ঢাকা     রোববার   ১৪ জুলাই ২০২৪ ||  আষাঢ় ৩০ ১৪৩১

পোশাকে থাকুক আরাম আর উৎসবের আমেজ

রাশিদা খাতুন || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১২:৫২, ১৫ জুন ২০২৪   আপডেট: ১২:৫৭, ১৮ জুন ২০২৪
পোশাকে থাকুক আরাম আর উৎসবের আমেজ

ছবি: লিলিথ’স ফ্যাশনের সৌজন্যে

ঈদের পোশাকে জমকালো ভাব ফুটিয়ে তোলার চেষ্টা কম বেশি সবার থাকে। সিনথেটিক, সিকুইন বা মুনলাইট ফেব্রিকের পোশাকগুলো সহজেই জমকালো ভাইভ দিতে পারে। কিন্তু এই ধরনের পোশাকের ভেতর দিয়ে বাতাস সহজে চলাচল করতে পারে না। এই যখন অবস্থা তাহলে করণীয় কী?

ফ্যাশন ডিজাইনার ইলোরা লিলিথ বলেন, গরমে আরাম পেতে হলে সুতি অথবা লিলেনের পোশাক সব থেকে ভালো। সিনথেটিক, সিকুইন বা মুনলাইট ফেব্রিকের পোশাক পরতে হলে স্ট্রেইট কাটের পোশাক বেছে নিতে হবে। ইউরোপের ইভিনিং পোশাকগুলো লেয়ার ছাড়াই খুব স্টেইট ডিজাইনের হয়। কিন্তু এগুলো দেখতে স্টাইলিং, আপডেটেড, পরেও আরাম পাওয়া যায় আবার চোখেরও আরাম। এই ঈদে কম লেয়ারের পোশাক বেছে নিতে পারেন।

অনেকেই ট্রেন্ডের সঙ্গে তাল মেলাতে চান। এই সময়ে কর্সেট খুব চলছে। এই পোশাকে গর্জিয়াস লুক পেতে হলে কোন দিক খেয়াল রাখতে হবে, সেই বিষয়ে লিলিথ বলেন, কর্সেট পোশাকগুলো একটু ঢিলেঢালা পরতে হয়। এগুলোর স্টাইলটাই এরকম। সেক্ষেত্রে ফেব্রিকের সিকুইন, কারচুপি অথবা ভারি অ্যামব্রোডারি থাকলে ভালো হয়। এতে কটন বা সুতি ফেব্রিকের পোশাকেও গর্জিয়াস লুক পাওয়া যেতে পারে। 

ইলোরা লিলিথ আরও বলেন, আমরা উৎসবে সাইনি থাকতে পছন্দ করি। ফিউশনের পোশাক আমাদেরকে সহজে সাইনি করতে পারে। যেমন— সুতি ফেব্রিক সাধারণত ম্যাট লুকের থাকে। ম্যাট লুকের সঙ্গে জমকালো কিছু মেলালে ভালো লাগে না। ভালো কম্বিনেশনের জন্য কাছাকাছি রঙের সুতার কাজ দিয়ে ফিউশন করা যেতে পারে। যেমন- কটন ফেব্রিকের জমিনে-বেসিক কালারের সঙ্গে মিলিয়ে কারচুপি বা অ্যামব্রোডারি করা হলে চোখেও আরাম লাগবে, সাইনিও লাগবে।

/লিপি

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়