ঢাকা     মঙ্গলবার   ২৩ জুলাই ২০২৪ ||  শ্রাবণ ৮ ১৪৩১

‘২০৪১ সাল নাগাদ মিক্সে ৪০ শতাংশ পর্যন্ত অবদান থাকবে পরিষ্কার জ্বালানির’

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২২:৩১, ১ অক্টোবর ২০২৩   আপডেট: ২২:৪২, ১ অক্টোবর ২০২৩
‘২০৪১ সাল নাগাদ মিক্সে ৪০ শতাংশ পর্যন্ত অবদান থাকবে পরিষ্কার জ্বালানির’

বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেছেন, বাংলাদেশে নবায়নযোগ্য জ্বালানির প্রসারে অর্থায়নের সঙ্গে সঙ্গে প্রযুক্তি সহায়তা প্রয়োজন। নিরাপদ, পরিষ্কার ও সাশ্রয়ী মূল্যে বিদ্যুৎ সরবরাহে সরকার কাজ করছে। ২০৪১ সাল নাগাদ জ্বালানি মিক্সে ৪০ শতাংশ পর্যন্ত পরিষ্কার জ্বালানির অবদান থাকবে।

রোববার (১ অক্টোবর) সচিবালয়ে জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের মধ্যপ্রাচ্য, এশিয়া ও প্যাসিফিক অঞ্চলের পরিচালক পেটেরিস উসতানসের নেতৃত্বে ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের একটি প্রতিনিধিদলের সঙ্গে সভায় বক্তব্য রাখেন প্রতিমন্ত্রী।

তিনি বলেন, বর্তমানে নবায়নযোগ্য উৎস থেকে প্রায় ১২০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন করা হচ্ছে এবং ১০০টি প্রকল্পের মাধ্যমে নবায়নযোগ্য উৎস থেকে আরও প্রায় ১০ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনের প্রক্রিয়া চলমান। নবায়নযোগ্য উৎস থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদনের ৯০ শতাংশই বেসরকারি খাত থেকে হচ্ছে।

বায়ু বিদ্যুৎ ও অফশোর বায়ু বিদ্যুৎ নিয়েও সরকার বিভিন্ন প্রকল্প গ্রহণ করতে আগ্রহী। এশিয়া উন্নয়ন ব্যাংকের সহযোগিতায় বিদ্যুৎ বিভাগ অফশোর বায়ুর সম্ভাব্যতা যাচাই নিয়ে কাজ করছে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ইউরোপের কয়েকটি দেশ অফশোর বায়ু বিদ্যুৎ নিয়ে আগ্রহ দেখিয়েছে। ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন এ নিয়ে কাজ করতে পারে। নিরবচ্ছিন্ন ও মানসম্পন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহে সঞ্চালন ও সাব-স্টেশন স্থাপনেও আমরা একসঙ্গে কাজ করতে পারি।

তিনি আরও বলেন, কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র চূড়ান্ত অনুমোদন না করায় প্রায় ১০ বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ চলে গেছে। নবায়নযোগ্য জ্বালানিতে এ বিনিয়োগ আসা উচিত। বাংলাদেশে রুফটপ সোলার দিন দিন জনপ্রিয় হয়ে উঠছে।

সভায় বিদ্যুৎ বিভাগের সিনিয়র সচিব মো. হাবিবুর রহমান, বাংলাদেশে নিযুক্ত ইইউ’র রাষ্ট্রদূত চার্লস্ হুইটলি, হেড অব সেক্টর ফর সাউথ এশিয়া অড্রেই মাইলট ও বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান মো. মাহবুবুর রহমান উপস্থিত ছিলেন।


ঢাকা/হাসান/এনএইচ

ঢাকা/হাসান/এনএইচ

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়