Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     রোববার   ১৬ মে ২০২১ ||  জ্যৈষ্ঠ ২ ১৪২৮ ||  ০৩ শাওয়াল ১৪৪২

রেস্তোরাঁ ব্যবসায়ীদের বক্তব্য শুনে হতাশ এনবিআর চেয়ারম্যান

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৯:৪৩, ১৪ মার্চ ২০২১   আপডেট: ১০:৪৬, ১৫ মার্চ ২০২১
রেস্তোরাঁ ব্যবসায়ীদের বক্তব্য শুনে হতাশ এনবিআর চেয়ারম্যান

দেশের রেস্তোরাঁ মালিকদের দুঃখ-দুর্দশার কথা শুনে হাতাশ হয়েছেন বলে জানিয়েছন জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) চেয়ারম্যান আবু হেনা মো. রহমাতুল মুনিম। 

রোববার (১৪ মার্চ) বোর্ডের সম্মেলন কক্ষে প্রাক-বাজেট (২০২১-২০২২ অর্থবছর) সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।   সভায় হোটেল, রেস্টুরেন্ট, গেস্ট হাউজ, কাগজ, টেইলার্স, মুদ্রণ প্রকাশনা, চলচিত্র ও বিজ্ঞাপন, ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার ব্যবসায়ী সমিতির নেতা এবং এনবিআরের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

সভার শুরুতে বাংলাদেশ রেস্তোরাঁ মালিক সমিতির মহাসচিব ইমরান হাসান, বাজেট প্রস্তাবনা তুলে ধরেন।  এ সময় ব্যবসায় করোনার প্রভাব, গ্যাস-বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধি, কর্মচারীদের বেতন, আধুনিক সুযোগ সুবিধা ব্যবস্থাপনা ব্যয় সম্পর্কে বক্তব্য দেন তিন।

এনবিআর চেয়ারম্যান বলেন, ‘আপনাদের (রেস্তোরাঁ ব্যবসায়ী) বক্তব্য আমাকে হতাশ করেছে।  চেয়েছিলাম অবসরে রেস্তোরাঁ ব্যবসা করবো।  অনেক রেস্তোরাঁয় দেখি ১৫০ বা ২০০ টাকার মোরগের মাংস ৬০০ বা তার বেশি বিক্রি হয়।  খেতে গেলে জায়গা পাওয়া যায় না।’

চেয়ারম্যানের রেস্তোরাঁ ব্যবসায় আগ্রহের বিষয়কে স্বাগত জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট খাতের ব্যবসায়ীরা। তারা এনবিআর চেয়ারম্যানকে অন্তত একদিন তাদের ব্যবসার স্থান পরিদর্শনের আহ্বান জানান। 

সভায় সুপার মার্কেট ব্যবসায়ীরা ক্রেতাদের কাছ থেকে ৫ শতাংশ ভ্যাট আদায়ে আপত্তি জানান। এ বিষয়ে এনবিআর চেয়ারম্যান বলেন, যারা সুপার মার্কেটে আসবেন, সেসব ক্রেতারা সুপার ভেলু এডেট মানের হতে হবে।  রাস্তায় বা সাধারণ দোকানে যা পাওয়া যাবে তা যদি আপনার দোকানেও একদামে পাওয়া যায়, তাহলে ওসব দোকানদার কি করবে।  আমাদের সবার দিকে খেয়াল রেখে কাজ করতে হয়।  শুধু একটি শ্রেণিকে সুবিধা দিলে হবে না। এর পরেও অনেক সমস্যা থাকতে পারে, তা সমাধানে কাজ করছি।

সভায় টেইলার্স ব্যবসায়ীরা পোশাক তৈরিতে সুনির্দিষ্ট ভ্যাট ব্যবস্থার দাবি জানিয়েছেন। এ প্রসঙ্গে এনবিআর চেয়ারম্যান বলেন, তৈরি পোশাকের দাপটে আমাদের টেইলার্স ব্যবসা সত্যিই খারপ অবস্থায় রয়েছে।  টিকে থাকার জন্য তাদের অনেক চ্যালঞ্জ রয়েছে।  এ শিল্পের জন্য আমরা কাজা করবো।

কাগজ উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানের মালিকদের উদ্দেশ্যে চেয়ারম্যান বলেন, বিশ্ব প্রতিযোগিতায় টিকে থাকার স্বক্ষমতা অর্জন করতে হবে। শুধু সুবিধা চাইলেই হবে না।  সরকার কেবল সুবিধা দিয়েই যাবে, আর আপনারা তা উপভোগ করবেন, এটা ঠিক না। নিজেদের স্বক্ষমতা, গুন-মান বৃদ্ধি করতে হবে। অভ্যন্তরীণ চাহিদা মিটিয়ে রপ্তানিতে আসতে হবে।

পর্যটন খাতের ব্যবসায়ীরা দেশের স্বার্থ ও বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনে লক্ষ্যে বিশেষ পরিবহন ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য এনবিআরকে প্রস্তাব দেন।  এজন্য তারা আধুনিক গাড়ি আমাদনিতে শুল্কমুক্ত সুবিধা চান। তবে এসব গাড়ি শুধু মাত্র পর্যটন শিল্পে ব্যবহার হবে বা আলাদা নম্বর প্লেট দেওয়ার ব্যবস্থা নিতে রাজস্ব বোর্ডকে প্রস্তাব দিয়েছেন তারা।  যাতে অন্য কোনো খাত এসব গাড়ির অপব্যবহার করতে না পারে।

এ প্রসঙ্গে এনবিআর চেয়ারম্যান বলেন, সুনির্দিষ্ট বা বিশেষ খাতে ব্যবহার হলে বা সেই নিশ্চয়তা পেলে এই সুবিধা দেওয়া যায়।  

তিনি বলেন, সুবিধা দিলে যদি তা অসুবিধা হয়ে যায় তাতো সমস্যা। তবে পর্যটন খাতের বিষয়ে আমার আন্তরিকতা রয়েছে। এ বিষয়ে বলবো, আপনার পর্যটন বোর্ডের সঙ্গে আলাপ আলোচনা করেন। 

শিশির/সাইফ

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়