Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     মঙ্গলবার   ১৩ এপ্রিল ২০২১ ||  চৈত্র ৩০ ১৪২৭ ||  ২৮ শা'বান ১৪৪২

‘দীঘিকে নিয়ে নো কমেন্টস’

প্রকাশিত: ১৫:২৯, ৮ মার্চ ২০২১   আপডেট: ১৫:৪৫, ৯ মার্চ ২০২১
‘দীঘিকে নিয়ে নো কমেন্টস’

‘আমি চাই সিনেমাটি না চলুক, এটা ফ্লপ হোক। আর কোনো কথা বলতে চাই না।’—রাইজিংবিডির সঙ্গে আলাপকালে এভাবেই কথাগুলো বলেন গুণী নির্মাতা দেলোয়ার জাহান ঝন্টু।

দেশের সর্বাধিক সংখ্যক সিনেমার নির্মাতা দেলোয়ার জাহান ঝন্টু নির্মাণ করেছেন ‘তুমি আছো তুমি নেই’। এতে জুটি বেঁধে অভিনয় করেছেন দীঘি-আসিফ ইমরোজ। এই সিনেমার মাধ্যমে প্রথমবার নায়িকা হিসেবে পর্দায় আসছেন দীঘি। এই সিনেমা নিয়ে এমন মন্তব্য করেন ঝন্টু।

কেন নিজের নির্মিত সিনেমা সম্পর্কে এমন নেতিবাচক মন্তব্য করলেন ঝন্টু? যদিও এর সঠিক উত্তর মিলেনি। কয়েকদিন আগে এ সিনেমার ট্রেইলার প্রকাশিত হয়। নেটদুনিয়ায় ট্রেইলার নিয়েও সমালোচনার ঝড় ওঠে। সিনেমার নায়িকা দীঘিও ট্রেইলার দেখে হতাশা ব্যক্ত করেন।

এ অভিনেত্রী জানান, এতে কাজ করে ভুল করেছেন। ভবিষ্যতে এই ভুল আর করবেন না। দীঘির এমন মন্তব্যের কারণে দেলোয়ার জাহান ঝন্টু ক্ষোভ উগড়ালেন কিনা তা অবশ্য পরিষ্কার নয়। দীঘি সম্পর্কে জানতে চাইলে দেলোয়ার জাহান ঝন্টু বলেন, ‘দীঘিকে নিয়ে নো কমেন্টস।’

‘তুমি আছো তুমি নেই’ সিনেমাটি আগামী ১২ মার্চ মুক্তি পেতে যাচ্ছে। এর আগে সিনেমাটির বেশ কয়েকটি পোস্টার প্রকাশিত হয়েছে, যা ফেসবুকে সমালোচনার মুখে পড়ে। সিনেমাটি প্রযোজনা করেছেন সিমি ইসলাম কলি। প্রযোজক নিজেও এতে অভিনয় করেছেন। অন্যান্য চরিত্রে অভিনয় করেছেন—সুব্রত চক্রবর্তী, অমিত হাসান, শবনম পারভীন প্রমুখ।

শিশুশিল্পী হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন প্রার্থনা ফারদিন দীঘি। তার অভিনীত কাজী হায়াতের ‘কাবুলীওয়ালা’ চলচ্চিত্রে অভিনয় করে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন দিঘী। এরপর ‘চাচ্চু’, ‘দাদীমা’, ‘এক টাকার বউ’সহ বেশ কিছু সিনেমায় অভিনয় করে প্রশংসা কুড়ান তারা।

দীর্ঘ আট বছর পর নায়িকা হিসেবে পর্দায় ফিরছেন। শুরুটা বেশ ভালো হলেও কয়েকদিন না যেতেই প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান শাপলা মিডিয়ার পাঁচটি সিনেমা থেকে বাদ পড়েন তিনি। অন্যদিকে অনন্ত জলিল তার সিনেমায় দিঘীকে নিতে চেয়েও শেষ পর্যন্ত মুখ ফিরিয়ে নেন।

ঢাকা/রাহাত সাইফুল/শান্ত

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়

শিরোনাম

Bulletলকডাউন: ১৪-২১ এপ্রিল। যা যা চলবে: ১. বিমান, সমুদ্র, নৌ ও স্থল বন্দর এবং তৎসংশ্লিষ্ট অফিস। ২. পণ্য পরিবহন, উৎপাদন ব্যবস্থা ও জরুরি সেবাদানের ক্ষেত্রে এ আদেশ প্রযোজ্য হবে না ৩. শিল্প-কারখানা ৪. আইনশৃঙ্খলা এবং জরুরি পরিসেবা, যেমন, কৃষি উপকরণ (সার, বীজ, কীটনাশক, কৃষি যন্ত্রপাতি ইত্যাদি), খাদ্যশস্য ও খাদ্যদ্রব্য পরিবহন, ত্রাণ বিতরণ, স্বাস্থ্যসেবা, কোভিড-১৯ টিকা প্রদান, বিদ্যুৎ, পানি, গ্যাস/জ্বালানি, ফায়ার সার্ভিস, বন্দরগুলোর (স্থল, নদী ও সমুদ্রবন্দর) কার্যক্রম, টেলিফোন ও ইন্টারনেট (সরকারি-বেসরকারি), গণমাধ্যম (প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়া), বেসরকারি নিরাপত্তা ব্যবস্থা, ডাক সেবাসহ অন্যান্য জরুরি ও অত্যাবশ্যকীয় পণ্য ও সেবার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট অফিসসমূহ, তাদের কর্মচারী ও যানবাহন এ নিষেধাজ্ঞার আওতা বর্হিভূত থাকবে। ৫. ওষুধ ও নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি ক্রয়, চিকিৎসা সেবা, মৃতদেহ দাফন/সৎকার ৬. খাবারের দোকান ও হোটেল-রেস্তোরাঁয় দুপুর ১২টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা এবং রাত ১২টা থেকে ভোর ৬টা পর্যন্ত কেবল খাদ্য বিক্রয়/সরবরাহ করা যাবে। ৭. কাঁচাবাজার এবং নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি সকাল ৯টা থেকে বেলা ৩টা পর্যন্ত উন্মুক্ত স্থানে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ক্রয়-বিক্রয় করা যাবে || যা যা বন্ধ থাকবে: ১. সব সরকারি, আধাসরকারি, সায়ত্ত্বশাসিত ও বেসরকারি অফিস, আর্থিক প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে ২. সব ধরনের পরিবহন (সড়ক, নৌ, অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক ফ্লাইট) বন্ধ থাকবে ৩. শপিংমলসহ অন্যান্য দোকান বন্ধ থাকবে