্মরত রণজিত চন্দ্র রায়।

ওয়ালটন এসির বিশেষ অফার

চলমান ক্যাম্পেইনের আওতায় ওয়ালটনের একটি এয়ার কন্ডিশনার কিনে আরেকটি ফ্রি পেতে পারেন ক্রেতারা।  রয়েছে ১০ থেকে ৫০ শতাংশ পর্যন্ত নিশ্চিত মূল্যছাড়। পাশাপাশি গ্রাহকরা পাচ্ছেন ফ্রি ইন্সটলেশন সুবিধা।  এর আগের সিজনগুলোতে ওয়ালটন এসি ক্রেতারা নতুন গাড়ি, নগদ ১ লাখ টাকা, ১২ বছরের বিদ্যুৎ বিল ফ্রিসহ কোটি কোটি টাকার ক্যাশ ভাউচার, মোটরসাইকেল, ফ্রিজ, টিভি, এসিসহ বিভিন্ন ওয়ালটন পণ্য ফ্রি পেয়েছেন।

জানা গেছে, ১, ১.৫ এবং ২ টনের স্প্রিট এসির পাশাপাশি স্কুল-কলেজ, মসজিদ, মাদ্রাসা, হাসপাতাল, হোটেলের মতো মাঝারি স্থাপনার জন্য ৪ ও ৫ টনের ক্যাসেট ও সিলিং টাইপ এসি ব্যাপকভাবে বাজারজাত করছে ওয়ালটন। আর বড় স্থাপনার জন্য ওয়ালটনের রয়েছে ভেরিয়্যাবল রেফ্রিজারেন্ট ফ্লো বা ভিআরএফ এবং চিলার এসি।

ওয়ালটন হোম অ্যাপ্লায়েন্স পণ্য কেনায় ১০% ছাড়

ওয়ালটন মাইক্রোওয়েভ ওভেন কিনে ক্রেতারা হতে পারেন মিলিয়নিয়ার। এছাড়া অনলাইনে ওয়ালটন এয়ার পিউরিফায়ার ও ওয়ালটন ওয়াটার পিউরিফায়ার কেনায় গ্রাহকরা পাচ্ছেন ১০ শতাংশ ছাড়।  রয়েছে কোটি কোটি টাকার নিশ্চিত ক্যাশ ভাউচার। ওয়ালটন এয়ার পিউরিফায়ারে আছে বাতাসকে ৭টি স্তরে বিশুদ্ধকরণের সুব্যবস্থা। জীবাণুমুক্ত এই বিশুদ্ধ বাতাসে পরিবার থাকবে সম্পূর্ণ সুরক্ষিত। যেকোনও সময় অনলাইনে eplaza.waltonbd.com থেকে ওয়ালটন এয়ার  পিউরিফায়ার ও ওয়ালটন ওয়াটার পিউরিফায়ার অর্ডার করে ক্রেতারা পেতে পারেন ওই আকর্ষণীয় ডিসকাউন্ট।

ঘরে বসেই কেক এবং পিৎজাসহ মজার সব আইটেম তৈরিতে ওয়ালটন মাইক্রোওয়েভ ওভেন-এর জুড়ি নেই। ওয়ালটন ওভেন বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী এবং টেম্পারড গ্লাস-ডোর ব্যবহার করায় অনেক বেশি টেকসই।  ডিজিটাল নিয়ন্ত্রণ এবং এলইডি ডিসপ্লে থাকায় এর ব্যবহারও অতি সহজ।

এছাড়া ওয়ালটন ওয়াটার পিউরিফায়ার দিচ্ছে শতভাগ নিরাপদ পানির নিশ্চয়তা। এতে ব্যবহৃত সিরামিক ফিল্টার সব ধরনের ভাইরাস, ব্যাকটেরিয়া ও অন্যান্য মাইক্রো বায়োলজিক্যাল উপাদান দূর করে।  আর জিওলাইট ও সিলিকা জেল পানিতে থাকা কেমিক্যাল শোষণ করে এবং পানির পিএইচ নিয়ন্ত্রণ করে।

 

 

ঢাকা/মাহফুজ/সাইফ

রাইজিংবিডি.কম

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়