ঢাকা     সোমবার   ০৪ মার্চ ২০২৪ ||  ফাল্গুন ২০ ১৪৩০

ফেভারিটের প্রশ্নে কামিন্সের উত্তর,‘দুই দল সমান সমান’

ক্রীড়া প্রতিবেদক, আহমেদাবাদ থেকে || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৬:১২, ১৮ নভেম্বর ২০২৩   আপডেট: ১৬:১৬, ১৮ নভেম্বর ২০২৩
ফেভারিটের প্রশ্নে কামিন্সের উত্তর,‘দুই দল সমান সমান’

২৪ ঘণ্টাও বাকি নেই বিশ্বকাপ ফাইনালের। ক্রিকেট বিশ্বের সবচেয়ে বড় মাঠ নরেন্দ্র মোদি স্টেডিয়ামে রোববার বসছে বিশ্বকাপের ফাইনাল। যেখানে খেলবে স্বাগতিক ভারত ও অস্ট্রেলিয়া। ভারত টুর্নামেন্টে এখন পর্যন্ত অপরাজিত। একটু দেরিতে জয়ের ট্রেনে উঠা অস্ট্রেলিয়ার এক্সপ্রেসও এখন ছুটছে বেশ। পাঁচবারের চ্যাম্পিয়নদের তাই থামানো একটু কঠিনই বটে। 

কে ফেভারিট? এই প্রশ্নের উত্তরে ক্রিকেট বিশ্বও দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে যাচ্ছে। বিরাট কোহলির দুর্দান্ত ফর্মের সঙ্গে তুলনা করার নেই অস্ট্রেলিয়ার কোনো ব্যাটসম্যানের। বড্ড উঠানামা তাদের পারফরম্যান্স। সঙ্গে মোহাম্মদ শামির আগুনে বোলিংয়ের সঙ্গে তুলনীয় কেবল অ্যাডাম জাম্পার স্পিন ছোবল। ফাইনাল বলেই আলোচনায় আসছে অনেক কিছু। কে ফেভারিট। কার শক্তি বেশি। কার কম। 

তবে সেসব আলোচনায় কোনো আগ্রহ নেই অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক প্যাট কামিন্সের। সাফ জানালেন, ফাইনালে দুই দলের জন্য সুযোগ সমান-সমান। আহমেদাবাদে ফাইনাল পূর্ববর্তী সংবাদ সম্মেলনে কামিন্স বললেন, ‘ফেভারিট কে সেটা বলতে পারছি না। আমি মনে করি ম্যাচটা সমানে সমান আছে। দুই দলকেই সমানভাবে গোনায় ধরতে হবে।’

২০১৫ সালে অস্ট্রেলিয়া শেষ বিশ্বকাপ জিতেছিল। সেই দলের পাঁচজন এবারও রয়েছেন। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে ডেভিড ওয়ার্নার, স্টিভেন স্মিথ, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, মিচেল স্টার্ক, জস হ্যাজেলউড এবারও নামবেন। অতীতে বিশ্বকাপ জয়ের সুখস্মৃতি থাকায় এবং ফাইনালের মঞ্চে নামার অভিজ্ঞতা থাকায় অসিরা কিছুটা হলেও এগিয়ে থাকবে বলে বিশ্বাস কামিন্সের।।

অজি অধিনায়কের ভাষ্য,‘ভালো যে দিকটি তা হলো ছয়-সাতজন খেলোয়াড় আছে যারা ২০১৫ বিশ্বকাপ জিতেছিল। এজন্য আমরা বলতে পারি বিশ্বকাপ জেতার অনুভূতিটা কেমন। সঙ্গে বেশ কিছু খেলোয়াড় টি-টোয়েন্টি জিতেছিল। যদিও ফরম্যাটটা ভিন্ন। কিন্তু অনুভূতি তো একই। ১৫ জনে এক ডজন আছে সেই অনুভূতি পাওয়ার। এজন্য মাঠে গিয়ে ভয় পাওয়ার কিছু দেখি না। সাহসী থাকতে হবে এবং ম্যাচটা খেলতে হবে।’

ভারত এদিক থেকে একটু পিছিয়ে। ২০১৩ সালে তারা শেষ আইসিসি ইভেন্ট জিতেছিল। বিশ্বকাপ জিতেছে ২০১১ সালে। সেই দলের বিরাট কোহলি ও রবীচন্দ্রন অশ্বিন রয়েছেন এই দলে। তাদের অভিজ্ঞতাও ফাইনালে কাজে আসবে তা বলার অপেক্ষা রাখে না।  ২০০৩ বিশ্বকাপের ফাইনালে সবশেষ দুই দল মুখোমুখি হয়েছিল। সেবার অস্ট্রেলিয়ার কাছে পাত্তা পায়নি ভারত। লম্বা সময় পর ভারত সেই হারের বদলা নিতে পারে কিনা দেখার।

আহমেদাবাদ/ইয়াসিন/বিজয়

সম্পর্কিত বিষয়:

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়