Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     মঙ্গলবার   ০২ মার্চ ২০২১ ||  ফাল্গুন ১৭ ১৪২৭ ||  ১৭ রজব ১৪৪২

যুক্তরাষ্ট্রে সতর্কতা: ক্যাপিটল হিলে গাড়ি ভর্তি আগ্নেয়াস্ত্রসহ গ্রেপ্তার ১

ছাবেদ সাথী, নিজস্ব প্রতিবেদক, যুক্তরাষ্ট্র || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ০৭:২৫, ১৭ জানুয়ারি ২০২১   আপডেট: ০৯:০৮, ১৭ জানুয়ারি ২০২১
যুক্তরাষ্ট্রে সতর্কতা: ক্যাপিটল হিলে গাড়ি ভর্তি আগ্নেয়াস্ত্রসহ গ্রেপ্তার ১

নবনির্বাচিত মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের শপথ গ্রহণ বা উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগদান সংক্রান্ত ‘অননুমোদিত’ প্রশংসাপত্র নিয়ে ওয়াশিংটন ডিসি'র ক্যাপিটল হিলে পুলিশের সুরক্ষা চৌকি পার হবার সময় ভার্জিনিয়ার বাসিন্দা ওয়েসলি অ্যালেন বিলারকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তারের সময় পুলিশ তার কাছ থেকে বেশ কয়েকটি গুলিভর্তি হাতবন্দুক ও ৫০০ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করেছে।

ইউনাইটেড স্টেটস ক্যাপিটল পুলিশ (ইউএসসিপি) কমিউনিকেশনসের পরিচালক ইভা মালেক্কি জানান, স্থানীয় সময় শুক্রবার (১৫ জানুয়ারি) সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টার দিকে ক্যাপিটল পুলিশ ভার্জিনিয়ার ফ্রন্ট রয়্যালের বাসিন্দা ৩১ বছর বয়সী ওয়েসলি অ্যালেন বিলারকে উত্তর ক্যাপিটল স্ট্রিট এবং ইস্ট স্ট্রিট উত্তর-পূর্ব ধারে রাষ্ট্রপতির উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের জন্য স্থাপন করা একটি সুরক্ষা চৌকিতে থামিয়েছিল। গাড়ি নিয়ে পুলিশের সুরক্ষা চৌকি পার হবার সময় পুলিশ তল্লাশি চালালে সে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগদান সংক্রান্ত ‘অননুমোদিত’ প্রশংসাপত্র উপস্থাপন করে। পুলিশ কর্মকর্তারা তার গাড়ির ভেতরে অনিবন্ধিত বেশ কয়েকটি আগ্নেয়াস্ত্র ও ৫০০ রাউন্ড গুলি খুঁজে পান। এসব আগ্নেয়াস্ত্রের মধ্যে রয়েছে ভারি লোড গ্লোক ১৭ জেন ৪ হ্যান্ডগান, ৫০৯ রাউন্ড গোলাবারুদ, ২১-১২ গেজ শটগান শেল, একটি ১৭ রাউন্ডের ব্লক এবং ১৭ ম্যাগজিন উদ্ধার করেছে। পুলিশ বিলারকে গ্রেপ্তারের পর ইউএসসিপি সদর দপ্তরে নিয়ে যায়।

এদিকে,  জো বাইডেনের প্রেসিডেন্ট হিসেবে অভিষেককে সামনে রেখে সহিংস বিক্ষোভের শঙ্কায় যুক্তরাষ্ট্রের ৫০টি রাজ্যের সবগুলো ও ডিস্ট্রিক্ট অব কলম্বিয়ায় সতর্কতা জারি করা হয়েছে।

আগামী বুধবার যুক্তরাষ্ট্রের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের শপথ অনুষ্ঠানের আগে রোববার দেশজুড়ে সশস্ত্র প্রতিবাদ হতে পারে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

বাইডেনের অভিষেক অনুষ্ঠান সামনে রেখে সারা দেশ থেকে ন্যাশনাল গার্ডের সদস্যদের রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসিতে পাঠানো হচ্ছে। গত ৬ জানুয়ারি ট্রাম্প সমর্থকদের ক্যাপিটল ভবনে হামলার মতো প্রাণঘাতী ঘটনার পুনারাবৃত্তি রোধে এ পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

ওই দিন নির্বাচনে বাইডেনের জয়ের স্বীকৃতির জন্য যুক্তরাষ্ট্র কংগ্রেসে যৌথ অধিবেশন চলার মধ্যে ক্যাপিটল ভবনে হামলা চালান ট্রাম্পের কয়েকশ’ সমর্থক। আগ্রাসী বিক্ষোভকারীদের তাণ্ডবে হতবিহ্বল হয়ে পড়েন যুক্তরাষ্ট্রের আইনপ্রণেতারা। কয়েক ঘণ্টার জন্য অবরুদ্ধ হয়ে পড়ে ক্যাপিটল ভবন। পরে লাঠিপেটা ও কাঁদুনে গ্যাস ব্যবহার করে পুলিশ ভবন থেকে বিক্ষোভকারীদের সরালে পুনরায় অধিবেশন শুরু হয়।

ওই ঘটনায় একজন পুলিশ সদস্যসহ পাঁচজন নিহত হন। এর জেরে যুক্তরাষ্ট্র কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদ ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ‘বিদ্রোহে উসকানি’ দেওয়ার অভিযোগ এনে তাকে অভিশংসিত করে। এ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম কোনো প্রেসিডেন্ট হিসেবে দ্বিতীয় দফায় প্রতিনিধি পরিষদে অভিশংসিত হন ট্রাম্প।

এখন বাইডেনের অভিষেক সামনে রেখে ট্রাম্প সমর্থকরা যুক্তরাষ্ট্রের সব রাজ্যের রাজধানীতে সশস্ত্র মিছিল নিয়ে নামতে পারে বলে সতর্ক করেছে যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (এফবিআই)।

এই প্রেক্ষাপটে ওয়াশিংটন ডিসির ন্যাশনাল মল বন্ধ রাখা হয়েছে। রাজধানীর সড়কগুলোতে ব্যারিকেড বসিয়ে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে।

ইতোমধ্যে বাইডেনের টিম যু্ক্তরাষ্ট্রবাসীকে কোভিড-১৯ মহামারির মধ্যে রাজধানীতে না আসার আহ্বান জানিয়েছে। ওয়াশিংটন ডিসির মেয়রসহ স্থানীয় কর্মকর্তারা জনগণকে নতুন প্রেসিডেন্টের অভিষেক অনুষ্ঠান দূর থেকে দেখার পরামর্শ দিয়েছেন।

অনলাইনে ট্রাম্পপন্থী ও কট্টর ডানপন্থী নেটওয়ার্কগুলোর করা পোস্টে ১৭ জানুয়ারি সশস্ত্র বিক্ষোভ এবং অভিষেকের দিন ২০ জানুয়ারি ওয়াশিংটন ডিসি অভিমুখে যাত্রার ডাক দেওয়া হয়েছে।

এদিকে ওই সব কর্মসূচির ডাক পুলিশের ফাঁদ হতে পারে এবং কঠোর নিরাপত্তার বিষয়টি উল্লেখ করে কয়েকটি সশস্ত্র গোষ্ঠী অনুসারীদের এগুলোতে অংশ নেওয়া থেকে বিরত থাকতে বলেছে।

তবে ওই পোস্টকে গুরুত্ব দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের রাজ্যগুলোতে পূর্ব সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। মেরিল্যান্ড, নিউ মেক্সিকো ও উটাহ রাজ্যের গভর্নররা জরুরি অবস্থা জারি করেছেন।

ক্যালিফোর্নিয়া, পেনসিলভেইনিয়া, মিশিগান, ভার্জিনিয়া, ওয়াশিংটন ও উইসকনসিনসহ অনেক রাজ্যে পরিস্থিতি মোকাবেলায় ন্যাশনাল গার্ড সদস্যদের মোতায়েন করছে। টেক্সাস শনিবার থেকে বাইডেনের অভিষেক পর পর্যন্ত রাজ্য ক্যাপিটল বন্ধ রাখছে। টেক্সাসের জননিরাপত্তা বিভাগের পরিচালক বলেছেন, বিক্ষোভকারীদের মধ্যে ‘সহিংস উগ্রপন্থিরা’ ঢুকে যেতে পারে বলে গোয়েন্দারা মনে করছেন।

ভার্জিনিয়ার গভর্নর রালফ নরথাম বৃহস্পতিবার এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, ‘মনে খারাপ উদ্দেশ্য নিয়ে আপনি যদি এখানে আসার বা ওয়াশিংটনে যাওয়ার চিন্তা করেন তাহলে এখনই তা বাদ দিয়ে ঘরে ফেরেন। আপনাকে এখানে স্বাগত জানানো হবে না এবং আপনাকে আমাদের দেশের রাজধানীতেও স্বাগত জানানো হবে না। আপনি যদি এখানে চলেই আসেন এবং আপনার কাজ করেন, তাহলে তা মোকাবেলায় ভার্জিনিয়া প্রস্তুত।’

ঢাকা/আমিনুল

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়