ঢাকা     শনিবার   ২৮ মে ২০২২ ||  জ্যৈষ্ঠ ১৪ ১৪২৯ ||  ২৬ শাওয়াল ১৪৪৩

রাজবাড়ীতে টমেটো ক্ষেতে পচন রোগ, শঙ্কায় কৃষকরা

রাজবাড়ী প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৪:৪৫, ২৭ জানুয়ারি ২০২২   আপডেট: ১৪:৫৬, ২৭ জানুয়ারি ২০২২
রাজবাড়ীতে টমেটো ক্ষেতে পচন রোগ, শঙ্কায় কৃষকরা

রাজবাড়ী সদর আর গোয়ালন্দ উপজেলার পদ্মার বিস্তির্ণ চরে বিভিন্ন জাতের টমেটোর আবাদ করেন কৃষকরা।শীতের মৌসুমে বিউটি, বিপুল প্লাস, বিগল ও মিন্টু সুপার মতন উচ্চ ফলনশীল জাতের টমেটোর আবাদ হয় এখানে। বিঘা প্রতি ফলন হয় দেড়শো থেকে দুইশ মণ। তবে এ বছর পচন রোগে ক্ষেতের অনেক টমেটো পচে যাচ্ছে। ফলে লোকসানের শঙ্কায় আছেন চাষীরা। 

তবে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর পচন প্রতিরোধে টমেটো ক্ষেতগুলোতে নিয়মিত ছত্রাক নাশক ওষুধ ছিটানোর পরামর্শ দিচ্ছে। 

সরোজমিনে সদর ও গোয়ালন্দ উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, এ বছর টমেটো ক্ষেতে পচন রোগ ধরায় অনেক টমেটো পচে যাচ্ছে। ফলে কৃষকেরা ক্ষেত থেকে পচে যাওয়া টমেটো ফেলে দিচ্ছেন। একই সঙ্গে তারা গাছ থেকে পাকা টমেটো ছিড়ে ঝুঁড়িতে রাখছেন। পরে সেগুলো ভ্যানে করে বাজারে নিয়ে গিয়ে বিক্রি করছেন। 

সদর উপজেলার কৃষক হাবিবুর রহমান জানান, তিনি এ বছর চার বিঘা জমিতে টমেটোর আবাদ করেছেন। এক বিঘা জমিতে টমোটোর আবাদ করতে ৫০ থেকে ৬০ হাজার টাকা খরচ হয়েছে। ফলন ভালো হলে এক বিঘা জমি থেকে ১০০ থেকে ১৫০ মণ টমেটো পাওয়া যায়। তবে পচন রোগ দেখা দেওয়ায় ফলন নিয়ে আশঙ্কায় আছেন তিনি।’

অপর কৃষক মন্তাজ শেখ জানান, অসময়ে বৃষ্টির কারণে টমেটো ক্ষেতে পচন রোগ দেখা দিয়েছে। ফলে গাছে থাকা অবস্থাতেই টমেটো পচে যাচ্ছে। রোগ ঠেকাতে ওষুধ স্প্রে করছি তবে তাতেও কাজ হচ্ছে না। 

হালিমা খাতুন জানান, এ বছর তার বাবা তিন বিঘা জমিতে টমেটোর আবাদ করেছেন। ফলও ভালো হয়েছে। শুরুতে ভালো দামে বিক্রি করতে পেরেছি। বর্তমানে ৫০০ থেকে ৬০০ টাকা মণ বিক্রি হচ্ছে। এই দাম পেলে লোকসানের হাত থেকে কিছুটা পরিত্রাণ পাওয়া যাবে।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক এস এম শহীদ নূর আকবর জানান, ঘূর্ণিঝড় আম্ফানের কারণে যে বৃষ্টিপাত হয়েছিল তার জন্যই মূলত টমেটো ক্ষেতে পচন রোগ দেখা দিয়েছে। এই রোগ থেকে টমেটো রক্ষা করার জন্য কৃষকদের ছত্রাক নাশক ওষুধ স্প্রে করতে বলা হয়েছে। এই বছর রাজবাড়ী জেলার ৭৯৫ হেক্টর জমিতে টমেটোর আবাদ হয়েছে।

সুকান্ত/ মাসুদ

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়