Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     মঙ্গলবার   ২৬ অক্টোবর ২০২১ ||  কার্তিক ১০ ১৪২৮ ||  ১৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

ওটিসির ৪১ কোম্পানি স্থানান্তর, ২৯ কোম্পানি ফেরত দেবে বিনিয়োগ

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ০৭:৪২, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১   আপডেট: ০৮:০২, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১
ওটিসির ৪১ কোম্পানি স্থানান্তর, ২৯ কোম্পানি ফেরত দেবে বিনিয়োগ

পুঁজিবাজারের ওভার দ্যা কাউন্টার (ওটিসি) মার্কেটের ৪১টি কোম্পানিকে স্মল ক্যাপিটাল প্লাটফর্মে ও অল্টারনেটিভ ট্রেডিং বোর্ডে (এটিবি) স্থানান্তর করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। এছাড়া ২৯টি কোম্পানি সাধারণ শেয়ারহোল্ডারদের বিনিয়োগ ফেরত দেবে বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছে কমিশন। এর মাধ্যমে এক যুগ আগে প্রতিষ্ঠিত ওটিসি মার্কেট বিলুপ্ত হতে যাচ্ছে।

এ সম্পর্কে বিএসইসির কমিশনার অধ্যাপক ড. শেখ সামসুদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘ওটিসি মার্কেট বলে কিছু থাকবে না। এ মার্কেটে তালিকাভুক্ত একটি বড় অংশকে বাজার থেকে অপসারণ করা হয়েছে। যেগুলোকে বোঝা হিসেবে বয়ে বেড়াতে চায় না কমিশন। তাছাড়া অন্য কোম্পানিগুলোকে স্থানান্তর করা হয়েছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আগামি ১ মাসের মধ্যে এসএমই ও এটিবিতে স্থানান্তর করা কোম্পানিগুলোর শেয়ার অনলাইন করার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। একইসঙ্গে এই সময়ের মধ্যে উভয় বোর্ডকে লেনদেন উপযোগী করার জন্য বলা হয়েছে। যাতে করে কোম্পানিগুলোর লেনদেন শুরু করতে পারে। এটা নিশ্চয় ওইসব কোম্পানির বিনিয়োগকারীদের জন্য সুখবর।’

‘অপসারণ করা ২৯ কোম্পানি থেকে উদ্যোক্তা পরিচালকদের বাহিরে সাধারণ শেয়ারহোল্ডারদের বিনিয়োগ ফেরত দেওয়া হবে। তবে সেটা উদ্যোক্তা পরিচালকেরা সাধারণ শেয়ারহোল্ডারদের শেয়ার কিনে বা কোম্পানি অবসায়নের মাধ্যমে করতে পারে। এ নিয়ে বিএসইসির সুনির্দিষ্ট নীতিমালা রয়েছে।’ যোগ করেন তিনি।

জানা গেছে, ওটিসি মার্কেট থেকে স্থানান্তর করা ৪১ কোম্পানির মধ্যে ২৩টিকে স্মল ক্যাপিটাল প্লাটফর্মে যুক্ত করা হবে। এসব কোম্পানির মধ্যে ৭টির উৎপাদনে থাকলেও ১৬টির বন্ধ রয়েছে। এছাড়া ১৮টি কোম্পানিকে অল্টারনেটিভ ট্রেডিং বোর্ডে পাঠানো হবে।

উৎপাদনে থাকা ৭ কোম্পানি হচ্ছে- এপেক্স ওয়েভিং অ্যান্ড ফিনিশিং মিলস, বাংলাদেশ হোটেলস, বেঙ্গল বিস্কুট, গচি হাটা অ্যাকুয়াকালচার, হিমাদ্রি, ওয়ান্ডারল্যান্ড টয়েজ এবং ইউসুফ ফ্লাওয়ার মিলস।

উৎপাদন না থাকা ১৬ কোম্পানি এসএমই তে স্থানান্তর করা হয়েছে। কোম্পানিগুলো হলো- আল-আমিন কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ, আলফা টোব্যাকো ম্যানুফ্যাকচারিং, আমান সী ফুড ইন্ডাস্ট্রিজ, আশরাফ টেক্সটাইল মিলস, বাংলাদেশ ইলেকট্রিসিটি মিটার, বাংলাদেশ লিফ টোব্যাকো, বেঙ্গল ফাইন সিরামিকস, বায়োনিক সী ফুড, ঢাকা ফিশারিজ, এক্সেলসিওর সুজ, লেক্সকো, মেঘনা শ্রিম্প কালচার, রাসপিট ডাটা ম্যানেজমেন্ট, রাঙ্গামাটি ফুড প্রডাক্টস, থেরাপিউটিকস বাংলাদেশ এবং জাগো করপোরেশন।

অল্টারনেটিভ ট্রেডিং বোর্ডে স্থানান্তর করা ১৮ কোম্পানি হচ্ছে – বাংলা প্রসেস ইন্ডাস্ট্রিজ, ড্যান্ডি ডাইং, ডায়নামিক টেক্সটাইল ইন্ডাস্ট্রিজ, মেটালেক্স করপোরেশন, মিতা টেক্সটাইলস, মডার্ন সিমেন্ট, মডার্ন ইন্ডাস্ট্রিজ, মোনা ফুড প্রোডাক্টস, পারফিউমস কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ, প্রেট্রো সিনথেটিক্স প্রোডাক্টস, ফার্মাকো ইন্টারন্যাশনাল, কাশেম সিল্ক মিলস, কাশেম টেক্সটাইলস মিলস, রাসপিট ইন্ডাস্ট্রিজ বিডি, রোজ হ্যাভেন বলপেন, সালেহ কার্পেট মিলস, শেরপুর টেক্সটাইল মিলস এবং ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ।

যে ২৯ কোম্পানি থেকে বিনিয়োগ ফেরত দেওয়া হবে সেগুলো হলো- আরবি টেক্সটাইল, আজাদি প্রিন্টার্স, বাংলাদেশ কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ, বাংলাদেশ ডাইং অ্যান্ড ফিনিশিং, বাংলাদেশ লাগেজ, বাংলাদেশ জিপার ইন্ডাস্ট্রিজ, চিক টেক্সটাইল, ঈগল স্টার টেক্সটাইল মিলস, জার্মান বাংলা জেভি ফুড, গালফ ফুডস, হিল প্লানটেশন, যশোর সিমেন্ট, এম হোসাইন গার্মেন্টস ওয়াশিং, ম্যাক এন্টারপ্রাইজ, ম্যাক পেপার ইন্ডাস্ট্রিজ, ফনিক্স লেদার, দ্য ইঞ্জিনিয়ার্স, টিউলিপ ডেইরি অ্যান্ড ফুড প্রোডাক্টস, পদ্মা প্রিন্টার্স অ্যান্ড কালার, বাংলাদেশ প্লানটেশন, খাজা মোজাউক টাইলস অ্যান্ড স্টোন, ন্যাশনাল অক্সিজেন, প্যারাগন লেদার অ্যান্ড ফুটওয়্যার, জেম নিটওয়্যার ফেব্রিক্স, জিএমজি ইন্ডাস্ট্রিয়াল কর্পোরেশন, জেএইচ কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ, মেঘনা ভেজিটেবল ইন্ডাস্ট্রিজ, মার্ক বাংলাদেশ শিল্প অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং ও রূপন অয়েল অ্যান্ড ফিডস লিমিটেড।

এনটি/আমিনুল

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়