ঢাকা, বুধবার, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ২২ মে ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

অবিশ্বাস্য ব্যাটিং হংকংয়ের, ম্যাচ জিতল ভারত

ইয়াসিন : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৮-০৯-১৯ ১:৫৩:১৬ এএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০৯-১৯ ১১:১৩:০৮ এএম
Walton AC

ক্রীড়া ডেস্ক: এশিয়া কাপের মঞ্চে ভারতকে হারানোর সুযোগ তৈরি করেছিল হংকং। ভারতকে রীতিমত ভয় দেখিয়েছিল তারা। কিন্তু অনভিজ্ঞতায় অঘটন ঘটাতে পারল না আইসিসির সহযোগী দলটি। শেষ হাসিটা হাসে দুইবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরাই।

একটা সময়ে জয়ের পাল্লা ভারী ছিল হংকংয়ের। রাতের অন্ধকারের চেয়েও বেশি অন্ধকার ছিল ভারতীয় খেলোয়াড়ের চোখে-মুখে। রাজ্যের চাপে বিমর্ষ লাগছিল রোহিত শর্মা, মাহেন্দ্র সিং ধোনি, আম্বাতি রাইডুদের। গুমোট পরিবেশ পুরো ড্রেসিং রুমে। কোচ রবী শাস্ত্রীও পায়চারি করছিলেন ডাগ-আউটে। হংকং যে এমন ভয় দেখাবে তা কেউ ভাবতেও পারেনি। কিন্তু কালো মেঘ দূর করে আলোর মুখ দেখে ভারত। বোলাররা ভারতকে দেয় কাঙ্খিত জয়। অঘটনের হাত থেকে বাঁচায় ভারতকে। 

দুবাই ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস জিতে ভারতকে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ জানায় হংকং। শেখর ধাওয়ানের সেঞ্চুরিতে ভর করে ৭ উইকেটে ২৮৫ রানের পুঁজি পায় ভারত। জবাবে প্রতিদ্বন্দ্বীতা গড়েছিল হংকং। কিন্তু শেষ হাসিটা হাসতে পারেনি তারা। ৮ উইকেটে ২৫৯ রানে থামে তাদের ইনিংস। ২৬ রানের জয়ে এক ম্যাচ হাতে রেখেই সুপার ফোর নিশ্চিত করেছে ভারত। দুই ম্যাচ হারে এশিয়া কাপ থেকে বিদায় নিয়েছে হংকং।

২৮৬ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে উদ্বোধনী জুটিতে ১৭৪ রান পায় হংকং। ওয়ানডে ইতিহাসে যেকোনো উইকেটে যা তাদের সর্বোচ্চ সংগ্রহ। দুই উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান নিঝাকাত খান ও আঞ্জুমান রাত ভারতীয় বোলারদের কড়া শাসন করেন। তাদের দৃঢ়তায় জয়ের পথে গুটিগুটি পায়ে এগিয়ে যায় হংকং। কিন্তু উদ্বোধনী জুটি ভাঙার পরই পথ হারায় বাছাই পর্ব পেরিয়ে আসা দলটি।

৩৫তম ওভারে ভারতকে ব্রেক থ্রু এনে দেন কুলদ্বীপ যাদব। হংকংয়ের অধিনায়ক আঞ্জুমান কভারে রোহিত শর্মার হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন ৭৩ রানে। ১৭৪ রানে প্রথম উইকেট হারানোর পর ২৫ রান যোগ করতেই আরও ৩ উইকেট হারায় তারা। হংকং শিবিরে সবথেকে বড় ধাক্কাটা দেন অভিষিক্ত পেসার খলিল। বাঁহাতি এ পেসারের ক্রস সিম ডেলিভারীতে এলবিডব্লিউ হন  নিঝাকাত। ১১৫ বলে ১২ চার ও ১ ছক্কায় ৯২ রান করেন ডানহাতি ওপেনার।

খলিলের দ্বিতীয় শিকারে পরিণত হন কার্টার। তার কাটারে উইকেটের পিছনে ক্যাচ দেন ৩ রান করা কার্টার। পরের তিনটি উইকেট নেন যুজুবেন্দ্র চাহাল। ১ চার ও ২ ছক্কায় ১৮ রান করা বাবরকে ফিরিয়ে প্রথম উইকেটের স্বাদ পান চাহাল। কোটার শেষ ওভারে চাহালের শিকার কিঞ্চিত শাহ (১৭) ও আইজাজ খান (০)।

শুরুটা দুর্দান্ত হলেও মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় জয়ের পথ থেকে ছিটকে যায় হংকং। দ্রুত উইকেট হারিয়ে লক্ষ্য কঠিন বানিয়ে ফেলে তারা। শেষ পর্যন্ত ২৬ রানের আক্ষেপে পুড়তে হয় তাদেরকে।

ভারতের হয়ে বল হাতে ৩টি করে উইকেট নেন চাহাল ও খলিল। ২টি উইকেট নেন কুলদ্বীপ যাদব।

এর আগে প্রথমে ব্যাটিংয়ে সুযোগ পেয়েও বড় স্কোর গড়তে ব্যর্থ ভারত। মিডল অর্ডার ও লোয়ার অর্ডার ব্যাটসম্যানরা কেউই রান পাননি। টপ অর্ডারের চার ব্যাটসম্যানে ভর করে লড়াকু পুঁজি পায় টিম ইন্ডিয়া।

সর্বোচ্চ ১২৭ রান করেন ওপেনার শেখর ধাওয়ান। ক্যারিয়ারে ১৪তম সেঞ্চুরির স্বাদ পান বাঁহাতি ওপেনার। ওপেনিংয়ে তার সঙ্গে ৪৫ রানের জুটি গড়েন অধিনায়ক রোহিত শর্মা। ২৩ রান করা রোহিতকে ফিরিয়ে জুটি ভাঙেন এহসান খান। দ্বিতীয় উইকেটে ১১৬ রান যোগ করেন ধাওয়ান ও রাইডু। এ সময়ে দুজনই হাফসেঞ্চুরি তুলে নেন ।

ম্যাচসেরা নির্বাচিত হওয়া ধাওয়ান তিন অঙ্কের দেখা পেলেও রাইডু সাজঘরে ফেরেন ৬০ রানে। মিডিয়াম পেসার এহসান নেওয়াজের বলে উইকেটের পিছনে ক্যাচ দেন ৭০ বলে ৬০ রান করা রাইডু। সেঞ্চুরির পর ধাওয়ান আক্রমণাত্মক ব্যাটিং করে দ্রুত রান তোলেন। কিন্তু বেশদূর যেতে পারেনি। ২৭ রান যোগ করে ফেরেন কিঞ্চিত শাহর বলে। ১২০ বলে ১৫ চার ও ২ ছক্কায় সাজান ইনিংসটি।

এরপর দিনেশ কার্তিকের ৩৩ ও কেদার যাদবের ২৮ রানের মান রক্ষা হয় ভারতের। মাহেন্দ্র সিং ধোনি রানের খাতা খুলতে ব্যর্থ হন। হংকংয়ের সেরা বোলার কিঞ্চিত শাহ। ৩৯ রানে ৩ উইকেট নেন ডানহাতি স্পিনার।

শূন্য হাতে এশিয়া কাপ থেকে বিদায় নিল হংকং। তবে আজকের ম্যাচে ভারতকে যে ভয় তারা দেখিয়েছিল তা ক্রিকেটপ্রেমিদের মনে থাকবে দীর্ঘদিন। বুধবার ভারত আবারও মাঠে নামছে। দুবাইয়ে তাদের প্রতিপক্ষ পাকিস্তান।

 

 

রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮/ইয়াসিন

Walton Laptop
     
Walton AC
Marcel Fridge