ঢাকা     বৃহস্পতিবার   ২৫ এপ্রিল ২০২৪ ||  বৈশাখ ১২ ১৪৩১

আর্থিক সংকট কাটাতে এবার জিল বাংলার পর্ষদকে তলব

নুরুজ্জামান তানিম || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২০:১৯, ২৮ মার্চ ২০২৩  
আর্থিক সংকট কাটাতে এবার জিল বাংলার পর্ষদকে তলব

পুঁজিবাজারে খাদ্য ও আনুষঙ্গিক খাতে তালিকাভুক্ত রাষ্ট্রায়ত্ত জিল বাংলা সুগার মিলস লিমিটেডের আর্থিক সংকট কাটছেই না। বছরের পর বছর তা পাল্লা দিয়ে বাড়ছেই। এতে বিনিয়োগকারীদের উদ্বেগও বেড়েছে। এমন পরিস্থিতি বিবেচনায় আর্থিক সংকট নিরসনে সামগ্রী নিয়ে কোম্পানিটির পরিচালনা পর্ষদ ও ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে পুঁজিবাজারের নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)।

এরই ধারাবাহিকতায় আগামী বুধবার (২৯ মার্চ) বিএসইসির সঙ্গে কোম্পানিটির পরিচালনা পর্ষদ ও ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের বৈঠক হবে। এতে সভাপতিত্ব করবেন বিএসইসির চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম।

সম্প্রতি জিল বাংলা সুগার মিলস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক বরাবর এ বিষয়ে একটি চিঠি দেওয়া হয়েছে বলে বিএসইসি সূত্রে জানা গেছে।

বিএসইসির চিঠিতে বলা হয়েছে, অপারেটিং পারফরম্যান্সের অবনতির কারণে জিল বাংলা সুগার মিলস লিমিটেডের ব্যাপক পুঞ্জীভূত লোকসানের পাশাপাশি নেতিবাচক ইকুইটিতে আছে, যা বিনিয়োগকারীদের উদ্বেগ ও ক্ষতি বৃদ্ধি করছে। তাই, কোম্পানিকে আগামী ২৯ মার্চ বেলা সাড়ে ১২টায় আগারগাঁওয়ে সিকিউরিটিজ কমিশন ভবনের সভা কক্ষে বৈঠক হবে। বৈঠকে সকলকে উপস্থিত থাকার নির্দেশ দেওয়া হলো। সভায় বিএসইসি চেয়ারম্যান সভাপতিত্ব করবেন।

সভায় কোম্পানির পরিচালনা পর্ষদের সদস্যদের সঙ্গে ব্যবস্থাপনা পরিচালক, প্রধান অর্থ কর্মকর্তা (সিএফও) এবং কোম্পানি সচিবকে সভায় অংশ নেওয়ার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এদিকে, একই দিন সকাল সাড়ে ১১টায় শ্যামপুর সুগার মিলসের পরিচালনা পর্ষদের সদস্যদের সঙ্গে ব্যবস্থাপনা পরিচালক, প্রধান অর্থ কর্মকর্তা (সিএফও) এবং কোম্পানি সচিবের সঙ্গে বৈঠক করবে বিএসইসি। সভায় একইভাবে বিএসইসির চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল- ইসলাম সভাপতিত্ব করবেন।

২০২২ সালের ৩০ জুন সমাপ্ত হিসাব বছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে কোম্পানিটি শেয়ারহোল্ডারদের জন্য কোনো লভ্যাংশ ঘোষণা করেনি। আলোচ্য হিসাব বছরে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি লোকসান হয়েছে ৮৮.২৭ টাকা। আগের হিসাব বছরে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি লোকসান ছিল ১১৫.৯৭ টাকা।

এদিকে, জিল বাংলা সুগার মিলস লিমিটেডের গত ২০২২ সালের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত সমাপ্ত দ্বিতীয় প্রান্তিকে (অক্টোবর-ডিসেম্বর, ২২) শেয়ারপ্রতি লোকসান হয়েছে ১২.২০ টাকা। গত হিসাব বছরের একই সময়ে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি লোকসান ছিল ১৭.১২ টাকা। এছাড়া, আলোচ্য হিসাব বছরের প্রথম দুই প্রান্তিকে (জুলাই-ডিসেম্বর, ২২) কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি লোকসান হয়েছে ৩২.৪৮ টাকা। আগের হিসাব বছরের একই সময়ে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি লোকসান ছিল ৩৭.০৯ টাকা। ২০২২ সালের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত সময়ে কোম্পানিটির ঋণাত্মক শেয়ারপ্রতি নিট সম্পদ মূল্য দাঁড়িয়েছে (৯৩৭.২০) টাকা।

প্রসঙ্গত, ১৯৮৮ সালে পুঁজিবাজার তালিকাভুক্ত হয় জিল বাংলা সুগার মিলস লিমিটেড। ‘জেড’ ক্যাটাগরির এ কোম্পানিটির অনুমোদিত মূলধন ৫০ কোটি টাকা। পরিশোধিত মূলধন ৬ কোটি টাকা। সে হিসেবে কোম্পানিটির মোট শেয়ার সংখ্যা ৬০ লাখ। এর মধ্যে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ওয়েবসাইটে প্রকাশিত সর্বশেষ হিসাব অনুযায়ী, সরকারের হাতে ৫১ শতাংশ, প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের হাতে ১২.৭৬ শতাংশ এবং সাধারণ বিনিয়োগকারীদের হাতে ৩৬.২৪ শতাংশ শেয়ার আছে।

এনটি/রফিক

সম্পর্কিত বিষয়:

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়