ঢাকা     শুক্রবার   ৩১ মে ২০২৪ ||  জ্যৈষ্ঠ ১৭ ১৪৩১

গাজায় গণকবর: স্বাধীন তদন্তের দাবি তুলছে আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলো

আন্তর্জাতিক ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১২:৩১, ২৫ এপ্রিল ২০২৪   আপডেট: ১৩:২৭, ২৫ এপ্রিল ২০২৪
গাজায় গণকবর: স্বাধীন তদন্তের দাবি তুলছে আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলো

গাজার একাধিক হাসপাতালে সম্প্রতি একাধিক গণকবর আবিষ্কারের ঘটনায়  স্বাধীন তদন্তের দাবি জোরদার হচ্ছে। একাধিক আন্তর্জাতিক সংস্থা তদন্তের দাবি করছে।

৭ অক্টোবর ইসরায়েলি বাহিনী গাজায় হামলা চালায়। এ পর্যন্ত ৩৪ হাজারের বেশি ফিলিস্তিনি ইসরায়েলি হামলায় নিহত হয়।

বুধবার পর্যন্ত গাজার স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ফিলিস্তিনি চিকিৎসকরা খান ইউনিসের নাসের মেডিকেল কমপ্লেক্সে একাধিক গণকবর থেকে ৩২৩টি মৃতদেহ পেয়েছেন।

জাতিসংঘের মানবাধিকার কাউন্সিল মঙ্গলবার জানিয়েছে, গাজা শহরের আল-শিফা হাসপাতালে গণকবর থেকে আরও বেশি মৃতদেহ খুঁজে পেয়েছেন।

সংস্থার প্রধান ভলকার তুর্ক বলেছেন, গণকবরে শত শত লাশ মেলার খবরে তিনি ‘আতঙ্কিত।’

জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক হাই কমিশনারের মুখপাত্র জানিয়েছেন, মানবাধিকার গোষ্ঠীগুলো উদ্বেগ প্রকাশ করেছে। কারণ, বহু লাশ পাওয়া গেছে। সেগুলোর মধ্যে কিছু লাশের হাত বাঁধা, যা মানবাধিকার আইন এবং আন্তর্জাতিক মানবিকতা আইন লঙ্ঘনেরই ইঙ্গিত দিচ্ছে। এসব মানুষের মৃত্যু কীভাবে হয়েছে তা নিয়ে আরও তদন্ত প্রয়োজন।

অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের সিনিয়র কর্মকর্তা এরিকা গুয়েভারা রোসাস বুধবার এক বিবৃতিতে বলেছেন, ‘এই ভয়াবহ গণকবরগুলোর আবিষ্কার অধিকৃত গাজা উপত্যকায় ফরেনসিক বিশেষজ্ঞসহ মানবাধিকার তদন্তকারীদের অবিলম্বে প্রবেশ নিশ্চিত করার প্রয়োজনীয়তার উপর জোর দেয়, যাতে প্রমাণ সংরক্ষণ নিশ্চিত এবং আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘনে দায়বদ্ধতার নিশ্চয়তার লক্ষ্যে স্বাধীন ও স্বচ্ছ তদন্ত চালানো যায়।’

গাজায় অবস্থানরত ইউরো-মেডিটারেনিয়ান হিউম্যান রাইটস মনিটর দলের সদস্যরা জানিয়েছেন, তারা হাসপাতালের আশেপাশে চিকিৎসকদের শত শত মৃতদেহ উত্তোলন করতে দেখেছেন, যাদের মধ্যে অনেককে ‘আটক ও হাতকড়া পরানোর পর পরিকল্পিত হত্যার পাশাপাশি নির্বিচারে ও বিচারবহির্ভূত মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়েছিল।’

ঢাকা/শাহেদ

সম্পর্কিত বিষয়:

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়