ঢাকা     বৃহস্পতিবার   ২৫ এপ্রিল ২০২৪ ||  বৈশাখ ১২ ১৪৩১

কৃষিবিদ ফিডের লভ্যাংশ বিতরণে অনিয়ম, ব্যাখ্যা চায় বিএসইসি

নুরুজ্জামান তানিম || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২০:৪২, ২৪ মে ২০২৩  
কৃষিবিদ ফিডের লভ্যাংশ বিতরণে অনিয়ম, ব্যাখ্যা চায় বিএসইসি

দেশের পুঁজিবাজারে স্বল্প মূলধনী মার্কেটে (এসএমই প্লাটফর্ম) বিবিধ খাতে তালিকাভুক্ত কোম্পানি কৃষিবিদ ফিড লিমিটেড ২০২১ সালের ৩০ জুন সমাপ্ত হিসাব বছরে শেয়ারহোল্ডারদের ১০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দেওয়ার ঘোষণা দেয়। কিন্তু কোম্পানিটি লভ্যাংশ ঘোষণা ও বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) অনুষ্ঠিত হওয়ার ৮ মাস পেরিয়ে গেলেও এখনও সেই লভ্যাংশ বিতরণ করা সম্পন্ন হয়নি বলে অভিযোগ উঠেছে।

সম্প্রতি অধ্যাপক ড. মো. ইসমাইল হোসেন নামের এক জন শেয়ারহোল্ডার এ অভিযোগ তুলেছেন। তবে শেয়ারহোল্ডারদের জন্য ঘোষণাকৃত নগদ লভ্যাংশ বিতরণ করা সম্পন্ন করেছে বলে ইতোমধ্যে কোম্পানিটি ডিএসই’র ওয়েবসাইটে তথ্য প্রকাশ করেছে।

তাই লভ্যাংশ বিতরণ সম্পন্ন হয়েছে বলে ঘোষণা দেওয়ার পর কেন সংশ্লিষ্ট শেয়ারহোল্ডার এখনও লভ্যাংশ পায়নি তা কৃষিবিদ ফিড লিমিটেডের কাছে জানতে চেয়েছে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)।

সম্প্রতি এ বিষয়ে জানতে চেয়ে কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক বরাবর কমিশন চিঠি পাঠিয়েছে বলে কমিশন সূত্রে জানা গেছে।

বিএসইসির চিঠিতে ইসমাইল হোসেনের অভিযোগের বিষয়টি উল্লেখ করে বলা হয়েছে, ২০২১ সালের ৩০ জুন সমাপ্ত হিসাব বছরে নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে শেয়ারহোল্ডারদের জন্য কোম্পানি গত বছরের ২৩ মে ১০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করে। যার রেকর্ড ডেট ছিল ৯ জুন এবং এজিম অনুষ্ঠিত হয় ৩০ জুন। সে সময় কোম্পানিটির শেয়ারহোল্ডার ইসমাইল হোসেনের বিও হিসাবে ৪ লাখ ৫১ হাজার ১০০টি শেয়ার ছিল। ফলে তিনি ৪ লাখ ৫১ হাজার ১০০ টাকা নগদ লভ্যাংশ পাওয়ার কথা। কিন্তু এজিএমের আট মাস পেরিয়ে গেলেও তিনি কোনও নগদ লভ্যাংশ পাননি বলে অভিযোগ করেছেন।

চিঠিতে আরও উল্লেখ করা হয়েছে, এদিকে কোম্পানিটি গত বছর সেপ্টেম্বরের ৫ তারিখ ডিএসইর মাধ্যমে জানায় যে তারা লভ্যাংশ বিতরণ সম্পন্ন করেছে। সে হিসাবে এজিএম অনুষ্ঠিত হওয়ার ২ মাসের মধ্যে কোম্পানি লভ্যাংশ বিতরণ সম্পন্নের বিষয়ে জানালেও আট মাসেও‌ সেই টাকা পাননি শেয়ারহোল্ডার ইসমাইল হোসেন। তাই এ বিষয়ে কোম্পানিকে সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ অর্ডিন্যান্স, ১৯৬৯ এর ধারা ১১(২) এর অধীনে এই চিঠি জারির তিন কার্যদিবসের মধ্যে কমিশনের কাছে প্রাসঙ্গিক নথিপত্রসহ বিস্তারিতভাবে অবস্থান ব্যাখ্যা করার নির্দেশ দেওয়া হলো।

তথ্য মতে, কোম্পানিটি ৩০ জুন ২০২২ সমাপ্ত হিসাব বছরেও ১০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। আলোচ্য সময়ে কোম্পানির শেয়ার প্রতি মুনাফা (ইপিএস) হয়েছে ১.০১ টাকা। আর শেয়ারপ্রতি নিট সম্পদমূল্য (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ১৪.৬৪ টাকা।

প্রসঙ্গত, কৃষিবিদ ফিড লিমিটেড ২০২১ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়। কোম্পানিটির অনুমোদিত মূলধন ৭৫ কোটি টাকা এবং ৪৯ কোটি ৫০ লাখ টাকা পরিশোধিত মূলধনের এ কোম্পানির মোট শেয়ার সংখ্যা ৪ কোটি ৯৫ লাখ। এর মধ্যে উদ্যোক্তা পরিচালকদের কাছে ৩৪.৬১ শতাংশ, প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে ১০.১৫.৪৪ শতাংশ ও সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে ৫৫.২৪ শতাংশ শেয়ার আছে। বুধবার (২৪ মে) কোম্পানিটির শেয়ার সর্বশেষ ১৭.৩০ টাকায় লেনদেন হয়েছে।

ঢাকা/এনএইচ

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়