Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     শুক্রবার   ০৬ আগস্ট ২০২১ ||  শ্রাবণ ২২ ১৪২৮ ||  ২৪ জিলহজ ১৪৪২

ব্রিটেনের সঙ্গে বাণিজ্য বাড়াতে জানুয়ারিতে বৈঠক

বিশেষ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৮:৪৯, ৩ ডিসেম্বর ২০২০   আপডেট: ১৯:৩২, ৩ ডিসেম্বর ২০২০
ব্রিটেনের সঙ্গে বাণিজ্য বাড়াতে জানুয়ারিতে বৈঠক

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেছেন, ‘বাংলাদেশের সঙ্গে ব্রিটেনের বাণিজ্যিক ও অর্থনৈতিক সম্পর্ক দীর্ঘদিনের। ব্রিটেন বাংলাদেশের তৃতীয় বৃহত্তম রপ্তানিবাজার। উভয় দেশের মধ‌্যে বাণিজ্য বাড়ানোর প্রচুর সুযোগ আছে। ব্রিটেন ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে আলাদা হওয়ার পর নতুন বাণিজ্য নীতিতে বাংলাদেশকে গুরুত্ব দেওয়া হবে বলে আশা করছি।’

বৃহস্পতিবার (৩ ডিসেম্বর) বাণিজ্যমন্ত্রীর সরকারি বাসভবনে বাংলাদেশে নিযুক্ত ব্রিটেনের রাষ্ট্রদূত রবার্ট চ্যাটার্টন ডিকসনের সঙ্গে মতবিনিময়কালে তিনি এসব কথা বলেন।0

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ‘ব্রিটেনের আগ্রহে বাংলাদেশ উৎসাহ বোধ করছে। নতুন উদ‌্যোমে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সঠিক পথে পরিচালনার জন্য উভয় দেশের মধ্যে আলোচনা জরুরি। জানুয়ারি মাসেই উভয় দেশের মধ্যে (জিটুজি) বাণিজ্য বৈঠকের আয়োজন করা হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘বাংলাদেশে ব্রিটেনের অনেক বিনিয়োগ আছে। আরও বিনিয়োগকে স্বাগত জানাবে বাংলাদেশ। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্যোগে দেশের গুরুত্বপূর্ণ স্থানে ১০০টি স্পেশাল ইকোনমিক জোন গড়ে তোলার কাজ দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে। চীন, জাপান, কোরিয়া, ভারতসহ বেশকিছু দেশ সেখানে বিনিয়োগে এগিয়ে এসেছে। ব্রিটিশ বিনিয়োগকারীরা এখানে বিনিয়োগ করলে লাভবান হবেন। বাংলাদেশ সরকার বিদেশি বিনিয়োগের ক্ষেত্রে অনেক সুযোগ-সুবিধার ঘোষণা দিয়েছে। আগামী দিনগুলোতে বাংলাদেশ-ব্রিটেন বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বাড়াতে একসঙ্গে কাজ করবে।’

২০২৪ সালে বাংলাদেশ এলডিসি থেকে বেরিয়ে উন্নয়নশীল দেশে পরিণত হবে, এ তথ‌্য উল্লেখ করে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ‘এ সময় ব্রিটেন বাংলাদেশের জন‌্য বাণিজ্য ক্ষেত্রে চলমান সুযোগ-সুবিধাগুলো অব্যাহত রাখবে বলে আশা করছি। বিভিন্ন দেশের সঙ্গে পিটিএ এবং এফটিএ করে বাণিজ্যসুবিধা সৃষ্টির জন্য বাংলাদেশ প্রচেষ্টা শুরু করেছে।’

ব্রিটেনের রাষ্ট্রদূত বলেন, ‘ব্রেক্সিট পরবর্তী বাণিজ্য ও বিনিয়োগের ক্ষেত্রে ব্রিটেন বাংলাদেশকে গুরুত্ব দিচ্ছে। উভয় দেশের মধ্যে বাণিজ্য বৈঠক করে এ বিষয়ে বিস্তারিত কার্যক্রম গ্রহণ করা সম্ভব। বাংলাদেশ সরকারের সঙ্গে ব্রিটিশ সরকার বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বাড়ানোর বিষয়ে আলোচনা করতে আগ্রহী। বাংলাদেশের সঙ্গে ব্রিটেনের চলমান বাণিজ্য ও বিনিয়োগ এবং বাণিজ্য সুবিধা অব্যাহত থাকবে। আগামীতে তা আরও বাড়ানোর প্রচেষ্টা থাকবে। বাণিজ্য ও বিনিয়োগের ক্ষেত্রে ব্রিটেন বাংলাদেশকে অধিক গুরুত্ব দেয়।’

উল্লেখ্য, গত অর্থবছরে ব্রিটেনে ৩৪৫৩.৮৭ মিলিয়ন মার্কিন ডলার মূল্যের পণ্য রপ্তানি করেছে বাংলাদেশ। একই সময়ে ৪১০.৮৩ মিলিয়ন ডলারের পণ্য আমদানি করেছে।

ঢাকা/হাসনাত/রফিক

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়