ঢাকা     সোমবার   ০৪ মার্চ ২০২৪ ||  ফাল্গুন ২০ ১৪৩০

উধমপুর হামলার মূল পরিকল্পনাকারী করাচিতে নিহত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৬:১২, ৬ ডিসেম্বর ২০২৩   আপডেট: ১৬:৪৩, ৬ ডিসেম্বর ২০২৩
উধমপুর হামলার মূল পরিকল্পনাকারী করাচিতে নিহত

পাকিস্তানের করাচিতে অজ্ঞাত বন্দুকধারীদের গুলিতে জঙ্গি সংগঠন লস্কর-ই-তৈয়েবার অন্যতম প্রভাবশালী নেতা হানজলা আদনান নিহত হয়েছেন। 

তিনি ২০১৫ সালে কাশ্মীরের উধমপুরে ভারতীয় সেনাদের ওপর সন্ত্রাসী হামলার মূল পরিকল্পনাকারী হিসেবে পরিচিত ছিলেন। তার পরিকল্পিত ওই হামলায় ভারতের ২ জন বিএসএফ সদস্য নিহত হয়েছিলেন। এছাড়া আহত হয়েছিলেন বিএসএফের আরও ১৪ জন সদস্য।

২০১৮ সালের ২৬ নভেম্বরে মুম্বাইয়ে ভয়াবহ হামলার মূল পরিকল্পনাকারী লস্কর-ই-তৈয়বার প্রধান হাফিজ সাইদের ঘনিষ্ঠ সহযোগী হিসেবেও পরিচিত ছিলেন হানজলা আদনান।

বুধবার (৬) ডিসেম্বর এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ডাব্লিউআইওএন।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত ৩ ডিসেম্বর মধ্যরাতে বাড়ির বাইরে হানজলা আদনানের ওপর অজ্ঞাত বন্দুকধারীরা গুলি চালায়। তার শরীরে চারটি গুলি পাওয়া গেছে। নিকটবর্তী আব্বাসী শহিদ হাসপাতালে তাকে নিয়ে যাওয়া হয়। ৫ ডিসেম্বর চিকিৎসাধীন অবস্থায় হাসপাতালে মারা গেছেন তিনি।

একটি অসমর্থিত সূত্রের প্রতিবেদন বলছে, পাকিস্তানের ডেরা গাজি খানের কেন্দ্রীয় কারাগারে ২৬/১১ মুম্বাই হামলার অন্যতম চক্রান্তকারী সাজিদ মীরকে বিষ প্রয়োগ করে হত্যার একদিন পরেই এবার উধমপুরে ভারতীয় সেনাদের ওপর সন্ত্রাসী হামলার মূল পরিকল্পনাকারী হানজলা আদনানকে করাচিতে হত্যার এই ঘটনা সামনে এলো।

ভারতে অতীতে সন্ত্রাসী হামলার সাথে জড়িত ব্যক্তিদের পাকিস্তানে হত্যার ঘটনা এটি প্রথম নয়। ডাব্লিউআইওএনের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, চলতি বছরে পাকিস্তানে অজ্ঞাত হামলাকারীদের হাতে অন্তত ১৫ জন নিহত হয়েছেন। পরে জানা যায়, নিহতরা সবাই ভারতে সন্ত্রাসী হামলার সঙ্গে জড়িত ছিলেন।

চলতি বছরের ১২ নভেম্বরে করাচিতে মাওলানা রহিমুল্লাহ তারিক, ১০ নভেম্বর শৈলকোটে মোহাম্মদ মুজ্জাম্মিল, ৯ নভেম্বর রাওলাকোটে খাজা শহীদ ইলিয়াস, ১২ অক্টোবর পাসুরে মাওলানা শহীদ লতিফ, ১৩ সেপ্টেম্বর করাচিতে মাওলানা জিয়া উর রহমান, ৮ সেপ্টেম্বর রাওয়ালকোটে রিয়াজ আহমেদ ওরফে আবু কাসিম, ১৫ জুলাই নবাবশাহে মাওলানা সরদার হোসেন আরাইন, ৬ মে লাহোরে পরমজিৎ সিং পাঞ্জওয়ার, ৪ মার্চ রাওয়ালপিন্ডিতে বশির আহমদ পীর এবং ২৬ ফেব্রুয়ারি করাচিতে সৈয়দ খালিদ রাজাকে অজ্ঞাত ব্যক্তিরা টার্গেট হামলা চালিয়ে হত্যা করেন। তারা সবাই ভারতে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় জড়িত ছিলেন। 

এর নেপথ্যে ভারতীয় গোয়েন্দা বাহিনী ‘র’-এর কোনো ভূমিকা আছে কিনা, তা জানা যায়নি।

/ফিরোজ/

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়