ঢাকা, শনিবার, ১২ ফাল্গুন ১৪২৪, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮
Risingbd
অমর একুশে
সর্বশেষ:

রফিকুল ইসলাম মিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

মামুন খান : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৮-০১-২২ ৪:৩১:২৪ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০১-২২ ৬:৪৮:২৫ পিএম

নিজস্ব প্রতিবেদক : সম্পদের হিসাব দাখিল না করার মামলায় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত।

সোমবার ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৬ এর বিচারক কে এম ইমরুল কায়েস এ পরোয়ানা জারি করেন।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, সোমবার মামলাটি সাক্ষ্যগ্রহণের জন্য ধার্য ছিল। এ দিন মামলার চার সাক্ষী দুদকের পরিচালক অবসরপ্রাপ্ত  আবু তোরাব, দুদক পরিচালক শিরীন পারভীন, উপ-পরিচালক গোলাম শাহরিয়ার চৌধুরী, অবসরপ্রাপ্ত দুদক কর্মকর্তা সৈয়দ লিয়াকত হোসেন সাক্ষ্য প্রদান করেন।

কিন্তু এ দিন রফিকুল ইসলাম মিয়া অসুস্থতার কারণে আদালতে হাজির হতে পারেননি। এজন্য তার পক্ষের সময়ের আবেদন করেন তার আইনজীবী। দুদকের আইনজীবীরা সময় আবেদনের বিরোধিতা করেন।

উভয়পক্ষের শুনানি শেষে আদালত সময়ের আবেদন নামঞ্জুর করে তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন।

প্রসঙ্গত, ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়ার বিরুদ্ধে জ্ঞাত আয়-বহির্ভূত সম্পদ অর্জন সংক্রান্ত  অভিযোগ পায় তৎকালীন দুর্নীতি দমন ব্যুরো। নিজে নামে এবং তার ওপর নির্ভরশীল ব্যক্তিবর্গের স্বনামে/বেনামে অর্জিত যাবতীয় স্থাবর/অস্থাবর সম্পদের হিসাব বিবরণী দাখিল করতে ২০০১ সালের ৭ এপ্রিল নোটিশ জারি করে দুর্নীতি দমন ব্যুরো। ১০ জুনের মধ্যে বিবরণী দাখিল করতে বলা হলেও তিনি তা করেননি। ওই অভিযোগে ২০১৪ সালের ১৫ জানুয়ারি দুদক কর্মকর্তা সৈয়দ লিয়াকত হোসেন উত্তরা থানায় মামলাটি দায়ের করেন। ওই বছরের ৩০ নভেম্বর তার বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়। ২০১৪ সালের ১১ নভেম্বর রফিকুল ইসলাম মিয়ার বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন আদালত।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/২২ জানুয়ারি ২০১৭/মামুন খান/মুশফিক

Walton
 
   
Marcel