RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     মঙ্গলবার   ০১ ডিসেম্বর ২০২০ ||  অগ্রাহায়ণ ১৭ ১৪২৭ ||  ১৩ রবিউস সানি ১৪৪২

পেসারদের নিয়ে নির্ভাবনা, ব্যাটসম্যানদের নিয়ে দুর্ভাবনা 

ক্রীড়া প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৮:৩৮, ২৬ অক্টোবর ২০২০  
পেসারদের নিয়ে নির্ভাবনা, ব্যাটসম্যানদের নিয়ে দুর্ভাবনা 

বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপ শেষে খুশি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। পেসারদের পারফরম্যান্সে রীতিমতো উচ্ছ্বসিত বোর্ড প্রধান। খুশি তরুণদের পারফরম্যান্সেও। তবে জাতীয় দলের নিয়মিত খেলোয়াড়রা তার মন ভরাতে পারেননি। কিন্তু আশাহত হচ্ছেন না। দীর্ঘদিন পর রঙিন পোশাকে ক্রিকেটাররা মাঠে নামায় মনোযোগে খানিকটা হেরফের হয়েছে। তবে সব পেছনে ফেলে টুর্নামেন্টকে সফল বলে দাবি করেছেন তিনি। 

বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপের ফাইনালের পর গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলেন নাজমুল। তার কথা শুনেছিল রাইজিংবিডি-ও: 

বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপ নিয়ে আপনার মূল্যায়ন!

নাজমুল: মাঠে ক্রিকেট ফেরানো ছিল বড় চ্যালেঞ্জ। সব সময় মনের ভেতর ভয় ছিল যে, এই টুর্নামেন্ট হতে গিয়ে যদি কোনও ছেলে আক্রান্ত হয় তখন কী হবে? দায় দায়িত্ব কে নেবে! এ জন্য জৈব সুরক্ষা বলয় মেনে চলার চেষ্টা করেছি। এর উদ্দেশ্য হলো আমাদের এখানে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট আনতে পারবো কি না, আমরা গিয়ে বাইরে খেলতে পারবো কি না। কারণ সব দেশে একই রকম নিয়ম থাকবে। ওদের খাপ খাওয়ানোর জন্য করেছি এটা। তিন দলই কাছাকাছি ছিল। তিন দলই ভালো ছিল। 

নিয়মিত যেসব খেলোয়াড়দের কাছে আমরা রান আশা করেছিলাম সেটা হয়নি। আবার মুশফিক তো রান করেছে। লিটন দাশ শেষ ম্যাচে গিয়ে রান পেয়েছে, ছন্দে ফিরেছে। ইতিবাচক দিক হলো নতুন অনেকে ভালো করছে। এই জন্য আমি কিছু পুরস্কার যুক্ত করেছি। কারণ যারা পুরস্কার পাচ্ছে তারা ভালো, কিন্তু এর বাইরেও কিছু খেলোয়াড় আছে যাদেরকে আমাদের পুরস্কৃত করা উচিত।

সবচেয়ে ভালো লেগেছে তাসকিনের ফেরার ধরন দেখে। একটা সময় ভেবেছিলাম, সে হয়ত আর জাতীয় দলে ফিরবেই না। কিন্তু ও খুব ভালো করেছে। রুবেল, যাকে নিয়ে আমরা কী করবো, কী করবো ভাবছি। কতদিন খেলবে কি খেলবে না, করছি। তখন রুবেল দারুণ বল করেছে। শুধু তাই নয়, সুমন খান নামের নতুন ছেলেটা দেখছি। ইবাদত ও আল-আমিন ভালো করেছে। বেশ কিছু খেলোয়াড় নিয়ে আমাদের যে সন্দেহ ছিল তা ভেঙে গেছে। তারা ফিরেছে।

নতুনদের মধ্যে কারও পারফরম্যান্স বিশেষ নজর কেড়েছে? 

নাজমুল: ইরফান শুক্কুর ধারাবাহিকভাবে রান করেছে। সব ম্যাচে খুব চাপের মধ্যে সে এসে পারফর্ম করেছে। তৌহিদ হৃদয়ও আছে। ও হয়তো আহামরি কিছু করেনি। কিন্তু জুটিতে থেকেছে। মুশফিকের সঙ্গে বলেন, ইরফানের সঙ্গে বলেন- সাপোর্ট দিয়ে গেছে। মাহাদী হাসান, ওকে আগে থেকেই চিনি। অলরাউন্ডার হিসেবে ওর ভালো সম্ভাবনা আছে। ব্যাটিংও করে, বলও ভালো করে। 

পেসারদের পারফরম্যান্সে নিশ্চয়ই খুশি?

নাজমুল: এই প্রথম একটা টুর্নামেন্ট দেখলাম, যেখানে পেসাররা ভালো করেছে। শরিফুল ভালো করেছে। তারা এখনই জাতীয় দলে আসবে, তা না। ওদেরকে যদি পরিচর্যা করতে পারি, তাহলে পেস বোলিংয়ে ভালো সম্ভাবনা আছে। আমাদের যারা ভালো আছে, তারা তো আছেই। নতুন আরও কিছু পেয়েছি। 

সামনেই পাঁচ দলের টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট। সাকিব এখন দেশের বাইরে। তিনি খেলতে পারবেন তো! 

নাজমুল: আমরা একটা টি-টোয়েন্টি করতে চাইছি। এটা ছিল তিন দলের। এখন হবে পাঁচ দলের। এখন পর্যন্ত আমাদের সিদ্ধান্ত, সব স্থানীয় খেলোয়াড় নিয়ে এটি আয়োজন করবো। পাঁচ দল নিয়ে করায় আরও বেশ কিছু ছেলে সুযোগ পাবে। আরও ৩০ জন আমাদের আসবে। এটা চ্যালেঞ্জিং হবে। আশা করছি ১৫ নভেম্বর এটা শুরু হবে।  

সাকিব চলে আসবে, ১০ তারিখের (নভেম্বরের) দিকেই চলে আসছে। টুর্নামেন্টের আগে তো বটেই। আরও আগেও হতে পারে। সে এক সপ্তাহ বা ১০ দিন আগে অবশ্যই আসবে। আমাদের এই টুর্নামেন্ট খেলবে এটা নিশ্চিত করেছে সে। এর মধ্যে ওর দলও হয়ে যাবে।

ঢাকা/ইয়াসিন/ফাহিম

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়