Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     বৃহস্পতিবার   ২৪ জুন ২০২১ ||  আষাঢ় ১০ ১৪২৮ ||  ১২ জিলক্বদ ১৪৪২

কঙ্গনা বছরের আলোচিত মুখরা রমণী

বিনোদন ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ০৮:৪০, ২৭ ডিসেম্বর ২০২০   আপডেট: ১৩:১৮, ২৭ ডিসেম্বর ২০২০
কঙ্গনা বছরের আলোচিত মুখরা রমণী

বলিউড ‘কুইন’ হিসেবে পরিচিত অভিনেত্রী কঙ্গনা রাণৌত। ২০২০ সালের শুরুতেই মুক্তি পায় তার সিনেমা ‘পাঙ্গা’। বলতে গেলে এরপর থেকে সকলের সঙ্গেই পাঙ্গা নিতে শুরু করেন মুখরা এই রমণী।

ভারতে করোনার প্রাদুর্ভাব শুরু হলে লকডাউন দেওয়া হয়। এসময় কঙ্গনার কেটেছে মানালিতে অবস্থিত তার বাড়িতে। সেখানে থেকেই নানা বিষয়ে লড়াই চালিয়ে গেছেন এই অভিনেত্রী। মাধ্যম হিসেবে ব্যবহার করেছেন মাইক্রোব্লগিং সাইট টুইটার।

বলিউড অভিনেতা সুশান্ত রাজপুতের পর থেকেই সোচ্চার ছিলেন কঙ্গনা। শুরু থেকেই এই অভিনেত্রী দাবি করেন— সুশান্ত আত্মহত্যা করেননি, বরং তাকে আত্মহত্যা করতে বাধ্য করা হয়েছে। বলিউডের স্বজনপ্রীতি, পক্ষপাতিত্ব, তারকাদের মাদক ব্যবহারসহ নানা বিষয়ে কথা বলেন তিনি। কঙ্গনার অভিযোগ—‘কাই পো চে’, ‘এম এস ধোনি: দ্য আনটোল্ড স্টোরি’ এবং ‘ছিছোড়ে’র মতো সিনেমাতে কাজ করেও মূল্যায়ন পাননি সুশান্ত। আর সেই হতাশা থেকেই এমন পদক্ষেপ নিতে বাধ্য হয়েছেন এই অভিনেতা। এমনকি কঙ্গনা জানান, সুশান্তের বিষয়ে প্রমাণ দিতে না পারলে তাকে দেওয়া পদ্মশ্রী পুরস্কার ফেরত দেবেন তিনি। নির্মাতা করন জোহর, মহেশ ভাটকে মুভি মাফিয়া আখ্যায়িত করে একের পর অভিযোগ করেন এই অভিনেত্রী। মহেশ ভাটের স্ত্রী সোনি রাজদান, মেয়ে পূজা ভাটের সঙ্গেও কথার দ্বন্দ্বে জড়ান কঙ্গনা।

অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের মাদক সেবনের বিষয়টি প্রকাশ্যে আসার পর থেকেই বলিপাড়ায় হইচই শুরু হয়। এসময় মাদক নিয়ে তার জীবনের তিক্ত অভিজ্ঞতাও ভক্তদের সঙ্গে ভাগাভাগি করেন কঙ্গনা। পাশাপাশি বলিউডে মাদকের ব্যবহার নিয়েও নানা চাঞ্চল্যকর তথ্য প্রকাশ করেন তিনি। শুধু তাই নয়, রণবীর সিং, রণবীর কাপুর, ভিকি কৌশলদের মতো তারকা অভিনেতাদের ড্রাগ টেস্ট করার আহ্বান জানান এই অভিনেত্রী। কঙ্গনা দাবি করেন, ড্রাগ টেস্টে মাদক সেবনের বিষয়টি ধরা পড়লে তাকে ব্র্যান্ডের প্রতিনিধি হওয়া থেকে নিষিদ্ধ করা উচিত। এই অভিনেত্রী আরো জানান, কিছু অভিনেতা রয়েছেন যারা খাবারের মতো মাদক সেবন করেন। কিন্তু তারাই যুব সমাজকে মাদক থেকে বিরত থাকার জন্য প্রচার চালাচ্ছে।

এছাড়াও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বিভিন্ন সময় বিতর্কে জড়িয়েছেন ‘তানু ওয়েডস মানু’ সিনেমাখ্যাত এই অভিনেত্রী। নবরাত্রিতে একটি পোস্ট করায় ধর্ষণের হুমকি পর্যন্ত পান তিনি। অভিনেত্রী উর্মিলাকে ‘সফট পর্নো স্টার’ বলেও আলোচনায় আসেন কঙ্গনা।

মণিকর্ণিকা ফিল্মস নামে একটি প্রোডাকশন হাউস রয়েছে কঙ্গনার। গত জানুয়ারিতে এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন তিনি। কিন্তু অবৈধ ভবনের অভিযোগ তুলে এই প্রোডাকশন হাউসের কিছু অংশ ভাঙতে চেয়েছিল মুম্বাই মিউনিসিপ্যাল করপোরেশন। তখন টুইটারে শিবসেনা ও মহারাষ্ট্র সরকারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করেন কঙ্গনা। মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরেকে উদ্দেশ্য করে নেতিবাচক মন্তব্য করেও আলোচিত হন তিনি।

নবনির্বাচিত মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনকে নিয়েও কথা বলা বাদ রাখেননি কঙ্গনা। বাইডেনকে ‘গজনি’ বলে অ্যাখ্যায়িত করেন তিনি। বলিউডের অন্যতম সাড়া জাগানো সিনেমা ‘গজনি’। এতে আমিরের ভুলে যাওয়ার অভ্যাস ছিল। মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জয় পাওয়া ডেমোক্র্যাট-প্রার্থী জো বাইডেনকে আমির খানের সঙ্গে তুলনা করেন তিনি।

ভারতের বিতর্কিত কৃষি বিল নিয়ে আন্দোলন করছেন দেশটির কৃষক। এ নিয়ে দুইভাগে বিভক্ত বলিউড তারকারা। তবে এ বিষয়ে বর্তমানে সবচেয়ে বেশি সরব কঙ্গনা রাণৌত ও পাঞ্জাবি গায়ক-অভিনেতা দিলজিৎ দুসাঞ্জ। টুইটারে তাদের মধ্যে কথার লড়াইও হয়েছে।

এছাড়া বছরজুড়ে নানা কারণে আইনি জটিলতায় পড়তে হয়েছে কঙ্গনাকে। মামলায় জড়িয়েছেন এই অভিনেত্রী। তাই বলে, কথায় তার সঙ্গে কেউ পেরে ওঠেননি।  

ঢাকা/মারুফ

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়