ঢাকা     শুক্রবার   ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ ||  আশ্বিন ১০ ১৪২৭ ||  ০৭ সফর ১৪৪২

বুকারজয়ী উপন্যাস ‘দ্য ডিসকমফোর্ট অব ইভিনিং’

সাইফ বরকতুল্লাহ || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৩:৪৬, ২৮ আগস্ট ২০২০   আপডেট: ১৭:১০, ২৮ আগস্ট ২০২০
বুকারজয়ী উপন্যাস ‘দ্য ডিসকমফোর্ট অব ইভিনিং’

‘দ্য ডিসকমফোর্ট অব ইভিনিং` গ্রন্থের প্রচ্ছদ

২০২০ সালের বুকার আন্তর্জাতিক পুরস্কার পেলেন নেদারল্যান্ডের তরুণ লেখক মেরিকে লুকাস রিজনভেল্ড। তার উপন্যাসের নাম ‘দ্য ডিসকমফোর্ট অব ইভিনিং'।

দশ বছরের বালিকা জস। তার ভাই ম্যাথিস একদিন আইসস্কেটিংয়ে যায়। কিন্তু জসকে না নিয়ে যাওয়ায় প্রচণ্ড ক্ষেপে যায় জস। রাগে ক্ষোভে ভাইকে অভিশাপ দেয়। একপর্যায়ে সেই অভিশাপ সত্যি হয়। ম্যাথিস মারা যায়। এই ঘটনায় জসের বাবা-মা পঙ্গু হয়ে যায়।

জসের বেড়ে উঠা খ্রিস্টান কৃষক পরিবারে। ভাইকে হারানোর পর সে ও তার পরিবার অসহায় হয়ে পড়ে। বিমর্ষ জস বড় হতে থাকে এক অনিশ্চয়তার মধ্য দিয়ে। ‘দ্য ডিসকমফোর্ট অব ইভিনিং' উপন্যাসটি আবর্তিত হয় জসের বিষাদ ও মানসিক টানাপোড়েনকে ঘিরেই।

মেরিকে লুকাস রিজনভেল্ড এর বয়স যখন তিন বছর, তখন তার ১২ বছর বয়সী ভাই একটি দুর্ঘটনায় মারা যায়। উপন্যাসের কেন্দ্রীয় চরিত্র জসের মতোই জীবন মেরিকে লুকাস রিজনভেল্ডের। তিনিও জন্ম নিয়েছেন নেদারল্যান্ডের এক খ্রিস্টান পরিবারে। তাদের বাড়িতে ছিল একটি ডেইরি ফার্ম। সেই ফার্মে এখনো কাজ করছেন লেখক।

‘দ্য ডিসকমফোর্ট অব ইভিনিং' গ্রন্থের অনুবাদক মাইকেল হাচিসন(বামে) ও লেখক মেরিকে লুকাস রিজনভেল্ড

দ্য ডিসকমফর্ট অব ইভিনিং উপন্যাসটি ডাচ ভাষায় লিখিত। এটি ইংরেজিতে অনুবাদ করেছেন মাইকেল হাচিসন। মেরিকে লুকাস রিজনভেল্ড প্রথম ডাচ ঔপন্যাসিক হিসেবে ২০২০ সালে বুকার পুরস্কার পেলেন। 

বুকার জয়ের পর মেরিকে লুকাস গণমাধ্যমকে বলেন, এ উপন্যাসটি অটোবায়োগ্রাফিক্যাল। তবে সম্পূর্ণ নয়। বুকার পুরস্কার কমিটির প্রধান বিচারক টেড হডকিনসন বলেন, মেরিকে লুকাস তার উপন্যাসে ব্যতিক্রমী একটি গল্প তুলে ধরেছেন। এটি অবিশ্বাস্য প্রেক্ষাপটে নির্মিত। এই উপন্যাস আমাদের এই রিক্ত বাস্তব থেকে ক্রমেই অনতিক্রম্য সময়রেখায় নিয়ে যায়।

দ্য ডিসকমফর্ট অব ইভিনিং উপন্যাসটি প্রথম প্রকাশিত হয় ২০১৮ সালের ৩১ জানুয়ারি। সে সময়ই উপন্যাসটি জনপ্রিয় হয়। গ্রন্থটি বেস্টসেলার হিসেবে স্থান পায়। বলা হচ্ছে মেরিকে লুকাসই বিশ্বের সর্বকনিষ্ঠ (মাত্র ২৯ বছর) ইন্টারন্যাশনাল বুকারজয়ী। এর আগে ২০১৩ সালে সবচেয়ে কম বয়সী হিসেবে বুকার পুরস্কার জেতেন এলিয়ানর ক্যাটন। সে সময় তার বয়স ছিল ২৮ বছর।

এ বছর বুকারের জন্য ৩০টি ভাষার মোট ১২৪টি বই মনোনীত করা হয়েছিল। মেরিকে লুকাস ও হ্যাচিসন যৌথভাবে এই পুরস্কার (৫০ হাজার ইউরো) পাচ্ছেন।

ঢাকা/সাইফ

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়