ঢাকা     শনিবার   ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ ||  আশ্বিন ১১ ১৪২৭ ||  ০৮ সফর ১৪৪২

ফিলিস্তিনে ইসরায়েলের বসতি স্থাপনের বৈধতা দিল যুক্তরাষ্ট্র

আন্তর্জাতিক ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ০৯:৩৩, ১৯ নভেম্বর ২০১৯   আপডেট: ০৫:২২, ৩১ আগস্ট ২০২০
ফিলিস্তিনে ইসরায়েলের বসতি স্থাপনের বৈধতা দিল যুক্তরাষ্ট্র

দখলকৃত ফিলিস্তিনের পশ্চিম তীরে ইসরায়েলের বসতি স্থাপন আন্তর্জাতিক আইনের সঙ্গে ‘অসামঞ্জস্যপূর্ণ নয়’ বলে মন্তব্য করেছে যুক্তরাষ্ট্র।

সোমবার মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও যুক্তরাষ্ট্রের এ অবস্থান ঘোষণা করেছেন।

পম্পেও বলেছেন, ‘সব পক্ষের আইনি যুক্তি সতর্কতার সঙ্গে পর্যালোচনার পর এই প্রশাসন সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছে যে, পশ্চিম তীরে বেসামরিক নাগরিকদের জন্য ইসরায়েলের বসতি স্থাপন আন্তর্জাতিক আইনের সঙ্গে অসামঞ্জস্যপূর্ণ নয়।’

তিনি জানিয়েছেন, ১৯৭৮ সালে মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় পশ্চিম তীরে ইসরায়েলের বসতি স্থাপন ‘আন্তর্জাতিক আইনের সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ নয়’ বলে যে আইনি মত দিয়েছিল তা প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রশাসন আর মানতে বাধ্য নয়।

ট্রাম্প প্রশাসনের নতুন এ অবস্থানকে স্বাভাবিকভাবেই স্বাগত জানিয়েছে ইসরায়েল। তবে এর তীব্র নিন্দা জানিয়েছে ফিলিস্তিন।

ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাসের এক মুখপাত্র বলেছেন,যুক্তরাষ্ট্রের এই সিদ্ধান্ত ‘সম্পূর্ণভাবে আন্তর্জাতিক আইনের বিপরীত’।

মুখপাত্র নাবিল আবু রুদিনাহ বলেন,‘আন্তর্জাতিক আইনের সিদ্ধান্ত বাতিল করার যোগ্য বা কর্তৃপক্ষ যুক্তরাষ্ট্র নয়। ইসরায়েলি বসতি স্থাপনের আইনি বৈধতা দেওয়ার কোনো অধিকারও তাদের নেই।’

১৯৬৭ সালে মধ্যপ্রাচ্য যুদ্ধে পশ্চিম তীর ও পূর্ব জেরুজালেম ইসরায়েল অধিগ্রহণ করার পর সেখানে একের পর এক আবাসিক এলাকা তৈরি করছে তেল আবিব। এই বসতি নির্মাণ আন্তর্জাতিক আইন অনুযায়ী অবৈধ। ২০১৬ সালে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের সর্বশেষ সিদ্ধান্তেও বলা হয়েছিল, চতুর্থ জেনেভা কনভেনশন লঙ্ঘন করায় ইসরায়েলের এই বসতি নির্মাণ অবৈধ।


ঢাকা/শাহেদ

রাইজিংবিডি.কম

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়