ঢাকা     বুধবার   ১৯ জুন ২০২৪ ||  আষাঢ় ৫ ১৪৩১

বিতর্ক পিছু ছাড়ছে না করনের

বিনোদন ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৭:২৩, ২৮ অক্টোবর ২০২০  
বিতর্ক পিছু ছাড়ছে না করনের

বলিউড  নির্মাতা করন জোহর। একের পর বিতর্কে জড়িয়ে খবরে আসছেন তিনি। আবারো বিতর্কে জড়ালেন এই নির্মাতা।

সম্প্রতি ভারতের পর্যটন নগরী গোয়ায় করনের ধর্মা প্রোডাকশন প্রযোজিত একটি সিনেমার শুটিং হয়। বুধবার (২৮ অক্টোবর) সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হওয়া ছবিতে দেখা যায়, শুটিং সেটে ব্যবহৃত পারসোনাল প্রটেকটিভ ইকুইপমেন্ট (পিপিই)সহ অন্য বর্জ্য ফেলে রাখা হয়েছে। এতে তোপের মুখে পড়েছেন করন।

গোয়ার বর্জ্য ব্যবস্থা মন্ত্রী মাইকেল লোবো এ বিষয়ে ধর্মা প্রোডাকশনকে ক্ষমা চাইতে বলেছেন। অন্যথায়, জরিমানা করা হবে বলে জানিয়েছেন।

মাইকেল লোবো বলেন, ‘প্রথমত পরিচালক অথবা ধর্মা প্রোডাকশনের মালিককে এমন কাজের জন্য গোয়ার মানুষের কাছে ক্ষমা চাইতে হবে। ফেসবুকে এ ব্যাপারে ক্ষমা চাইলে আমরা এটাকে অনিচ্ছাকৃত ভুল হিসেবে বিবেচনা করব। অন্যথায়, জরিমানা করা হবে। গোয়া বর্জ্য ব্যবস্থা মন্ত্রী ধর্মা প্রোডাকশনকে জরিমানা করবে।’

এর আগে মাইক্রোব্লগিং সাইট টুইটারে বর্জ্য ফেলে রাখার একটি ভিডিও পোস্ট করেন অভিনেত্রী কঙ্গনা রাণৌত। এই অভিনেত্রী দাবি করেন, শুটিংয়ের কারণে বর্জ্য ফেলে রাখায় পরিবেশের ক্ষতি হচ্ছে।

এদিকে ধর্মা প্রোডাকশনের নিয়োগকৃত লাইন ম্যানেজার দিলীপ বোরকার এক সংবাদ সম্মেলনের বলেন, ‘আসল ঘটনাটি কেউ জানেন না। এখানে কি ঘটছে কঙ্গনা এর কিছুই জানেন না। এটা ভুল। কঙ্গনা গোয়ার নাম নষ্ট করছেন। এটা আমাদের বদনাম করার একটি অপচেষ্টা হতে পারে। আমরা জানি না কেন, হতে পারে এর সঙ্গে করন জোহরের নাম রয়েছে।’

জানা গেছে, এন্টারটেইনমেন্ট সোসাইটি অব গোয়া (ইএসজি) ইতোমধ্যে দিলীপ বোরকারকে এ ব্যাপারে কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়েছেন।

দিলীপ বোরকার দাবি করেছেন, ‘গ্রাম পঞ্চায়েতের নিয়োগকৃত স্থানীয় ঠিকাদার প্রতিদিন বর্জ্য অপসারণ করেন। কিন্তু শুধুমাত্র রোববার সেটি পারেননি। সেই দিনের ছবিগুলোই ভাইরাল হয়েছে।’

ঢাকা/মারুফ

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়