Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     রোববার   ০৯ মে ২০২১ ||  বৈশাখ ২৬ ১৪২৮ ||  ২৬ রমজান ১৪৪২

‘নিজে টাকা দিয়ে চাদর, বালিশ এনে ঘুমানোর ব্যবস্থা করেন`

প্রকাশিত: ১৫:৫৫, ১৭ এপ্রিল ২০২১   আপডেট: ১১:৫৮, ১৮ এপ্রিল ২০২১
‘নিজে টাকা দিয়ে চাদর, বালিশ এনে ঘুমানোর ব্যবস্থা করেন`

কবরী ও আলমগীর (ফাইল ফটো)

ঢাকাই চলচ্চিত্রের বরেণ্য অভিনেতা আলমগীর। ১৯৭৩ সালে চলচ্চিত্রে তার অভিষেক। ক্যারিয়ারের প্রথম সিনেমায় নায়িকা হিসেবে পেয়েছিলেন কবরীকে। চলচ্চিত্রে নায়ক আলমগীর নবাগত হলেও সে সময় কবরী প্রতিষ্ঠিত নায়িকা। যে কারণে নায়ক আলমগীরের খোঁজ-খবর রাখতেন।

সদ্য প্রয়াত কিংবদন্তি অভিনেত্রী কবরীকে নিয়ে স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে এসব তথ‌্য জানিয়েছেন আলমগীর।

'আমার জন্মভূমি' সিনেমায় কবরীর বিপরীতে অভিনয়ের মাধ্যমে চলচ্চিত্রে অভিষেক নায়ক আলমগীরের। স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে তিনি বলেন,'সে সময় আমি নতুন শিল্পী। সিনেমার শুটিংয়ে থাকা-খাওয়ার বিষয়গুলো জানতাম না। কিন্তু উনি (কবরী) খোঁজ রাখতেন। এই সিনেমার শুটিংয়ের আমাকে কোনো রুম দেওয়া হয়নি। একটা বড় বারান্দা ছিল, ওইটাতে খড় বিছিয়ে বিছানা করে ঘুমিয়েছিলাম। পরের দিন এটা উনি দেখলেন। এর পরে নিজে টাকা দিয়ে চৌকি, চাদর, বালিশ এনে ঘুমানোর ব্যবস্থা করে দিলেন। এগুলো অসাধারণ ব্যাপার। এমন স্মৃতি অনেক আছে।'

তিনি আক্ষেপ করে বলেন, ‘এমন এক পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে পার করছি যে, কাছের মানুষদের শেষ বারের মতো দেখতে পারছি না। করোনার কারণে সবাই এখন ঘরবন্দি।'

আলমগীর-কবরী একসঙ্গে ২৫টি সিনেমায় অভিনয় করেছেন। তাদের মধ্যে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক ছিল।

বরেণ্য অভিনেত্রী সারাহ বেগম কবরী করোনায় আক্রান্ত হয়ে শুক্রবার রাত ১২টা ২০ মিনিটে মারা যান।

রাজধানীর বনানী কবরস্থানে কবরীকে সমাহিত করা হয়েছে। এর আগে বাদ জোহর কবরস্থান এলাকায় তার জানাজা হয়। জানাজা শুরুর আগে বনানী কবরস্থানের সামনেই এই মুক্তিযোদ্ধা অভিনয়শিল্পীকে রাষ্ট্রীয়ভাবে গার্ড অব অনার দেওয়া হয়।

হাসপাতালের হিমঘর থেকে মোহাম্মদপুর আল মারকাজুলে নেওয়া হয়। সেখানে গোসল করানো শেষে তার মরদেহ গুলশান ২ নম্বর এলাকার লেক রোডের বাড়িতে শেষবারের মতো নেওয়া হয়েছিল।

এর আগে হঠাৎ করে কাশি ও জ্বরে আক্রান্ত হলে করোনার উপসর্গ ভেবে চিন্তায় পড়েন সারাহ বেগম কবরী। পারিবারিক চিকিৎসকের পরামর্শে নমুনা পরীক্ষা করালে রিপোর্ট করোনা পজিটিভ আসে। গত ৫ এপ্রিল রাতে তাকে ঢাকার কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ৭ এপ্রিল রাতে তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়। চিকিৎসকরা দ্রুত তাকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) স্থানান্তরের কথা জানান। তখন এই অভিনেত্রীকে শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভার ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। গত ১৫ এপ্রিল বিকেলে কবরীকে লাইফ সাপোর্টে নেওয়া হয়েছিল।

কবরী অভিনয়ের পাশাপাশি সিনেমা পরিচালনা করেছেন। কাহিনি, চিত্রনাট্য ও সংলাপ রচনাও করেছেন তিনি। আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত ছিলেন বরেণ্য এই অভিনেত্রী।

ঢাকা/রাহাত সাইফুল

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়