ঢাকা     শুক্রবার   ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ ||  আশ্বিন ৩ ১৪২৭ ||  ২৯ মহরম ১৪৪২

ওয়ালটন ফ্রিজ কিনে মিলিয়নিয়ার হলেন নাটোরের ইউপি সদস্য

|| রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ০৮:২০, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯   আপডেট: ০৫:২২, ৩১ আগস্ট ২০২০
ওয়ালটন ফ্রিজ কিনে মিলিয়নিয়ার হলেন নাটোরের ইউপি সদস্য

ওয়ালটনের পক্ষ থেকে ইউপি সদস্য ছায়েদ আলীর হাতে ১০ লাখ টাকার চেক তুলে দেয়া হয়

এম মাহফুজুর রহমান : পরিবারের জন্য ১১ সিএফটির একটি ওয়ালটন রেফ্রিজারেটর কিনেছিলেন ছায়েদ আলী। তিনি নাটোরের গুরুদাসপুর উপজেলার ধারাবারিষা ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সদস্য। ২৭ হাজার ৪০০ টাকা দামের ওই ফ্রিজ কিনে ১০ লাখ টাকা পেয়েছেন তিনি। এলাকার সবার কাছে এখন তার নতুন পরিচিতি ‘মিলিয়নিয়ার ছায়েদ’। অপ্রত্যাশিত অর্থ সমাগমে তার পরিবারেও বইছে খুশির বন্যা।

চলমান ডিজিটাল ক্যাম্পেইন সিজন-ফোরের আওতায় ফ্রিজ ক্রেতাদের এ সুযোগ দিচ্ছে বাংলাদেশি মাল্টিন্যাশনাল ব্র্যান্ড ওয়ালটন। যেকোনো মডেলের ওয়ালটন রেফ্রিজারেটর কিংবা ফ্রিজার কিনে রেজিস্ট্রেশন করলেই ক্রেতারা প্রতিদিনই পেতে পারেন ১০ লাখ টাকা। রয়েছে ১ লাখ টাকাসহ বিভিন্ন অঙ্কের নিশ্চিত ক্যাশ ভাউচার কিংবা ফ্রিজ, টিভিসহ বিভিন্ন পণ্য ফ্রি পাওয়ার সুযোগ। এসব সুবিধা থাকছে ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত।

জানা গেছে, ১ আগস্ট স্থানীয় চাঁচকৈর বাজারের ওয়ালটন প্লাজা থেকে ফ্রিজটি কেনেন ছায়েদ আলী। এরপর ডিজিটাল ক্যাম্পেইনের আওতায় ফ্রিজটি রেজিস্ট্রেশন করেন। কিছুক্ষণের মধ্যেই তার মোবাইল ফোনে ১০ লাখ টাকা পাওয়ার মেসেজ যায়।

১৫ সেপ্টেম্বর আনুষ্ঠানিকভাবে ছায়েদ আলীর হাতে ১০ লাখ টাকা হস্তান্তর করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন গুরুদাসপুর উপজেলা চেয়ারম্যান মো. আনোয়ার হোসেন, উপজেলা নারী ভাইস চেয়ারম্যান রোকসানা আক্তার, গুরুদাসপুর থানার ওসি মোজাহারুল ইসলাম, স্থানীয় সংবাদপত্র দৈনিক দিবারাত্রির সম্পাদক আতাহার হোসেন, ওয়ালটনের এরিয়া ম্যানেজার আক্তার হাবিব খান শূর এবং ওয়ালটন প্লাজার ম্যানেজার কুমার অভিজিৎ গৌরসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

অনুষ্ঠানে ছায়েদ আলী বলেন, ওয়ালটন পণ্য আমাদের এলাকায় অনেক জনপ্রিয়। আমিও সব সময় ওয়ালটনের পণ্য কিনি। এর আগে ওয়ালটনের টেলিভিশন কিনেছি। খুব ভালো সার্ভিস দিচ্ছে। সেজন্য পরিবারের ব্যবহৃত ফ্রিজটি কেনার ক্ষেত্রেও দ্বিতীয় কোনো চিন্তা করি নাই। সোজা চলে গেছি ওয়ালটনের শোরুমে। এরপর যখন ১০ লাখ টাকা পাওয়ার মেসেজ পেলাম, তখন প্রথমে বিশ্বাস হয়নি। পরে প্লাজার কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলাপ করে নিশ্চিত হই। ওয়ালটন কর্তৃপক্ষের প্রতি আমি কৃতজ্ঞ। তাদের ধন্যবাদ।

ছায়েদ আলী জানান, ইউপি সদস্য হলেও কৃষিকাজ করে সংসার চালান তিনি। তিন বছর আগে নির্বাচনের সময় ঋণ নিয়েছিলেন। ফ্রিজ কিনে পাওয়া ১০ লাখ টাকা থেকে ওই ঋণ পরিশোধ করবেন। বাকি টাকায় জমি লিজ নিয়ে চাষাবাদ করবেন।

উল্লেখ্য, অনলাইনে দ্রুত বিক্রয়োত্তর সেবা নিশ্চিত করতে কাস্টমার ডাটাবেজ তৈরি করছে ওয়ালটন। সেজন্য তারা সারা দেশে চালাচ্ছে ডিজিটাল ক্যাম্পেইন। ওই ক্যাম্পেইনে ক্রেতাদের উদ্বুদ্ধ করতে ওয়ালটন ঘোষণা করেছে ‘কে হবেন আজকের মিলিয়নিয়ার’ শীর্ষক সুবিধা। এর আওতায় ক্রেতাদের ১০ লাখ টাকাসহ নিশ্চিত ক্যাশ ভাউচার এবং ফ্রি পণ্য দেয়া হচ্ছে।


ঢাকা/এম মাহফুজুর রহমান/রফিক

রাইজিংবিডি.কম

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়