ঢাকা     রোববার   ২৬ মে ২০২৪ ||  জ্যৈষ্ঠ ১২ ১৪৩১

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও নেই ইবাদত

ক্রীড়া প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৫:১০, ১১ এপ্রিল ২০২৪  
টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও নেই ইবাদত

ওয়ানডে বিশ্বকাপের পর এবার টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও খেলতে পারবেন না ইবাদত হোসেন। যুক্তরাষ্ট্র ও ওয়েস্ট ইন্ডিজে আগামী জুনে বসবে টি-টোয়েন্টি ওয়ার্ল্ড কাপ। এর আগে এই ডানহাতি পেসারের ফিট হওয়ার সম্ভাবনা নেই। 

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরী রাইজিংবিডি-কে এ খবর নিশ্চিত করেছেন। যদিও ইবাদত কিছুদিন আগে জানিয়েছিলেন, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ফিরতে চান তিনি। এজন্য পুনর্বাসনের অংশ হিসেবে কেবল অ্যাকশন বোলিং শুরু করেছিলেন। 

গত বছরের জুলাইয়ে আফগানিস্তানের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে বাম পায়ে চোট পেয়েছিলেন ইবাদত। অ্যান্টেরিয়র ক্রুসিয়েট লিগামেন্টের (এসিএল) চোটে পড়েছিলেন। প্রাথমিক পর্যবেক্ষণের পর জানানো হয়েছিল, চোট গুরুতর নয়। এর পর চলছিল তার পুনর্বাসন প্রক্রিয়া। কিন্তু, পুনর্বাসনে ভালো ফিডব‌্যাক না দেওয়ায় তাকে পাঠানো হয় লন্ডনে।

সেখানে গত ৩০ আগস্ট ক্রমওয়েল হাসপাতালে অস্ত্রোপচার হয় ইবাদতের। বলা হয়েছিল, পুনর্বাসনের জন্য কমপক্ষে ছয় মাস সময় লাগতে পারে। ফলে, বিশ্বকাপ এবং বিপিএল থেকে ছিটকে যান। 

গত ১৩ জানুয়ারি তার পুনর্বাসন প্রক্রিয়া শেষ হয়। বিসিবি একাডেমিতে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে খেলার ইচ্ছার কথা জানিয়ে ইবাদত বলেছিলেন, ‘আমি তো আশা করছি, বিশ্বকাপের আগেই ফিরব, ইনশাআল্লাহ। সবচেয়ে বড় জিনিস হচ্ছে, যেভাবে মেডিক্যাল বিভাগ সাপোর্ট দিচ্ছে এবং রিহ্যাবটা খুব ভালো করছি। স্ট্রেন্থ ফিরে পাচ্ছি। আশা করি, সামনে ভালো কিছুই হবে।’ 

কিন্তু, তার সেই আশা আপাতত পূরণ হচ্ছে না। কারণ, পুরোপুরি ফিট ইবাদতকে পেতে আরো সময় লাগবে। দেবাশীষ চৌধুরী বলেছেন, ‘আমরা ইবাদতকে বিশ্বকাপে খেলার কথা চিন্তাও করছি না। কোনো সুযোগ নেই। তার জন্য নির্দিষ্ট টাইমফ্রেম দেওয়া আছে। ৮ থেকে ১২ মাস লাগবে। অন্তত ১০ মাস তাকে পুনর্বাসনে থাকতেই হবে। অক্টোবর থেকে শুরু করে ডিসেম্বর, এই সময়টা লাগবে। এরপর তার ফেরার প্রক্রিয়া। হয়ত কিছু সময় আগে সে ফিরবে। কিন্তু, বিশ্বকাপে কোনো সুযোগ দেখছি না।’

পরপর দুটি বিশ্বকাপ এবং একটি এশিয়া কাপ মিস হয়ে গেল ইবাদতের। ইনজুরির কারণে শুধু জাতীয় দলের হয়ে ম্যাচই নয়, আর্থিক ক্ষতিরও সম্মুখীন ডানহাতি পেসার। মাঠে নেই বলে বিসিবি তাকে এবার কেন্দ্রীয় চুক্তিতে রাখেনি। তবে, তাকে চোখের আড়াল করেনি একদমই। দ্রুতগতির বোলার কেন্দ্রীয় চুক্তিতে না থাকলেও তাকে ডি ক্যাটাগরি বেতন প্রতি মাসে দেওয়া হচ্ছে। 

ইয়াসিন/রফিক

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়