ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ আষাঢ় ১৪২৭, ০৭ জুলাই ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

হংকং নিরাপত্তা আইন পাস হলো চীনের পার্লামেন্টে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০৬-৩০ ৫:১৮:৫২ পিএম     ||     আপডেট: ২০২০-০৬-৩০ ৫:৫৪:৫০ পিএম

বিক্ষোভ, সমালোচনা,হুঁশিয়ারি সব কিছুকে পাশ কাটিয়ে শেষ পর্যন্ত স্বায়ত্তশাসিত নগর হংকংয়ে জন্য জাতীয় নিরাপত্তা আইন পাস করেছে চীনের পার্লামেন্ট। মঙ্গলবার এই আইনটি পাস করার মধ্য দিয়ে সাবেক ব্রিটিশ উপনিবেশটিতে ২৩ বছর পর সবচেয়ে মৌলিক পরিবর্তন আনলো বেইজিং।

এই নিরাপত্তা আইনটিতে বিচ্ছিন্নতাবাদ, কর্তৃপক্ষকে অবমাননা, সন্ত্রাসবাদ ও জাতীয় নিরাপত্তা বিপন্ন করতে বিদেশি বাহিনীর সঙ্গে আঁতাতের অভিযোগে কঠোর শাস্তির বিধান রাখা হয়েছে। তবে হংকংয়ের গণতন্ত্রপন্থিদের অভিযোগ, এই আইনটি দিয়ে হংকংয়ের বাসিন্দাদের বাকস্বাধীনতা ও গণতান্ত্রিক অধিকারকে খর্ব করলো চীন।

হংকংয়ের গণতন্ত্রপন্থি আন্দোলনের অন্যতম নেতা জোশুয়া ওং আইনটি পাশের পর টুইটারে এক প্রতিক্রিয়ায় লিখেছেন, ‘বিশ্বের চিরচেনা হংকংয়ের অবসানের চিহ্ন এঁকে দিলো এটি।’

নতুন এই নিরাপত্তা আইনটির খসড়া প্রকাশ করেনি চীনা কর্তৃপক্ষ। পাস হওয়ার পরও এর বিস্তারিত প্রকাশ করা হয়নি। ব্রিটিশ শাসন থেকে হংকংকে চীনের কাছে হস্তান্তরের ২৩তম বার্ষিকী ১ জুলাই থেকে এই আইনটি কার্যকর হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এই আইনে দায়ের করা মামলাগুলো পরিচালনার জন্য হংকংয়ে নতুন নিরাপত্তা অফিস খুলেছে বেইজিং।

এদিকে সাবেক উপনিবেশিক শাসক যুক্তরাজ্য আইনটি পাসের আগেই হংকং ও চীনের কর্মকর্তাদের হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছিল, প্রয়োজনে হংকংয়ের বাসিন্দাদের যুক্তরাজ্যের পাসপোর্ট দেওয়া হবে।

মঙ্গলবার ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডমিনিক রাব গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেছেন, ‘এটি গুরুতর পদক্ষেপ।’

হংকংয়ের গণতন্ত্রপন্থিরা জানিয়েছেন, গ্রেপ্তারের আশঙ্কা সত্বেও তারা বুধবার এই আইনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করবেন।

সিভিল হিউম্যান রাইটস ফ্রন্টের নেতা ফিগো চ্যান হংকংবাসীকে রাজপথে নেমে আসার আহ্বান জানিয়ে বলেছেন, ‘আমরা অভিযুক্ত হওয়ার ঝুঁকি সম্পর্কে সচেতন। তবে আমরা হংকংবাসীকে ভয় না পাওয়ার জন্য বলব, কারণ আমরা সামনে থাকার ওপর জোর দিচ্ছি।’

সাউথ চীনা মর্নিং পোস্ট জানিয়েছে, পরিস্থিতি সামাল দিতে চার হাজার দাঙ্গা পুলিশ প্রস্তুত রাখা হবে।


ঢাকা/শাহেদ