ঢাকা     রোববার   ২৭ নভেম্বর ২০২২ ||  অগ্রহায়ণ ১৩ ১৪২৯ ||  ০১ জমাদিউল আউয়াল ১৪১৪

মশিউর সিকিউরিটিজের লঙ্ঘিত আইন সংশোধনের নির্দেশ বিএসইসির

নুরুজ্জামান তানিম || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২০:১০, ২৪ নভেম্বর ২০২২  
মশিউর সিকিউরিটিজের লঙ্ঘিত আইন সংশোধনের নির্দেশ বিএসইসির

দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) সদস্যভুক্ত ব্রোকারেজ হাউজ (ট্রেক নং-১৩৪) বিরুদ্ধে একাধিক সিকিউরিটিজ আইন লঙ্ঘনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। অভিযোগগুলোর মধ্যে- একই ব্যাংক হিসাব ও মোবাইল নাম্বার ব্যবহার করেছে বেশ কিছু বিও হিসাব খোলা, একাধিক গ্রাহক সমন্বিত ব্যাংক হিসাব ব্যবহার করা এবং শেয়ার ক্রয়-বিক্রয় নির্দেশের স্লিপ সংরক্ষণ না করা উল্লেখযোগ্য। এরই ধারাবাহিকতায় ব্রোকারেজ হাউজটিকে লঙ্ঘিত আইন সংশোধন করার নির্দেশ দিয়েছে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)।

সম্প্রতি মশিউর সিকিউরিটিজের ব্যবস্থাপনা পরিচালকের কাছে এ সংক্রান্ত একটি চিঠি দেওয়া হয়েছে বলে বিএসইসি সূত্রে জানা গেছে।

তথ্য মতে, চলতি বছরের মার্চে বিএসইসির নির্দেশনা অনুযায়ী মশিউর সিকিউরিটিজ পরিদর্শনের জন্য একটি কমিটি গঠন করা হয়। গঠিত কমিটি ব্রোকারেজ হাউজটি পরিদর্শন করে বেশ কিছু আইন লঙ্ঘন ও অসঙ্গতি পায়। পরিদর্শনে উঠে আসা নানান অসঙ্গতির তথ্য একটি প্রতিবেদন আকারে বিএসইসিতে জমা দেওয়া হয়েছে। ওই পরিদর্শন প্রতিবেদনের আলোকেই মশিউর সিকিউরিটিজকে লঙ্ঘিত আইন সমন্বয়ের নির্দেশ দিয়েছে বিএসইসি।

পরিদর্শন কমিটির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিএসইসির আদেশে একটি পরিদর্শন কমিটি গঠন করা হয়েছিল। সেই পরিদর্শন কমিটি মশিউর সিকিউরিটিজের হিসাব বই এবং অন্যান্য সংরক্ষিত তথ্য যাচাই বাছাই করে কমিশনে প্রতিবেদন জমা দিয়েছে।

পরিদর্শন কমিটি মশিউর সিকিউরিটিজের যেসব অসঙ্গতি সনাক্ত করেছে তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো- ২০১৯ সালের বিএসইসির নির্দেশনার বিপরীতে ব্রোকারেজ হাউজটিতে অনেকগুলো বিও হিসাবে একই ব্যাংক অ্যাকাউন্ট ও মোবাইল নম্বর বিভিন্ন গ্রাহকের নামে ব্যবহার করা হয়েছে। একইসঙ্গে সিকিউরিটিজ ও এক্সচেঞ্জ কমিশনের স্টক-ডিলার, স্টক-ব্রোকার নীতিমালা অনুযায়ী শেয়ার ক্রয় বা বিক্রয়ের নির্দেশ প্রদান করার স্লিপ সঠিকভাবে সংরক্ষণ করা হয়নি। এছাড়া সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ রুলস এবং বিএসইসির নির্দেশনা অনুযায়ী পূর্বানুমোদন ছাড়াই তিনটির বেশি সমন্বিত গ্রাহক হিসাব (কনসোলিডেটেড কাস্টমার অ্যাকাউন্ট) ব্যবহার করছে।

এদিকে আলোচ্য অসঙ্গতি ও আইন লঙ্ঘনের বিষয়ে মশিউর সিকিউরিটিজ পরিদর্শন কমিটির কাছে একটি ব্যাখ্যা প্রদান করেছে। সেই ব্যাখ্যায় ট্রেকহোল্ডার কোম্পানিটি পরিদর্শন কমিটিতে প্রতিশ্রুতি দিয়েছে যে তারা ভবিষ্যতে এই ধরনের আইন বা নিয়ম লঙ্ঘন করবে না।

ব্রোকারেজ হাউজটি জানিয়েছে যে, তারা বিদ্যমান সিকিউরিটিজ আইন মেনে সমন্বিত গ্রাহক হিসাব সংখ্যা কমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সেই অনুযায়ী কমিশনকে অবহিত করবে বলেও জানিয়েছে। কিন্তু মশিউর সিকিউরিটিজ এখন পর্যন্ত এ বিষয়ে কমিশনে কোনো প্রতিবেদন দাখিল করেনি।

এদিকে বিএসইসির চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে, এ পরিস্থিতিতে মশিউর সিকিউরিটিজকে বিএসইসির আইন যথাযথভাবে মেনে চলার নির্দেশ দেওয়া হচ্ছে। একইসঙ্গে এ চিঠি জারির ১৫ কার্যদিবসের মধ্যে সনাক্ত হওয়া সকল সিকিউরিটিজ আইন লঙ্ঘন ও অসঙ্গতি সংশোধনের বিষয়ে কমিশনে প্রতিবেদন জমা দেওয়ার জন্য নির্দেশ দেওয়া হলো। সেই সঙ্গে প্রতিষ্ঠানটির সকল কার্যক্রমে সতর্কতার সঙ্গে সিকিউরিটিজ সম্পর্কিত বিধি-বিধান ও আইন মেনে চলতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য নির্দেশ দেওয়া হলো

এ বিষয়ে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএসইসির একজন কর্মকর্তা বলেন, ডিএসইর পরিদর্শন কার্যক্রমে মশিউর সিকিউরিটিজের বিভিন্ন অসঙ্গতি উঠে এসেছে। এ বিষয়ে তারা ব্যাখ্যা প্রদান করেছে। একইসঙ্গে সেই ব্যাখ্যায় প্রতিষ্ঠানটি প্রতিশ্রুতি দিয়েছে, ভবিষ্যতে তারা সিকিউরিটিজ যথাযথভাবে পরিপালন করবে। তাই সার্বিক দিক বিবেচনা করে মশিউর সিকিউরিটিজকে সর্তকতার সঙ্গে সিকিউরিটিজ আইন মেনে চলা এবং চিহ্নিত অসঙ্গতিগুলো সংশোধনের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

ঢাকা/এনএইচ

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়