Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     রোববার   ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ ||  আশ্বিন ৪ ১৪২৮ ||  ০৯ সফর ১৪৪৩

সাড়ে ৫৬ কোটি টাকায় সংস্কার হবে যমুনা সার কারখানা

কেএমএ হাসনাত || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২০:১৩, ১ আগস্ট ২০২১  
সাড়ে ৫৬ কোটি টাকায় সংস্কার হবে যমুনা সার কারখানা

যমুনা ফার্টিলাইজার কোম্পানি লিমিটেডে  (জেএফসিএল) উৎপাদন কমেছে ২৫ শতাংশ। এ অবস্থায় দেশের বৃহত্তম এ সার কারখানা সংস্কারের উদ্যোগ নিয়েছে শিল্প মন্ত্রণালয়। কারখানাটিতে উৎপাদন অব্যাহত রাখতে জার্মানির মেসার্স বরসিগ প্রসেজ জিএমবিএইচের কাছ থেকে রিফর্মড গ্যাস ওয়েস্ট হিট বয়লার সংগ্রহ করা হচ্ছে। এতে ব‌্যয় হবে ৫৬ কোটি ৬৫ লাখ ৪১ হাজার টাকা।

সূত্র জানায়, বাংলাদেশ কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ করপোরেশনের (বিসিআইসি) অধীন যমুনা ফার্টিলাইজার কোম্পানি লিমিটেড (জেএফসিএল) বাংলাদেশের অন্যতম বৃহৎ ইউরিয়া সার উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান। ১৯৯১ সালে চালু হওয়ার পর থেকে কারখানাটিতে উৎপাদন অব্যাহত আছে। নির্মাণকালে কারখানার আয়ুষ্কাল ধরা হয়েছিল ২০ বছর। ৩০ বছর ধরে কারখানাটি চালু আছে। ফলে, অনেক গুরুত্বপূর্ণ যন্ত্রপাতির কার্যক্ষমতা কমেছে। এ কারণে বেশকিছু গুরুত্বপূর্ণ যন্ত্রাংশ পুনঃস্থাপন করা জরুরি হয়ে পড়েছে।

জেএফসিএলেরর অ্যামোনিয়া প্ল‌্যান্টের রিফর্মড গ্যাস ওয়েস্ট হিট বয়লার একটি সিঙ্গেল ট্রেনে স্থাপিত জটিল যন্ত্রাংশ। বয়লারের টিউবে লিকেজ দেখা দেওয়ায় মেরামত করে উৎপাদন অব্যাহত রাখা হয়েছে। টিউবে লিকেজের কারণে ইতোপূর্বে  চারবার কারখানাটি বন্ধ হয়েছিল। এর ফলে প্রতিবার ১৫ দিন করে ৬০ দিন উৎপাদন বন্ধ থাকায় প্রতিদিন প্রায় ২ কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে।

প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান মেসার্স বরসিগ প্রসেজ জিএমবিএইচ জেএফসিএলের জন্য রিফর্ম গ্যাস ওয়েস্ট বয়লারটি জাপানের মিৎসুবিসি হেভি ইন্ডাস্ট্রিজের মাধ্যমে সরবরাহ করেছে। প্রতিষ্ঠানটি গত ২০১৮ সালের ২৮ নভেম্বর জেএফসিএল কারখানা পরিদর্শন করে টিউবের বেসিক মেটারিয়াল লাইফ টাইম স্প্যান অতিক্রমের কারণে রিফর্মড গ্যাস ওয়েস্ট হিট বয়লারটি জরুরি ভিত্তিতে সম্পূর্ণ পুনঃস্থাপনের মতামত দেয়। এর ভিত্তিতে জেএফসিএল ও বিসিআইসি কারিগরিভাবে যাচাই-বাছাই করে বয়লারটি পুনঃস্থাপনের জন্য সুপারিশ করে। এরই পরিপ্রেক্ষিতে সরাসরি ক্রয় করার প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নেওয়া হয়।

নির্মাতা প্রতিষ্ঠানটি ইতোমধ্যে ২ বছরের এক্সেসরিজ বিনামূল্যে সরবরাহের বিষয়ে নিশ্চিত করেছে এবং ভবিষ্যতে মোট ক্রয় মূল্যের ১০ শতাংশ এক্সেসরিজ নির্ধারিত মূল্য পরিশোধের ভিত্তিতে সরবরাহ করার নিশ্চয়তা দিয়েছে।

জরুরি ভিত্তিতে রিফর্মড গ্যাস ওয়েস্ট হিট বয়লারটি কেনা সম্ভব না হলে কারখানার নিরবচ্ছিন্ন উৎপাদন অব্যাহত রাখা সম্ভব হবে না। তাছাড়া, পণ্যটি নদীপথে পরিবহন করা হবে বিধায় নদীর নাব্যতা বিবেচনায় প্রতিষ্ঠানটির সঙ্গে দ্রুত চুক্তি করা হলে বর্ষা মৌসুমে নদীপথে পণ্য পরিবহন সম্ভব হবে।

উৎপাদক প্রতিষ্ঠানের দেওয়া প্রাইসের অফার ভেলিডিটির মেয়াদ গত ৩১ জুলাই শেষ হয়েছে। তার আগেই সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি থেকে প্রয়োজনীয় অনুমোদন নেওয়া হয়েছে। এ বিষয়ে সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে। আশা করা হচ্ছে, চলতি বর্ষা মৌসুমেই রিফর্মড গ্যাস ওয়েস্ট হিট বয়লারটি দেশে পৌঁছাবে।

হাসনাত/রফিক

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়