ঢাকা     শনিবার   ০১ অক্টোবর ২০২২ ||  আশ্বিন ১৬ ১৪২৯ ||  ০৪ রবিউল আউয়াল ১৪১৪

স্বামীর জন্য উপপত্নী খুঁজলেন স্ত্রী

অন্য দুনিয়া ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১২:০২, ১৪ আগস্ট ২০২২   আপডেট: ১২:১১, ১৪ আগস্ট ২০২২
স্বামীর জন্য উপপত্নী খুঁজলেন স্ত্রী

স্বামীর সঙ্গে অন্য নারীকে দেখতে হয়তো কোনো স্ত্রী-ই চাইবেন না। কিন্তু থাইল্যান্ডের পাথীমা চ্যামনান সেই দলে নেই। স্বামীর জন্য সুন্দর ও শিক্ষিত উপপত্নী নিযুক্ত করেছেন তিনি।

ব্যাংককের বাসিন্দা ৪৪ বছর বয়সী এই নারীর দাবি, দীর্ঘদিন তিনি স্বামীর সঙ্গে ঘুমান না। এ বিষয়টি তাকে পীড়া দেয়। স্ত্রী হিসেবে তার মধ্যে অপরাধবোধ তৈরি করে। এরপরই স্বামীর জন্য উপপত্নীর খোঁজে ভিডিও বিজ্ঞাপন দেন। পরে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ঘটনাটি ভাইরাল হয়।

ভিডিওতে দেখা যায়, পাথীমা চ্যামনান যুবতী, সিঙ্গেল এবং কলেজ থেকে ডিপ্লোমা ডিগ্রিধারী একজন নারীকে খুঁজছেন। উপপত্নী হওয়ার জন্য বেতন বাবদ ১৫ হাজার থাই বাত দিতে রাজি তিনি, বাংলাদেশি মুদ্রায় যা প্রায় ৪০ হাজার টাকা।

ভিডিওতে পাথীমা বলেন, ‘আমার স্বামীর জন্য তিনজন উপপত্মী নিযুক্ত করতে চাই। প্রতি মাসে এজন্য ১৫ হাজার বাত পাবেন। পাশাপাশি থাকা ও খাওয়া ফ্রি। কিন্তু আপনাদের আমাকেও সাহায্য করতে হবে। দুইজনকে নিযুক্ত করা হবে অফিস ও ডকুমেন্টসের বিষয়ে সাহায্য করার জন্য। অপরজন আমার, আমার স্বামীর ও সন্তানদের দেখাশোনা করবেন। কথা দিচ্ছি আমার সঙ্গে আপনাদের কোনো ঝামেলা হবে না।’

তিনি আরো বলেছেন, ‘আমার স্বামী কঠোর পরিশ্রম করে। তাকে সুখী দেখতে চাই। এছাড়া বাড়িতে আমার কিছু বন্ধুও দরকার। তবে প্রার্থীর কোনো সন্তান থাকা যাবে না। এতে অনেক প্রতিবন্ধকতা থাকে। তাদের রুচিশীল ও আন্তরিক হতে হবে।’

স্বামীকে আনন্দ দেওয়ার উদ্দেশ্যেই এমনটা করছেন জানিয়ে পাথীমা বলেন, ‘উপপত্মীদের অবশ্যই আমার স্বামীকে সঙ্গ এবং বিনোদন দিতে হবে। এজন্য অবশ্যই তাদেরকে ব্যক্তিত্বসম্পন্ন ও হাসিখুশি হতে হবে।’

স্বামীর জন্য উপপত্নী খোঁজার কারণ ব্যাখ্যা করে তিনি বলেন, ‘আমি বিষণ্নতায় ভুগছি এবং শারীরিক সমস্যাও রয়েছে। এজন্য স্বামীর যত্ন নিতেও পারি না। তার সঙ্গে ঘুমাই না। নিজের মধ্যে অপরাধবোধ কাজ করে।’

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম বিষয়টি ভাইরাল হওয়ার পর ভীষণ অবাক হয়েছে তার স্বামী প্যাট্টাগর্ন। তবে স্ত্রীর এই নিদ্ধান্তে আপত্তিও করেননি। তিনি বলেন, ‘আমার স্ত্রী আমাকে বলেছে দেখাশোনা করার জন্য কাউকে রাখতে চায়। এই নারীদের পরিবারের সদস্য হিসেবেই বিবেচনা করা হবে। তারা আমাদের প্রতিষ্ঠানেও কাজ করবে। অন্য পুরুষরাও এখন আমার মতো হওয়ার ইচ্ছা করছে। কোনোদিন উপপত্নীর কথা চিন্তা করিনি। তবে আমার স্ত্রী যখন প্রস্তাব দিয়েছে, আপত্তি করিনি।’

ইতোমধ্যে ৩৩ বছর বয়সী এক নারীকে উপপত্নী হিসেবে নিযুক্ত করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

/মারুফ/

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়