ঢাকা, রবিবার, ৬ শ্রাবণ ১৪২৬, ২১ জুলাই ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

অবৈধ ব্যবহৃত পাজারো গাড়ি দিয়ে গেল পিডিবি!

এম এ রহমান : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০২-১২ ২:৫৪:০৭ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০২-১২ ৫:১০:১৪ পিএম
অবৈধ ব্যবহৃত পাজারো গাড়ি দিয়ে গেল পিডিবি!
Voice Control HD Smart LED

নিজস্ব প্রতিবেদক : এবার বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের অবসরপ্রাপ্ত সহকারী হিসাবরক্ষক ও সিবিএ সভাপতি জহিরুল ইসলাম চৌধুরীর ব্যবহৃত অপর একটি পাজারো গাড়ি নিজ উদ্যোগে জমা দিল সংস্থাটি।

জহিরুল ইসলাম চৌধুরী প্রায় ১০ বছর ধরে ব্যবহার করে আসছিল গাড়িটি। তিনিও অবসরপ্রাপ্ত স্টেনো টাইপিস্ট ও সিবিএর প্রাক্তন সাধারণ সম্পাদক আলাউদ্দিন মিয়ার মতো অবসরে যাওয়ার পরও ব্যবহার করে আসছিলেন।

মঙ্গলবার সকালে পিডিবি কর্তৃপক্ষ নিজ উদ্যোগে সিলেট মেট্রো-ঘ-০২-০০৩৩ পাজারো গাড়িটি দুদকের প্রধান কার্যালয়ে জমা দিয়ে যান। এ সময় গাড়ির চালক ফিরোজ গাড়িটি চালিয়ে দুদকে আসেন।

দুদকের মহাপরিচালক মোহাম্মদ মুনীর চৌধুরী রাইজিংবিডিকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

দুদক জানায়, যথারীতি তেল ও রক্ষণাবেক্ষণ খরচ বহন করছে পিডিবি। জাতীয় বিদ্যুৎ শ্রমিক লীগের (বি-১৯০২)  বর্তমান সভাপতি জহিরুল ইসলাম চৌধুরী। তিনি ২০১৮ সালের ৬ জুন অবসরে যান। এ সময় তিনি পিডিবির অডিট পরিদপ্তরের সহকারী হিসাবরক্ষক হিসেবে কর্মরত ছিলেন। এ বিষয়ে তার বিরুদ্ধে পিডিবি চেয়ারম্যান প্রকৌশলী খালেদ মাহমুদের কাছে লিখিত অভিযোগ করলেও কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি বলে জানা গেছে।
 


গতকাল সোমবার পিডিপির স্টেনো টাইপিস্ট ও সিবিএর প্রাক্তন সাধারণ সম্পাদক আলাউদ্দিন মিয়ার প্রায় ১০ বছর ধরে ব্যবহৃত সরকারের একটি পাজারো গাড়ি উদ্ধার করে দুদকের বিশেষ টিম। রাজধানীর মতিঝিল এলাকা থেকে দুদকের অ্যানফোর্সমেন্টের একটি টিম গাড়িটি উদ্ধার করে। দুদকের সহকারী পরিচালক সালাউদ্দিন আহমেদের নেতৃত্বে পাঁচ সদস্যের একটি টিম অভিযান পরিচালনা করে।

আলাউদ্দিন মিয়া ২০১৭ সালের আগস্টে অবসরে যান। তিনি তখন পিডিবির নকশা ও পরিদর্শন পরিদপ্তরের স্টেনো টাইপিস্ট পদে ছিলেন। গত আগস্টে তার অবসরোত্তর ছুটির (পিআরএল) সময়সীমাও শেষ হয়েছে।

আলাউদ্দিন মিয়া পিডিবির সিবিএর প্রাক্তন সাধারণ সম্পাদক ছিলেন বলে জানিয়েছেন দুদকের মহাপরিচালক মোহাম্মদ মুনীর চৌধুরী। তিনি সাংবাদিকদের জানান, একটি অভিযোগের ভিত্তিতে ওই গাড়িটি উদ্ধার করা হয়। গাড়ি উদ্ধারের সময় এর চালক ছাড়া কেউ ছিলেন না। চালকের বক্তব্য রেকর্ড করে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়। গাড়িটি পিডিবির নামে বরাদ্দ থাকলেও ওই কর্মচারী কোনোভাবেই ব্যবহার করতে পারেন না। তারপরও তিনি ২০১৭ সালে অবসরে গেছেন। গাড়িটির পেছনে প্রতি মাসে ৪৫০ লিটার তেল ব্যবহার হয়েছে; নয় বছরে তেল বাবদ ৩৫ লাখ টাকার বেশি অর্থ ব্যয় হয়েছে। এছাড়া এই সময়ে ৩৭ লাখ টাকা গাড়ির চালকের বেতন বাবদ ব্যয় হয়েছে।

তৃতীয় শ্রেণীর একজন কর্মচারীর নামে গাড়িটি কীভাবে বরাদ্দ দেওয়া হলো, এর সাথে পিডিবি বা অন্য কোনো অফিসের যারা জড়িত তা অনুসন্ধানের মাধ্যমে বেরিয়ে আসবে। তখন সেই অনুসন্ধানের ভিত্তিতে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও মুনীর চৌধুরী জানিয়েছিলেন।

দুদকের সচিব দিলোওয়ার বখ্ত সাংবাদিকদের বলেন, আলাউদ্দিন মিয়ার ব্যবহার করা গাড়িটি পিডিবির কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। গাড়িটি যেন যথাযথ ব্যবহার করা হয় সেই বিষয়ে তাদেরকে বলা হয়েছে।

এক প্রশ্নের জবাবে দুদক সচিব বলেন, নিয়ম বহির্ভূতভাবে আরো যারা সরকারি গাড়ি ব্যবহার করছে সে বিষয়ে অভিযোগ পাওয়া গেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 





রাইজিংবিডি/ঢাকা/১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯/এম এ রহমান/সাইফ

Walton AC
ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন
       

Walton AC
Marcel Fridge