Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     সোমবার   ০৬ ডিসেম্বর ২০২১ ||  অগ্রহায়ণ ২২ ১৪২৮ ||  ২৯ রবিউস সানি ১৪৪৩

আমিও স্বজনপ্রীতির শিকার: সাইফ

বিনোদন ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১০:১৭, ২ জুলাই ২০২০   আপডেট: ১০:৩৯, ২৫ আগস্ট ২০২০
আমিও স্বজনপ্রীতির শিকার: সাইফ

সাইফ আলী খান

বলিউডে স্বজনপ্রীতি নিয়ে আলোচনা অনেকদিন থেকে। তবে সম্প্রতি অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর নতুন করে এটি নিয়ে বিতর্ক তৈরি হয়েছে। সালমান খান, করন জোহর থেকে শুরু করে অনেক তারকা সন্তানকে এ নিয়ে কটাক্ষ করা হচ্ছে।

সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে বলিউডে স্বজনপ্রীতি নিয়ে কথা বলেছেন অভিনেতা সাইফ আলী খান। অভিনেত্রী শর্মিলা ঠাকুর ও ক্রিকেটার মনসুর আলী খান পতৌদির ছেলে তিনি। তার মেয়ে সারা আলী খানও বলিউডে নাম লেখিয়েছেন।

সাইফ আলী খান বলেন, ‘ভারতে কিছু অসমতা রয়েছে যেগুলো দূর করা প্রয়োজন। স্বজনপ্রীতি, পক্ষপাত এবং কারো আওতায় থাকার বিষয়গুলো ভিন্ন। এমনকি আমিও স্বজনপ্রীতির শিকার হয়েছি, কিন্তু কেউ এই বিষয়ে কথা বলে না।’

‘কফি উইথ করন’ অনুষ্ঠানে হাজির হয়ে এই শোয়ের সঞ্চালক করন জোহরকে স্বজনপ্রীতির পতাকা বাহক বলে উল্লেখ করেন অভিনেত্রী কঙ্গনা রাণৌত। এরপর বলিউডে স্বজনপ্রীতি নিয়ে আলোচনা জোরাল হয়। অনুষ্ঠানের সেই পর্বে কঙ্গনার সঙ্গে ছিলেন সাইফ। এই অভিনেত্রীর মন্তব্য প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘কঙ্গনা যা বলেছে সেটি সম্পর্কে আমার কোনো ধারণা ছিল না। কারণ আমি সেইভাবে চিন্তা করিনি। আপনি একটি শোয়ে গিয়ে নিজের এজেন্ডা নিয়ে সঞ্চালককে হেয় করলেন, আমার মানসিকতা এমন নয়। আমি এটা বুঝতেও পারিনি। তাই কিছুটা অবাক হয়েছিলাম। কিন্তু এই বিষয়ের সঙ্গে আমার কোনো সম্পর্ক নেই। তবে আমি তাদের মাঝে পড়ে গিয়েছিলাম। কোনো মন্তব্য করার আগে আমার চিন্তা করা উচিত।’

তিনি আরো বলেন, ‘করনের বিষয় বলতে গেলে, তিনি অনেক বিষয়ে পারদর্শী এবং নিজেকে অনেক বড় প্রতীক হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। তার প্রতি অনেকের নজর রয়েছে। সত্য সবসময় জটিল। আরো অনেক বিষয় রয়েছে কিন্তু দুঃখের বিষয় মানুষ সেগুলোতে নজর দেয় না। তারা শুধু নির্দিষ্ট বিষয়ে আগ্রহী। তিনি এখন এমন একটি বিষয় নিয়ে আলোচনায়, যে বিষয়ে তিনি খুব বেশি জনপ্রিয় নন। আশা করছি দুঃসময় কেটে যাবে এবং তিনি যে বিষয়ে সবচেয়ে বেশি খ্যাতি পেয়েছেন অর্থাৎ পরিচালনা ও প্রযোজনার মাধ্যমে আবার নিজেকে মেলে ধরবেন।’

 

ঢাকা/মারুফ

রাইজিংবিডি.কম

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়