ঢাকা, রবিবার, ১৪ চৈত্র ১৪২৬, ২৯ মার্চ ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

পর্যটনের স্বার্থে নেতিবাচক সংবাদ পরিহারের আহ্বান

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০২-২২ ৫:০৮:১৫ পিএম     ||     আপডেট: ২০২০-০২-২২ ৫:০৮:১৫ পিএম

পর্যটন শিল্পের বিকাশের স্বার্থে এমন সংবাদ পরিহার করতে হবে যা বহিবির্শ্বে বাংলাদেশ সম্পর্কে নেতিবাচক মনোভাব তৈরি করে।

বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলী এমন আহ্বান জানিয়েছেন। স্বাধীনতার ৫০ বছর উপলক্ষে ২০২১ সালকে পর্যটনবর্ষ হিসেবে ঘোষণার উদ‌্যোগ নেওয়া হচ্ছে বলেও জানান প্রতিমন্ত্রী।

শনিবার দুপুরে রাজধানীর সোনারগাঁ হোটেলে এক সে‌মিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন তি‌নি।

বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয় ও ভ্রমণ ম্যাগাজিনের যৌথ আয়োজনে 'বাংলাদেশের পর্যটন: সুযোগ ও চ্যালেঞ্জ' শীর্ষক সেমিনারের আ‌য়োজন করা হয়।

তিনি বলেন, স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে আগামী বছরকে পর্যটনবর্ষ ঘোষণা করতে কাজ চলছে। প্রধানমন্ত্রীর সম্মতি পাওয়ার পর এ ব্যাপারে বিস্তারিত কর্মপরিকল্পনা নেওয়া হবে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে পর্যটনের নতুন দিগন্ত উন্মোচিত হবে।

মাহবুব বলেন, ‘পর্যটন প্রতিযোগিতার বাজার, যে যত বেশি সেবা দেবে, তাঁর দিকেই ঝুঁকবে পর্যটক। সেবার মান নিশ্চিত করতে পারলে পর্যটন বিকশিত হবে। আগে হয়নি বলে এখনও হবে না, এটি কোন কথা নয়। ইচ্ছা, উদ্যম ও পরিশ্রম থাকলে সব কিছু অর্জন করা সম্ভব। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ঐকান্তিক ইচ্ছা এবং কর্মে এ দেশ আজ সারা বিশ্বে মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়েছে। সুতরাং, আমরা যদি পরিশ্রম করি, উদ্যমী হই পর্যটনে অবশ্যই দৃশ্যমান পরিবর্তন আনা সম্ভব।’

প্রতিমন্ত্রী বলেন, দেশের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির উন্নতি হয়েছে। দেশের প্রতিটি জায়গায় প্রতিটি কোণে এখন পর্যটকরা নিরাপদে বিচরণ করতে পারছেন। ট‌্যুরিস্ট পুলিশ গঠন করায় পর্যটকদের বাড়তি নিরাপত্তা নিশ্চিত হয়েছে। পর্যটক আসলে বের হতে পারবে না, এমন পরিস্থিতি আর নাই।

সভাপতির বক্তব্যে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মো. মহিবুল হক বলেন, সত্যিকার অর্থে পর্যটন এগিয়ে নিতে সমন্বিত উদ্যোগ প্রয়োজন। এজন্য প্রত্যেক বাংলাদেশিকে দায়িত্ব নিতে হবে। গণমাধ্যমকে ইতিবাচক ভূমিকা রাখতে হবে। এমনভাবে সংবাদ প্রকাশ করতে হবে, যাতে বহির্বিশ্বে বাংলাদেশ সম্পর্কে নেতিবাচক মনোভাব না জন্মায়।

‘ভ্রমণ’ নামে ট্রাভেল ম্যাগাজিনের সম্পাদক আবু সুফিয়ানের উপস্থাপনায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা জাবেদ আহমেদ, পর্যটন করপোরেশনের চেয়ারম্যান রাম চন্দ্র দাস, বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. মোকাব্বির হোসেন, ট্যুরিস্ট পুলিশের ডিআইজি মল্লিক ফখরুল ইসলাম, ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির বোর্ড অব ট্রাস্ট্রির চেয়ারম্যান মো. সবুর খান ও গ্লোবাল টেলিভিশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নওয়াজিশ আলী খান প্রমুখ।

 

ঢাকা/আসাদ/সাজেদ