Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     বুধবার   ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১ ||  আশ্বিন ৭ ১৪২৮ ||  ১২ সফর ১৪৪৩

প্রণোদনার ঋণ শেয়ারবাজারে: গুজবে আতঙ্কিত না হওয়ার আহ্বান

নাজমুল ইসলাম ফারুক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৩:২৪, ২৮ জুলাই ২০২১   আপডেট: ১৭:০৩, ২৮ জুলাই ২০২১
প্রণোদনার ঋণ শেয়ারবাজারে: গুজবে আতঙ্কিত না হওয়ার আহ্বান

প্রণোদনার প্যাকেজের ঋণ যথাযথভাবে ব্যাংকগুলোকে মনিটরিংয়ের নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। অথচ দুয়েকটি গণমাধ্যমে খবর প্রকাশ হয়েছে প্রণোদনার অর্থ শেয়ারবাজারে বিনিয়োগ করা হচ্ছে। বিষয়টি প্রত্যাখান করে ডিএসইর একজন পরিচালক অভিমত প্রকাশ করেছেন। এরপর থেকে প্রণোদনার অর্থ শেয়ারবাজারে এই গুজব বিনিয়োগকারীদের মধ্যে আতঙ্ক সৃষ্টি করেছে। এ কারণে গত দুই দিন ধরে বাজারে লেনদেনে ও সূচক অনেকটা থমকে গেছে। তবে গুজবে কান দিয়ে আতঙ্কিত না হয়ে বিনিয়োগকারীদের শেয়ারবাজারে স্বাভাবিকভাবে লেনদেন করতে আহ্বান জানিয়েছেন এ খাত সংশ্লিষ্টরা।

জানা গেছে, করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট সংকট মোকাবিলায় সরকার ঘোষিত আর্থিক প্রণোদনা প্যাকেজের আওতায় প্রদত্ত ঋণের যথাযথ ব্যবহার নিশ্চিত করতে গত ২৫ জুলাই কেন্দ্রীয় ব্যাংক থেকে সকল ব্যাংকগুলোকে একটি নির্দেশনায় দেওয়া হয়েছে। 

নির্দেশনায়, প্রণোদনা প্যাকেজের আওতায় সুষ্ঠুভাবে ঋণ কার্যক্রম পরিচালনা করার জন্য ব্যাংকের প্রধান নির্বাহীদের তত্ত্বাবধানে ‘বিশেষ সেল’ গঠন করতে বলা হয়েছে।  একই সঙ্গে প্রণোদনা প্যাকেজ সুষ্ঠুভাবে বাস্তবায়ন নিশ্চিত করতে মনিটরিং জোরদার করার পরামর্শ দিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। প্রণোদনার প্যাকেজের আওতায় প্রদত্ত ঋণ যথাযথ খাতে ব্যবহৃত না হয়ে কিছু কিছু ঋণ অনুৎপাদনশীল খাতে ব্যবহৃত হচ্ছে। এছাড়া ঋণের টাকা ছাড় দিতে কোনো কোনো ব্যাংক সয়মক্ষেপণ করছে বলে অভিযোগ এসেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংকে।  এরপরই এই নির্দেশনা জারি করে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

এদিকে, কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্দেশনা জারির পর দুয়েকটি গণমাধ্যমে প্রণোদনার অর্থ শেয়ারবাজারে বিনিয়োগ হচ্ছে বলে খবর প্রকাশ করে। এ খবর প্রত্যাখান করে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের একজন পরিচালক মতামত লিখে গণমাধ্যমে পাঠান। আর তা গণমাধ্যমগুলো প্রকাশ করে। এরপর প্রণোদনার অর্থ শেয়ারবাজারে বিনিয়োগ হচ্ছে কিনা তা নিয়ে একটি ধুম্রজাল সৃষ্টি হয়। কেউ পক্ষে কেউ বিপক্ষে যুক্তি দিচ্ছে।  আসলে প্রকৃত অর্থে কেন্দ্রীয় ব্যাংক থেকে এমন কোনো বিষয়ে নির্দেশনা বা আলোচনা করেনি। এমনকি প্রণোদনার অর্থ শেয়ারবাজারে বিনিয়োগ হচ্ছে এমন কোনো তথ্যও কেন্দ্রীয় ব্যাংকের কাছে নেই। সুতরাং খবরটি ভিত্তিহীন বলে মনে করছেন এ খাত সংশ্লিষ্টরা।

বিএসইসির কমিশনার ড. শেখ সামসুদ্দিন আহমেদ রাইজিংবিডিকে বলেন, প্রণোদনার ঋণের টাকা শেয়ারবাজারে আসার কোনো খবর আমাদের কাছে নেই। শেয়ারবাজার একটি সংবেদনশীল জায়গা হিসেবে সবাইকে সঠিক তথ্য-উপাত্তের ভিত্তিতে মন্তব্য করার অনুরোধ করেন তিনি।

তিনি বলেন, সবারই নিজস্বভাবে মনিটরিং করা উচিত এবং সেখানে মনোযোগ দেওয়া উচিত। একইসঙ্গে প্রণোদনার ঋণের টাকা শেয়ারবাজারে যাচ্ছে, এ জাতীয় অপ্রয়োজনীয় মন্তব্য করা থেকে বিরত থাকা উচিত। আর এ জাতীয় মন্তব্য নিয়ে বিনিয়োগকারীদের চিন্তিত হওয়ার কিছু নেই বলে জানান তিনি। 

কেন্দ্রীয় ব্যাংক সূত্রে জানা গেছে, প্রণোদনার অর্থ যেন প্রকৃত ক্ষতিগ্রস্তরা পায়।  তাছাড়া এ অর্থ যেন কোনো ধরনের অপব্যবহার না হয় সেজন্য ব্যাংকগুলোকে বিশেষ মনিটরিং করার নির্দেশনা দিয়েছে। এর সঙ্গে শেয়ারবাজারের কোনো যোগসূত্র নেই।  যারা বিষয়টিকে শেয়ারবাজারের সঙ্গে জড়িয়ে ফেলেছে তারা হয়ত নির্দেশনাটি পড়ে দেখেনি। নির্দেশনাটি পড়লেই বুঝা যাবে তাতে শেয়ারবাজারের সঙ্গে কোনো সম্পর্ক নেই।

বাংলাদেশ মার্চেন্ট ব্যাংকার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিএমবিএ) সভাপতি ছায়েদুর রহমান বলেন, প্রণোদনা প্যাকেজের ঋনের অর্থ শেয়ারবাজারে বিনিয়োগের খবর দু-একটি গণমাধ্যমে দেখেছি।  কিন্তু এর কোনো সত্যতা খুজেঁ পাইনি। পরবর্তী সময়ে বাংলাদেশ ব্যাংক কর্তৃপক্ষের সঙ্গে এ বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করেছি। কিন্তু তারা বলেছে খবরটি ভিত্তিহীন।

বাংলাদেশ পুঁজিবাজার বিনিয়োগকারী ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক কাজী আব্দুর রাজ্জাক রাইজিংবিডিকে বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংক শেয়ারবাজারের জন্য সব সময় ইতিবাচক। প্রণোদনার প্যাকেজের অর্থের বিষয়ে যে নির্দেশনা কেন্দ্রীয় ব্যাংক দিয়েছে তা শেয়ারবাজারের সঙ্গে কোনো সম্পর্ক নেই। বিষয়টি গুজব আকারে ছড়িয়ে পড়ায় গত দুইদিন বাজারে নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে। আমরা বিনিয়োগকারীদের আহ্বান করছি, আপনারা আতঙ্কিত হবেন না, কোনো গুজবে কান দেবেন না। গুজবে শেয়ার কেনাবেচা করবেন না। 
 

/এনএফ/এসবি/

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়